এবার আইনি লড়াইয়ে জিতলেন মেসি
jugantor
এবার আইনি লড়াইয়ে জিতলেন মেসি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:২৯:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

এখন থেকে নিজের নামকে ‘ট্রেডমার্ক’ হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন বার্সা অধিনায়ক ও আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

২০১১ সালে স্পোর্টসওয়ার ব্র্যান্ড হিসেবে নিজের ডাকনাম ব্যবহার করার আবেদন জানিয়েছিলেন মেসি। কিন্তু মেসির সেই আবেদনে সে সময় সাড়া দেননি ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) শীর্ষ আদালত।

৯ বছর আইনি লড়াই শেষে এবার রায় মেসির পক্ষেই গেল। লড়াইয়ে জিতে গেলেন মেসি।

বুধবার ইইউ শীর্ষ আদালত রায় দিয়েছে, এখন থেকে স্পোর্টসওয়ার ব্র্যান্ড হিসেবে নিজের ডাকনাম ব্যবহার করতে বাধা নেই মেসির।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক গণমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, সে সময় মেসির আবেদন নাকচ করে দেয়ার জন্য একমাত্র দায়ী ছিল ‘ম্যাসি’ (massi) নামের একটি স্প্যানিশ সাইক্লিং ব্র্যান্ড।

ইংরেজিতে নামের বানানে ভিন্নতা থাকলেও উচ্চারণে মিল থাকায় বিভ্রান্তি তৈরি হতে পারে এমন যুক্তি দেখানো হয় তখন।

এই যুক্তি দেখিয়ে মেসির আবেদন চ্যালেঞ্জ করেছিল ম্যাসি’ (massi) সাইক্লিং ব্র্যান্ড। আবেদনে জিতে যায় কোম্পানিটি।

কিন্তু হার না মেনে পরে মেসি এ বিষয়ে রায় পেতে ‘দ্য ইউরোপিয়ান কোর্ট অব জাস্টিস’-এ আপিল করেন। সেই আপিলের রায় এবার তার পক্ষে এলো।

রায়ে ইউরোপিয়ান কোর্ট অব জাস্টিস বলেছে, বিশ্বসেরা এই তারকা ফুটবলার ও সাইক্লিং ব্র্যান্ডের নামে অনেকটা মিল থাকলেও সাধারণ মানুষ দুই ব্র্যান্ডের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবেন। সেই প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালে ইইউ’র ফৌজদারি আলাদতে তোলা চ্যালেঞ্জটি খারিজ করে দেয়া হয়।

এই রায়ের ফলে এখন থেকে যে কোনো ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে নিজের নাম ব্যবহার করতে পারবেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

তথ্যসূত্র: দ্য সান, বিবিসি

এবার আইনি লড়াইয়ে জিতলেন মেসি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

এখন থেকে নিজের নামকে  ‘ট্রেডমার্ক’ হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন বার্সা অধিনায়ক ও আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

২০১১ সালে স্পোর্টসওয়ার ব্র্যান্ড হিসেবে নিজের ডাকনাম ব্যবহার করার আবেদন জানিয়েছিলেন মেসি।  কিন্তু মেসির সেই আবেদনে সে সময় সাড়া দেননি ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) শীর্ষ আদালত।

৯ বছর আইনি লড়াই শেষে এবার রায় মেসির পক্ষেই গেল।  লড়াইয়ে জিতে গেলেন মেসি। 

বুধবার ইইউ শীর্ষ আদালত রায় দিয়েছে, এখন থেকে স্পোর্টসওয়ার ব্র্যান্ড হিসেবে নিজের ডাকনাম ব্যবহার করতে বাধা নেই মেসির। 

যুক্তরাজ্যভিত্তিক গণমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, সে সময় মেসির আবেদন নাকচ করে দেয়ার জন্য একমাত্র দায়ী ছিল  ‘ম্যাসি’ (massi) নামের একটি স্প্যানিশ সাইক্লিং ব্র্যান্ড।

ইংরেজিতে নামের বানানে ভিন্নতা থাকলেও উচ্চারণে মিল থাকায় বিভ্রান্তি তৈরি হতে পারে এমন যুক্তি দেখানো হয় তখন। 

এই যুক্তি দেখিয়ে মেসির আবেদন চ্যালেঞ্জ করেছিল ম্যাসি’ (massi) সাইক্লিং ব্র্যান্ড। আবেদনে জিতে যায় কোম্পানিটি।

কিন্তু হার না মেনে পরে মেসি এ বিষয়ে রায় পেতে ‘দ্য ইউরোপিয়ান কোর্ট অব জাস্টিস’-এ আপিল করেন।  সেই আপিলের রায় এবার তার পক্ষে এলো। 

রায়ে ইউরোপিয়ান কোর্ট অব জাস্টিস বলেছে, বিশ্বসেরা এই তারকা ফুটবলার ও সাইক্লিং ব্র্যান্ডের নামে অনেকটা মিল থাকলেও সাধারণ মানুষ দুই ব্র্যান্ডের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারবেন। সেই প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালে ইইউ’র ফৌজদারি আলাদতে তোলা চ্যালেঞ্জটি খারিজ করে দেয়া হয়।

এই রায়ের ফলে এখন থেকে যে কোনো ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে নিজের নাম ব্যবহার করতে পারবেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

তথ্যসূত্র:  দ্য সান, বিবিসি