‘কৌশলগত ভুলেই হেরেছে পাকিস্তান’
jugantor
‘কৌশলগত ভুলেই হেরেছে পাকিস্তান’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮:২৭:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১০৭ রানের লিড পাওয়ার পরও তিন উইকেটে হেরেছে পাকিস্তান।
পাকিস্তানের এ পরাজয়ের জন্য অধিনায়ক আজহার আলীকেই দোষ দিচ্ছেন সাবেক তারকা ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম।

পাকিস্তানের সাবেক এই তারকা পেসার বলেছেন, আজহার আলী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচে বিভিন্ন সময় কৌশলগত ভুল করেছে। তার এই ভুলের কারণেই আমাদের হারতে হয়েছে। এই পরাজয় পাকিস্তান ক্রিকেট দলের জন্য বড় ধাক্কা। 

প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের করা ৩২৬ রানের জবাবে ২১৯ রানে অলআউট ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ১০৭ রানে এগিয়ে থেকেও ১৬৯ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। দ্বিতীয় ইনিংসে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের টার্গেট দাঁড়ায় ২৭৭ রান। 

ব্যাটিংয়ে নেমে ২২ রানে ওপেনার রয় বার্নসের উইকেট হারায় ইংলিশরা। দ্বিতীয় উইকেটে ডম সিবলির সঙ্গে ৬৪ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক জো রুট। এক উইকেটে ৮৬ রান করা ইংল্যান্ড এরপর ৩১ রানের ব্যবধানে হারায় ৪ উইকেট। 

ষষ্ঠ উইকেটে ক্রিস ওকসকে সঙ্গে নিয়ে ১৩৯ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যান জস বাটলার। জয়ের জন্য শেষদিকে ইংলিশদের প্রয়োজন ছিল মাত্র ২১ রান। দলীয় ২৫৬ রানে আউট হন বাটলার। তার আগে সাত চার ও এক ছক্কায় করেন ৭৫ রান। এরপর ক্রিজে এসে ৭ রানে ফেরেন স্টুয়ার্ড ব্রড। তবে ৮৪ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়েন ক্রিস ওকস।  

ওল্ড ট্রাফোর্ডে ধারাভাষ্য দেয়া পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম বলেছেন, প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডকে ২১৯ রানে অলআউট  করা গেলেও দ্বিতীয় ইনিংসে আমাদের প্রত্যাশিত বোলিং হয়নি। ক্রিস ওকস এবং জস বাটলারকে সাজঘরে ফেরাতে আমাদের বোলাররা কোনো শর্ট বল এবং বাউন্সার দেয়ার চেষ্টা করেননি। বাটলার আর ওকস সহজেই পাকিস্তানের কাছ থেকে ম্যাচটা বের করে নিয়ে গেছেন।

‘কৌশলগত ভুলেই হেরেছে পাকিস্তান’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৯ আগস্ট ২০২০, ০৬:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১০৭ রানের লিড পাওয়ার পরও তিন উইকেটে হেরেছে পাকিস্তান।
পাকিস্তানের এ পরাজয়ের জন্য অধিনায়ক আজহার আলীকেই দোষ দিচ্ছেন সাবেক তারকা ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম।

পাকিস্তানের সাবেক এই তারকা পেসার বলেছেন, আজহার আলী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচে বিভিন্ন সময় কৌশলগত ভুল করেছে। তার এই ভুলের কারণেই আমাদের হারতে হয়েছে। এই পরাজয় পাকিস্তান ক্রিকেট দলের জন্য বড় ধাক্কা।

প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের করা ৩২৬ রানের জবাবে ২১৯ রানে অলআউট ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ১০৭ রানে এগিয়ে থেকেও ১৬৯ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। দ্বিতীয় ইনিংসে জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের টার্গেট দাঁড়ায় ২৭৭ রান।

ব্যাটিংয়ে নেমে ২২ রানে ওপেনার রয় বার্নসের উইকেট হারায় ইংলিশরা। দ্বিতীয় উইকেটে ডম সিবলির সঙ্গে ৬৪ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক জো রুট। এক উইকেটে ৮৬ রান করা ইংল্যান্ড এরপর ৩১ রানের ব্যবধানে হারায় ৪ উইকেট।

ষষ্ঠ উইকেটে ক্রিস ওকসকে সঙ্গে নিয়ে ১৩৯ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যান জস বাটলার। জয়ের জন্য শেষদিকে ইংলিশদের প্রয়োজন ছিল মাত্র ২১ রান। দলীয় ২৫৬ রানে আউট হন বাটলার। তার আগে সাত চার ও এক ছক্কায় করেন ৭৫ রান। এরপর ক্রিজে এসে ৭ রানে ফেরেন স্টুয়ার্ড ব্রড। তবে ৮৪ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়েন ক্রিস ওকস।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে ধারাভাষ্য দেয়া পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম বলেছেন, প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডকে ২১৯ রানে অলআউট করা গেলেও দ্বিতীয় ইনিংসে আমাদের প্রত্যাশিত বোলিং হয়নি। ক্রিস ওকস এবং জস বাটলারকে সাজঘরে ফেরাতে আমাদের বোলাররা কোনো শর্ট বল এবং বাউন্সার দেয়ার চেষ্টা করেননি। বাটলার আর ওকস সহজেই পাকিস্তানের কাছ থেকে ম্যাচটা বের করে নিয়ে গেছেন।