বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ে মিসবাহকে দোষ দিচ্ছেন না আফ্রিদি
jugantor
বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ে মিসবাহকে দোষ দিচ্ছেন না আফ্রিদি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:১৮:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

২০১১ সালে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে টান টান উত্তেজনাকর মুহূর্তে রান রেট বেড়ে গেলেও স্লো মোশন ব্যাটিং করেছিলেন মিসবাহ-উল হক। সেই ম্যাচে হারে বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে যায় পাকিস্তান। আর সেই ম্যাচে পরাজয়ের জন্য ক্রিকেট বিশ্লেষকদের অনেকেই দায়ী করছেন পাকিস্তানের বর্তমান প্রধান কোচ মিসবাহকে।

সম্প্রতি আরব নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ২০১১ সালের বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়া প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেন সেই সময়ের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। সেই সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের পরাজয়ের জন্য সরাসরি মিসবাহকে দায়ী না করলেও তার স্লো মোশন আর অপরিকল্পিত ব্যাটিং নিয়ে কথা বলেন আফ্রিদি।

৩০ মার্চ মোহালির সেই ম্যাচে স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে ২৬১ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ১ উইকেটে ৭০ রান করা পাকিস্তান, এর পর ৮০ রানের ব্যবধানে হারায় ৫ উইকেট। দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে উইকেটে ছিলেন মিসবাহ। কিন্তু তার স্লো মোশন ব্যাটিংয়ের কারণেই ২৩১ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।

সেদিন পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে সবশেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে অউট হওয়ার আগে ৭৬ বলে মাত্র ৫৬ রান করেছিলেন মিসবাহ।
আরব নিউজকে দেয়া সাক্ষাত্কারে আফ্রিদি বলেন, অনেকে মিসবাহ সম্পর্কে বলে যে তিনি ধীরগতিতে ব্যাটিং করেছিলেন। আসলে সেটিই মিসবাহর প্রকৃত ব্যাটিং। তিনি এভাবে ব্যাটিং করে থাকেন। তিনি উইকেটে সেট হতে যথেষ্ট সময় নেন। তবে রান রেট যখন বেড়ে গিয়েছিল, তখন মিসবাহর পরিকল্পিত ব্যাটিং করা দরকার ছিল।

মঙ্গলবার এক টুইবার্তায় পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি বলেছেন, দুর্ভাগ্যক্রমে আরব নিউজকে দেয়া আমার সেই সাক্ষাৎকারটি ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।২০১১ সালের বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিদায়ের জন্য আমি কাউকেদোষ দিচ্ছি না।

বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ে মিসবাহকে দোষ দিচ্ছেন না আফ্রিদি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

২০১১ সালে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে টান টান উত্তেজনাকর মুহূর্তে রান রেট বেড়ে গেলেও স্লো মোশন ব্যাটিং করেছিলেন মিসবাহ-উল হক। সেই ম্যাচে হারে বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে যায় পাকিস্তান। আর সেই ম্যাচে পরাজয়ের জন্য ক্রিকেট বিশ্লেষকদের অনেকেই দায়ী করছেন পাকিস্তানের বর্তমান প্রধান কোচ মিসবাহকে। 

সম্প্রতি আরব নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ২০১১ সালের বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়া প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেন সেই সময়ের অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। সেই সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের পরাজয়ের জন্য সরাসরি মিসবাহকে দায়ী না করলেও তার স্লো মোশন আর অপরিকল্পিত ব্যাটিং নিয়ে কথা বলেন আফ্রিদি। 

৩০ মার্চ মোহালির সেই ম্যাচে স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে ২৬১ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ১ উইকেটে ৭০ রান করা পাকিস্তান, এর পর ৮০ রানের ব্যবধানে হারায় ৫ উইকেট। দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে উইকেটে ছিলেন মিসবাহ। কিন্তু তার স্লো মোশন ব্যাটিংয়ের কারণেই ২৩১ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।

সেদিন পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে সবশেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে অউট হওয়ার আগে ৭৬ বলে মাত্র ৫৬ রান করেছিলেন মিসবাহ। 
আরব নিউজকে দেয়া সাক্ষাত্কারে আফ্রিদি বলেন, অনেকে মিসবাহ সম্পর্কে বলে যে তিনি ধীরগতিতে ব্যাটিং করেছিলেন। আসলে সেটিই মিসবাহর প্রকৃত ব্যাটিং। তিনি এভাবে ব্যাটিং করে থাকেন। তিনি উইকেটে সেট হতে যথেষ্ট সময় নেন। তবে রান রেট যখন বেড়ে গিয়েছিল, তখন মিসবাহর পরিকল্পিত ব্যাটিং করা দরকার ছিল।  

মঙ্গলবার এক টুইবার্তায় পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি বলেছেন, দুর্ভাগ্যক্রমে আরব নিউজকে দেয়া আমার সেই সাক্ষাৎকারটি ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। ২০১১ সালের বিশ্বকাপ থেকে পাকিস্তানের বিদায়ের জন্য আমি কাউকে দোষ দিচ্ছি না।