মেসি-ফাতি জুটির কাছে ‘এক হালি’ হজম করল ভিয়েরিয়াল
jugantor
মেসি-ফাতি জুটির কাছে ‘এক হালি’ হজম করল ভিয়েরিয়াল

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:১৯:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

স্প্যানিশ লা লিগার নতুন মৌসুমে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই ভেলকি দেখালেন লিওনেল মেসি। দলের সবচেয়ে তরুণ খেলোয়াড় আনসু ফাতিকে নিয়ে ভিয়ারিয়ালকে উড়িয়ে দিলেন মেসি।

রোববার রাতে নিজেদের ঘরের মাঠে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে জিতেছে বার্সেলোনা। আর সব গোলই হয়েছে ম্যাচের প্রথমার্ধে।

ম্যাচের ১৫ মিনিটের সময় জর্ডি আলবার এসিস্টে দুর্দান্ত ফিনিশিং আনেন আনসু ফাতি। লিড এনে দেন সবচেয়ে কম বয়সে মাঠে নামা এই বিশ্বরেকর্ডধারী।

প্রথম গোলের ৪ মিনিট পর মেসি-ফাতি জুটির জাদুতে মুগ্ধ হয় ফুটবলবিশ্ব। মাঝ মাঠ থেকে বল টেনে নিয়ে তরুণ ফরোয়ার্ড ফাতির উদ্দেশে ছেড়ে দেন মেসি। ফাতিও তার সম্মান দেখান সিনিয়রের।

ভিয়ারিয়ালের জালে বল জড়িয়ে জোড়া গোল সম্পন্ন করেন ফাতি।


ম্যাচের ৩৬ মিনিটের মাথায় স্কোরলাইনকে ৩-০ করেন মেসি। ডি-বক্সে আনসু ফাতিকে ফাউল করেছিলেন ভিয়ারিয়াল অধিনায়ক মারিও। রেফারির বাঁশিতে পেনাল্টি পায় বার্সেলোনা। সফল স্পটকিকে নতুন মৌসুমে নিজের প্রথম গোল করেন মেসি।

প্রথমার্ধের বিরতিতে যাওয়ার ঠিক আগমুহূর্তে স্কোরলাইন ৪-০ করে বার্সেলোনা। আর তা হয় আত্মঘাতী গোলে।

সার্জিও বুসকেটসের উদ্দেশ্যে মেসির বাড়িয়ে দেয়া বল ঠেকাতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালেই পাঠিয়ে দেন ভিয়ারিয়াল ডিফেন্ডার পাউ তোরেস।

৪-০ তে বিরতিতে যায় দুদল।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে দারুণ কিছু সুযোগ করলেও জালের দেখা পায়নি মেসি-ফাতি জুটি। বার্সেলোনার রক্ষণ ভেঙে একটি গোলও শোধ করতে পারেনি ভিয়ারিয়াল।

তথ্যসূত্র: গোল ডট কম

মেসি-ফাতি জুটির কাছে ‘এক হালি’ হজম করল ভিয়েরিয়াল

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:১৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্প্যানিশ লা লিগার নতুন মৌসুমে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই ভেলকি দেখালেন লিওনেল মেসি। দলের সবচেয়ে তরুণ খেলোয়াড় আনসু ফাতিকে নিয়ে ভিয়ারিয়ালকে উড়িয়ে দিলেন মেসি।

রোববার রাতে নিজেদের ঘরের মাঠে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে জিতেছে বার্সেলোনা। আর সব গোলই হয়েছে ম্যাচের প্রথমার্ধে।

ম্যাচের ১৫ মিনিটের সময় জর্ডি আলবার এসিস্টে দুর্দান্ত ফিনিশিং আনেন আনসু ফাতি। লিড এনে দেন সবচেয়ে কম বয়সে মাঠে নামা এই বিশ্বরেকর্ডধারী। 

প্রথম গোলের ৪ মিনিট পর মেসি-ফাতি জুটির জাদুতে মুগ্ধ হয় ফুটবলবিশ্ব। মাঝ মাঠ থেকে বল টেনে নিয়ে তরুণ ফরোয়ার্ড ফাতির উদ্দেশে ছেড়ে দেন মেসি। ফাতিও তার সম্মান দেখান সিনিয়রের। 

ভিয়ারিয়ালের জালে বল জড়িয়ে জোড়া গোল সম্পন্ন করেন ফাতি।  


ম্যাচের ৩৬ মিনিটের মাথায় স্কোরলাইনকে ৩-০ করেন মেসি।  ডি-বক্সে আনসু ফাতিকে ফাউল করেছিলেন ভিয়ারিয়াল অধিনায়ক মারিও। রেফারির বাঁশিতে পেনাল্টি পায় বার্সেলোনা। সফল স্পটকিকে নতুন মৌসুমে নিজের প্রথম গোল করেন মেসি। 

প্রথমার্ধের বিরতিতে যাওয়ার ঠিক আগমুহূর্তে স্কোরলাইন ৪-০ করে বার্সেলোনা।  আর তা হয় আত্মঘাতী গোলে। 

সার্জিও বুসকেটসের উদ্দেশ্যে মেসির বাড়িয়ে দেয়া বল ঠেকাতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালেই পাঠিয়ে দেন ভিয়ারিয়াল ডিফেন্ডার পাউ তোরেস। 

 ৪-০ তে বিরতিতে যায় দুদল।  

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে দারুণ কিছু সুযোগ করলেও জালের দেখা পায়নি মেসি-ফাতি জুটি। বার্সেলোনার রক্ষণ ভেঙে একটি গোলও শোধ করতে পারেনি ভিয়ারিয়াল।

তথ্যসূত্র: গোল ডট কম