৩৪ ম্যাচ পর হারল বায়ার্ন মিউনিখ
jugantor
৩৪ ম্যাচ পর হারল বায়ার্ন মিউনিখ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৪৬:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে হারল জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ।

গত ১০ মাস ধরে অপ্রতিরোধ্য ছিল দলটি। বুন্দেসলিগা, লিগ কাপ ডিএফবি পোকাল, উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জিতে রীতিমতো উড়ছিলেন জার্মান জায়ান্টরা। টানা ৩৪ ম্যাচে হার দেখেননি হান্স ফ্লিকের শিষ্যরা।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর উয়েফা সুপার সেভিয়ার বিপক্ষে জয় পায় দলটি।

আর সেই অপরাজিত দলটি হারল তুলনামূলক অনেক দুর্বল দল হফেনহেইমের কাছে। তাও আবার ৪ গোল হজম করে হারল বায়ার্ন।

ফুটবলে যে পরাজয় বলতে কিছু আছে, তা প্রায় ভুলতে বসা দলটিকে আকাশ থেকে নামাল এমন একটি দল, যার নাম জানে না অনেকেই।

গত বছরের ৭ ডিসেম্বর বরুশিয়া মনশেন গ্ল্যাডব্যাকের বিপক্ষে ১-২ গোলে হেরেছিল বায়ার্ন।

সে হিসাবে ১০ মাসেরও বেশি সময় পর জয়ের বৃত্ত থেকে বের হতে হলো বায়ার্ন মিউনিখকে।

রোববার রাতের সেই ম্যাচে প্রথমার্ধেই জোড়া গোল হজম করে বায়ার্ন। ম্যাচের ১৬ মিনিটের সময় গোল করেন আরমিন বিকাসিচ। ২৪ মিনিটের মাথায় বায়ার্নের জালে বল জড়ান মিউনাস দাবুর। ২-০ তে লিড নেয় হফেনহেইম। ৩৬ মিনিটের মাথায় একটি গোল শোধ করেন বায়ার্নের জশুয়া কিমিচ।

২-১ এ স্কোরলাইনে বিরতিতে যায় দুদল।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে জয় পেতে ১৬ বার হফেনহেইমের রক্ষণভাগ ভাঙতে চেষ্টা করেন বায়ার্নের লেওয়ানডোস্কিরা।

একটিতে সফল হন তারা।

ম্যাচের ৭৭ মিনিটের সময় হফেনহেইমের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন আন্দ্রে ক্রামারিচ।

খেলার অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে নিজের জোড়া গোল পূরণ করেন ক্রামারিচ।

ফল ৪-৩ ব্যবধানে হফেনহেইমের কাছে হারলেন চ্যাম্পিয়নস লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

এই পরাজয়ের পর দুই ম্যাচে এক জয় ও এক পরাজয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে ৭ নম্বরে নেমে গেছে বায়ার্ন। সমান ম্যাচে বায়ার্নকে হারিয়ে পূর্ণ ছয় পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছে হফেনহেইম।

তথ্যসূত্র: গোল ডট কম

৩৪ ম্যাচ পর হারল বায়ার্ন মিউনিখ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে হারল জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ।  

গত ১০ মাস ধরে অপ্রতিরোধ্য ছিল দলটি। বুন্দেসলিগা, লিগ কাপ ডিএফবি পোকাল, উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জিতে রীতিমতো উড়ছিলেন জার্মান জায়ান্টরা। টানা ৩৪ ম্যাচে হার দেখেননি হান্স ফ্লিকের শিষ্যরা। 

গত ২৫ সেপ্টেম্বর উয়েফা সুপার সেভিয়ার বিপক্ষে জয় পায় দলটি।

আর সেই অপরাজিত দলটি হারল তুলনামূলক অনেক দুর্বল দল হফেনহেইমের কাছে। তাও আবার ৪ গোল হজম করে হারল বায়ার্ন।

ফুটবলে যে পরাজয় বলতে কিছু আছে, তা প্রায় ভুলতে বসা দলটিকে আকাশ থেকে নামাল এমন একটি দল, যার নাম জানে না অনেকেই।

গত বছরের ৭ ডিসেম্বর বরুশিয়া মনশেন গ্ল্যাডব্যাকের বিপক্ষে ১-২ গোলে হেরেছিল বায়ার্ন।
 
সে হিসাবে ১০ মাসেরও বেশি সময় পর জয়ের বৃত্ত থেকে বের হতে হলো বায়ার্ন মিউনিখকে। 

রোববার রাতের সেই ম্যাচে প্রথমার্ধেই জোড়া গোল হজম করে বায়ার্ন। ম্যাচের ১৬ মিনিটের সময় গোল করেন আরমিন বিকাসিচ। ২৪ মিনিটের মাথায় বায়ার্নের জালে বল জড়ান মিউনাস দাবুর। ২-০ তে লিড নেয় হফেনহেইম। ৩৬ মিনিটের মাথায় একটি গোল শোধ করেন বায়ার্নের জশুয়া কিমিচ।

২-১ এ স্কোরলাইনে বিরতিতে যায় দুদল।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে জয় পেতে ১৬ বার হফেনহেইমের রক্ষণভাগ ভাঙতে চেষ্টা করেন বায়ার্নের লেওয়ানডোস্কিরা। 

একটিতে সফল হন তারা।    

ম্যাচের ৭৭ মিনিটের সময় হফেনহেইমের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন আন্দ্রে ক্রামারিচ।

খেলার অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে নিজের জোড়া গোল পূরণ করেন ক্রামারিচ। 

ফল ৪-৩ ব্যবধানে হফেনহেইমের কাছে হারলেন চ্যাম্পিয়নস লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

এই পরাজয়ের পর দুই ম্যাচে এক জয় ও এক পরাজয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে ৭ নম্বরে নেমে গেছে বায়ার্ন। সমান ম্যাচে বায়ার্নকে হারিয়ে পূর্ণ ছয় পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছে হফেনহেইম।

তথ্যসূত্র: গোল ডট কম