কোহলিকে নিয়ে ‘অশালীন’ ইঙ্গিত গাভাস্কারের, সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়
jugantor
কোহলিকে নিয়ে ‘অশালীন’ ইঙ্গিত গাভাস্কারের, সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:৩০:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারত দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও তার স্ত্রী বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মাকে নিয়ে দেশটির জীবন্ত কিংবদন্তি ক্রিকেটার সুনীল গাভাস্কার ‘অশালীন’ মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার রাতে দুবাই স্টেডিয়ামে আইপিএলের ৬ষ্ঠ ম্যাচে এক রানে কোহলি আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যাওয়ার সময় ওই বাজে মন্তব্যটি করেন ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কার।

বিষয়টি নিয়ে ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছে। কোহলিকে গাভাস্কারের এমন মন্তব্যকে মোটেই ভালো চোখে দেখছে না নেটিজেনরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যে গাভাস্কারকে স্টার ইন্ডিয়ার কমেন্ট্রি প্যানেল থেকে সরিয়ে দেয়ার দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন নেটিজেনরা।

বৃহস্পতিবার রাতের ওই ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে কোহলির ব্যাঙ্গালুরু। ৯৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে তারা। এমন বাজেভাবে হারের জন্য ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক কোহলিকে দায়ী করা হচ্ছে। কারণ তার হাতেই পর পর দুইবার জীবন পেয়ে ১৩২ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। ২০৭ রানের বড় টার্গেট ছুড়ে দেয় তারা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র একরানে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন কোহলি।

কোহলির এমন বাজে পারফরম্যান্সকে বোঝাতে গিয়ে ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কার হিন্দি ভাষায় বলে ওঠেন, ‘ইনহোনে লকডাউন মে বাস আনুশকা কি গেন্দোঁ কি প্র্যাকটিস কি হ্যায়।’ যার বাংলা অর্থ - ‘কোহলি লকডাউনে শুধু আনুশকার বলেই অনুশীলন করেছেন।’

অনেকে বলছেন, লকডাউনের সময় বিরাট কোহলি একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন, যেখানে দেখা গেছে, বাড়িতে আনুশকা বল করছিলেন এবং বিরাট ব্যাট করছিলেন। সেই ভিডিওর পরিপ্রেক্ষিতে গাভাস্কারের এমন মন্তব্য করেছেন।

যদিও এমনটা মানতে নারাজ বিরুস্কাভক্তরা। তাদের দাবি, এমন বক্তব্য দিয়ে গাভাস্কার সন্তান সম্ভাবা আনুশকার দিকে ইঙ্গিত করেছেন। লকডাউনের মাঝে আনুশকার গর্ভবতী হওয়া নিয়েই গাভাস্কার এই মন্তব্য করেছেন।


টুইটারে মানাসা নামের একজন লিখেছেন, ‘গাভাস্কার ধারাভাষ্য দিতে গেলে সবসময় অপ্রত্যাশিত কথাবার্তা ও ‘কৌতুক’ বলে নিজেকে খবরের শিরোনামে রাখতে চায়। এটা করতে গিয়ে তিনি কারো পরিবারকে নিজের কৌতুকের মধ্যে টেনে আনেন। এই অধিকার তাকে কে দিয়েছে?’

গাভাস্কারের এই স্বভাব চরম বিকৃতির পর্যায়ে পড়ে বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ।

অনেকেই লিখেছেন, ক্রিকেটে ব্যাঙ্গালুরু জিতলে বা কোহলি ভালো খেললে তখন কেউ আনুশকা শর্মার নাম বলে না। কিন্তু যখনই এর বিপরীত ঘটে তখনই আনুশকাকে নিয়ে ঠাট্টা মস্করা শুরু হয়ে যায়!

কোহলিকে নিয়ে ‘অশালীন’ ইঙ্গিত গাভাস্কারের, সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারত দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও তার স্ত্রী বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মাকে নিয়ে দেশটির জীবন্ত কিংবদন্তি ক্রিকেটার  সুনীল গাভাস্কার ‘অশালীন’ মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। 

বৃহস্পতিবার রাতে দুবাই স্টেডিয়ামে আইপিএলের ৬ষ্ঠ ম্যাচে এক রানে কোহলি আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যাওয়ার সময় ওই বাজে মন্তব্যটি করেন ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কার।

বিষয়টি নিয়ে ভারতের সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছে। কোহলিকে গাভাস্কারের এমন মন্তব্যকে মোটেই ভালো চোখে দেখছে না নেটিজেনরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যে গাভাস্কারকে স্টার ইন্ডিয়ার কমেন্ট্রি প্যানেল থেকে সরিয়ে দেয়ার দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন নেটিজেনরা।

 বৃহস্পতিবার রাতের ওই ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে কোহলির ব্যাঙ্গালুরু। ৯৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে তারা। এমন বাজেভাবে হারের জন্য ব্যাঙ্গালুরু অধিনায়ক কোহলিকে দায়ী করা হচ্ছে। কারণ তার হাতেই পর পর দুইবার জীবন পেয়ে ১৩২ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। ২০৭ রানের বড় টার্গেট ছুড়ে দেয় তারা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র একরানে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন কোহলি। 

কোহলির এমন বাজে পারফরম্যান্সকে বোঝাতে গিয়ে ধারাভাষ্যকার সুনীল গাভাস্কার হিন্দি ভাষায় বলে ওঠেন, ‘ইনহোনে লকডাউন মে বাস আনুশকা কি গেন্দোঁ কি প্র্যাকটিস কি হ্যায়।’ যার বাংলা অর্থ - ‘কোহলি লকডাউনে শুধু আনুশকার বলেই অনুশীলন করেছেন।’

অনেকে বলছেন, লকডাউনের সময় বিরাট কোহলি একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন, যেখানে দেখা গেছে, বাড়িতে আনুশকা বল করছিলেন এবং বিরাট ব্যাট করছিলেন। সেই ভিডিওর পরিপ্রেক্ষিতে গাভাস্কারের এমন মন্তব্য করেছেন। 

 

যদিও এমনটা মানতে নারাজ বিরুস্কাভক্তরা। তাদের দাবি, এমন বক্তব্য দিয়ে গাভাস্কার সন্তান সম্ভাবা আনুশকার দিকে ইঙ্গিত করেছেন। লকডাউনের মাঝে আনুশকার গর্ভবতী হওয়া নিয়েই গাভাস্কার এই মন্তব্য করেছেন। 


টুইটারে মানাসা নামের একজন লিখেছেন, ‘গাভাস্কার ধারাভাষ্য দিতে গেলে সবসময় অপ্রত্যাশিত কথাবার্তা ও ‘কৌতুক’ বলে নিজেকে খবরের শিরোনামে রাখতে চায়। এটা করতে গিয়ে তিনি  কারো পরিবারকে নিজের কৌতুকের মধ্যে টেনে আনেন। এই অধিকার তাকে কে দিয়েছে?’

গাভাস্কারের এই স্বভাব চরম বিকৃতির পর্যায়ে পড়ে বলে মন্তব্য করেছেন কেউ কেউ।

অনেকেই লিখেছেন, ক্রিকেটে ব্যাঙ্গালুরু জিতলে বা কোহলি ভালো খেললে তখন কেউ আনুশকা শর্মার নাম বলে না। কিন্তু যখনই এর বিপরীত ঘটে তখনই আনুশকাকে নিয়ে ঠাট্টা মস্করা শুরু হয়ে যায়! 
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২০

২৬ অক্টোবর, ২০২০