‘কারও ঝামেলার কারণ হয়ে থাকলে আমার চলে যাওয়াই ভালো'
jugantor
‘কারও ঝামেলার কারণ হয়ে থাকলে আমার চলে যাওয়াই ভালো'

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৭ অক্টোবর ২০২০, ২২:৩৩:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

এক সময় রিয়াল মাদ্রিদ, এসি মিলান, ম্যানচেস্টার সিটিতে খেলা রবিনহোকে বলা হতো ব্রাজিলের 'নতুন পেলে'। জিদান-বেকহাম-রাউলদের রিয়ালে ১০ নম্বর জার্সিটা তার হাতেই তুলে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু রবিনহো নিজের হাতেই ক্যারিয়ারটা ধ্বংস করেছেন।

২০১৩ সালে ইতালির এক নৈশক্লাবে আলবেনিয়ান এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে রবিনহোর বিরুদ্ধে। ২০১৭ সালে সেই মামলার রায়ে তার ৯ বছরের সাজা হয়। ইতালিতে গেলেই তাকে এ সাজা ভোগ করতে হবে।

এ বিষয়টির কারণেই সান্তোসে ফেরার পর থেকেই ক্লাবের সমর্থকরা তার বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পরে স্পন্সররাও সরে দাঁড়ানোর হুমকি দিলে চুক্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় সান্তোস।

শুক্রবার টুইটারে এক বিবৃতি প্রকাশ করে চুক্তি বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে সান্তোস জানায়, পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে, যাতে রবিনহো মামলা সংক্রান্ত ঝামেলা মেটানোর জন্য সময় বের করতে পারেন।

চুক্তি বাতিলের পর ইনস্টাগ্রাম পোস্টে রবিনহো লিখেছেন- আমি যদি কারও ঝামেলার কারণ হয়ে থাকি, তাহলে আমার চলে যাওয়াই ভালো। এখন আমি ব্যক্তিগত ব্যাপারে মনোযোগ দেব। সান্তোসের সমর্থক এবং যারা আমাকে পছন্দ করেন, তাদের জানাতে চাই- আমি যে নির্দোষ, তা প্রমাণ করে ছাড়ব।

‘কারও ঝামেলার কারণ হয়ে থাকলে আমার চলে যাওয়াই ভালো'

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৭ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

এক সময় রিয়াল মাদ্রিদ, এসি মিলান, ম্যানচেস্টার সিটিতে খেলা রবিনহোকে বলা হতো ব্রাজিলের 'নতুন পেলে'। জিদান-বেকহাম-রাউলদের রিয়ালে ১০ নম্বর জার্সিটা তার হাতেই তুলে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু রবিনহো নিজের হাতেই ক্যারিয়ারটা ধ্বংস করেছেন।

২০১৩ সালে ইতালির এক নৈশক্লাবে আলবেনিয়ান এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে রবিনহোর বিরুদ্ধে। ২০১৭ সালে সেই মামলার রায়ে তার ৯ বছরের সাজা হয়। ইতালিতে গেলেই তাকে এ সাজা ভোগ করতে হবে।

এ বিষয়টির কারণেই সান্তোসে ফেরার পর থেকেই ক্লাবের সমর্থকরা তার বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পরে স্পন্সররাও সরে দাঁড়ানোর হুমকি দিলে চুক্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় সান্তোস।

শুক্রবার টুইটারে এক বিবৃতি প্রকাশ করে চুক্তি বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে সান্তোস জানায়, পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে, যাতে রবিনহো মামলা সংক্রান্ত ঝামেলা মেটানোর জন্য সময় বের করতে পারেন।

চুক্তি বাতিলের পর ইনস্টাগ্রাম পোস্টে রবিনহো লিখেছেন- আমি যদি কারও ঝামেলার কারণ হয়ে থাকি, তাহলে আমার চলে যাওয়াই ভালো। এখন আমি ব্যক্তিগত ব্যাপারে মনোযোগ দেব। সান্তোসের সমর্থক এবং যারা আমাকে পছন্দ করেন, তাদের জানাতে চাই- আমি যে নির্দোষ, তা প্রমাণ করে ছাড়ব।