‘আইপিএলের সাফল্যের পেছনে পাকিস্তানিদের অবদান আছে’
jugantor
‘আইপিএলের সাফল্যের পেছনে পাকিস্তানিদের অবদান আছে’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:১৩:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) উন্নয়নের পেছনে পাকিস্তানিদের অবদান রয়েছে। এমনটিই দাবি করেছেন পাকিস্তানের খ্যাতিমান আম্পায়ার আসাদ রউফ।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জনপ্রিয় এই আম্পায়ার বলেছেন, পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) আম্পায়ারিংয়ের মানটিও উন্নত করা দরকার; কারণ দুর্বল আম্পায়ারিং সহজেই কোনো টুর্নামেন্টকে নষ্ট করতে পারে।

তিনি আরও বলেছেন, আপনি আইপিএলের প্রথম কয়েকটি মৌসুমের কথা মনে করেন, তখন অধিনায়করা প্রায়ই আম্পায়ারিংয়ের বিষয়ে অভিযোগ করেছিল। আম্পায়ারিং নিয়ে একাধিক অভিযোগ আসার পর তা উন্নতির জন্য পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল। এমনকি মাঠে আমাদের সঠিক সিদ্ধান্তের কারণে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন সত্ত্বেও পাকিস্তান থেকে আম্পায়ারদের ডেকে নিয়েছিল ভারত।

পাকিস্তানের হয়ে ৭১টি প্রথম শ্রেণির এবং ৪০টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলা আসাদ রউফ আরও বলেছেন, আইপিএলের সাফল্যের পেছনে পাকিস্তানি আম্পায়ারদেরও অবদান রয়েছে।

আইপিএলের উদ্বোধনী আসরে ২০০৮ সালে অংশ নিয়েছিল পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। এরপর প্রতিবেশী দুই দেশের সীমান্ত সমস্যার কারণে আইপিএল খেলার সুযোগ হারান পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। শুধু আইপিএলই নয়! একই সমস্যার কারণে দীর্ঘদিন ধরেই প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে ক্রিকেট ম্যাচ বন্ধ রয়েছে।

‘আইপিএলের সাফল্যের পেছনে পাকিস্তানিদের অবদান আছে’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) উন্নয়নের পেছনে পাকিস্তানিদের অবদান রয়েছে। এমনটিই দাবি করেছেন পাকিস্তানের খ্যাতিমান আম্পায়ার আসাদ রউফ। 

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জনপ্রিয় এই আম্পায়ার বলেছেন, পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) আম্পায়ারিংয়ের মানটিও উন্নত করা দরকার; কারণ দুর্বল আম্পায়ারিং সহজেই কোনো টুর্নামেন্টকে নষ্ট করতে পারে।

তিনি আরও বলেছেন, আপনি আইপিএলের প্রথম কয়েকটি মৌসুমের কথা মনে করেন, তখন অধিনায়করা প্রায়ই আম্পায়ারিংয়ের বিষয়ে অভিযোগ করেছিল। আম্পায়ারিং নিয়ে একাধিক অভিযোগ আসার পর তা উন্নতির জন্য পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল। এমনকি মাঠে আমাদের সঠিক সিদ্ধান্তের কারণে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন সত্ত্বেও পাকিস্তান থেকে আম্পায়ারদের ডেকে নিয়েছিল ভারত। 

পাকিস্তানের হয়ে ৭১টি প্রথম শ্রেণির এবং ৪০টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলা আসাদ রউফ আরও বলেছেন, আইপিএলের সাফল্যের পেছনে পাকিস্তানি আম্পায়ারদেরও অবদান রয়েছে। 

আইপিএলের উদ্বোধনী আসরে ২০০৮ সালে অংশ নিয়েছিল পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। এরপর প্রতিবেশী দুই দেশের সীমান্ত সমস্যার কারণে আইপিএল খেলার সুযোগ হারান পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। শুধু আইপিএলই নয়! একই সমস্যার কারণে দীর্ঘদিন ধরেই প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে ক্রিকেট ম্যাচ বন্ধ রয়েছে।  
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২০