ধোনির ইতিহাস রচনার দিনে হারল চেন্নাই (ভিডিও)
jugantor
ধোনির ইতিহাস রচনার দিনে হারল চেন্নাই (ভিডিও)

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৫৮:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সোমবার রাতে আবুধাবির শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়ামে ২০০তম আইপিএল ম্যাচ খেলার ইতিহাস গড়লেন চেন্নাই সুপার কিংস মহেন্দ্র সিং ধোনি। যা এখন পর্যন্ত আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক ম্যাচ খেলার রেকর্ড।

আর অধিনায়কের এই ইতিহাস গড়ার দিনেই ধরাশায়ী হলুদ জার্সির দল। গত কয়েক ম্যাচের মতো এবারও সেই একই দুর্বলতা প্রকাশ পেয়েছে। এবারও ব্যাটসম্যানদের ধীরগতির ব্যাটিংয়ের কারণে রাজস্থান রয়্যালসের কাছে হেরে গেছে চেন্নাই। মাত্র ১২৬রানের টার্গেট দিতে পেরেছিল তারা। চার-ছক্কার আধিক্যের এই খেলায় এতো কম টার্গেট যে কোনো দলের জয়ের জন্য যথেষ্ট নয় কখনোই।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। শুরু থেকেই ধুঁকতে থাকে দলটি। ওপেনার ফাফ ডু প্লেসিস ৯ বলে ১০ রান করে জফরা আর্চারের বলে আউট হন। ক্রিজে নেমেই ২ বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ঝড়ো ইনিংসের আভাস দেন অসি তারকা শেন ওয়াটসন।
কিন্তু পরের বলেই সাজঘরের পথে হাঁটতে হয় তাকে। কার্তিক ত্যাগির বলে আউটের আগে ওয়াটসনের ব্যট থেকে আসে ৩ বলে ৮ রান।

ওয়াটসনের পর উইকেটে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি আম্বাতি রাইডুও। প্রথম থেকেই ব্যাটে-বলে হচ্ছিল না তার। ১৯ বল খেলে ১৩ রান করে তিওয়াতিয়ার বলে আউট হন তিনি। অপরপ্রান্ত ধরে থাকা স্যাম কারানও সতীর্থদের পথ অনুসরণ করেন। তাকে আউট করেন শ্রেয়াস গোপাল। ২৫ বলে ২২ করে ক্যারান আউট হলে স্কোরবোর্ডে তখন মাত্র ৫৬ রানে ৪ উইকেট চেন্নাইয়ের।

দলের এমন পরিস্থিতিতে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা। তবে উইকেট হারানোর ভয়ে ওয়ানডে মেজাজে ব্যাটিং করতে থাকে এই দুটি। ৪৬ বলে তাদের ৫১ রানের জুটি টি-টোয়েন্টির সঙ্গে মানানসই ছিল না। ১৮তম ওভারে রানআউট হন ধোনি। ২৮ বলে ২৮ করেন তিনি।

অপরপ্রান্তে থাকা জাদেজা যোগ করতে পারেন মাত্র অপরাজিত ৩৫ রান ।

কেদর যাদবের ৭ বল খেলে মাত্র ৪ রান করলে রাজস্থানকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে মাত্র ১২৬ রানের টার্গেট ছুড়ে দিতে পারে চেন্নাই।

এমন লো স্কোর টার্গেট ছুঁতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায় রাজস্থান। ২৮ রানেই ৩ উইকেট হারায় স্মিথের দল। যে কারণে উইকেট বাঁচিয়ে ধীরগতির ব্যাটিং দেখা যায় রাজস্থান শিবিরেও। বেন স্টোকস ১১ বলে ১৯ রান, রবিন উথাপ্পা ৯ বলে ৪ রান করে আউট হন।

দলেল নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান সঞ্জু স্যামসমকে শুন্য রানে ফেরান দীপক চাহার।

এরপর আর উইকেটের দেখা পায়নি সিএসকের বোলাররা। জস বাটলার ও অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের জুটি অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন।

দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন বাটলার। ৪৮ বলে ৭ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কার মারে অপরাজিত ৭০ রান করেন তিনি। এদিকে বাটলারকে সঙ্গ দেয়া স্মিথ ৩৪ বলে ২৬ রান করেন।

এ জুটি ১৭তম ওভার চলাকালীন ১২৫ রানের টার্গেট ছুয়ে ফেলেন। ফলাফল চেন্নাইকে ৭ উইকেটে হারায় রাজস্থান রয়্যালস।

এই জয়ে ফলে ১০ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফের দৌড়ে টিকে রইল স্মিথ অ্যান্ড কোং। আর এই ম্যাচ হারায় প্লে-অফের আশা প্রায় শেষ হয়ে গেল ধোনিবাহিনীর। ১০ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৬। তালিকার একেবারে তলানীতে অবস্থান করছে তারা।

ম্যাচ হাইলাইটস দেখুন -


ধোনির ইতিহাস রচনার দিনে হারল চেন্নাই (ভিডিও)

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২০ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সোমবার রাতে আবুধাবির শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়ামে ২০০তম আইপিএল ম্যাচ খেলার ইতিহাস গড়লেন চেন্নাই সুপার কিংস মহেন্দ্র সিং ধোনি। যা এখন পর্যন্ত আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক ম্যাচ খেলার রেকর্ড।

আর অধিনায়কের এই ইতিহাস গড়ার দিনেই ধরাশায়ী হলুদ জার্সির দল। গত কয়েক ম্যাচের মতো এবারও সেই একই দুর্বলতা প্রকাশ পেয়েছে। এবারও ব্যাটসম্যানদের ধীরগতির ব্যাটিংয়ের কারণে রাজস্থান রয়্যালসের কাছে হেরে গেছে চেন্নাই। মাত্র ১২৬ রানের টার্গেট দিতে পেরেছিল তারা। চার-ছক্কার আধিক্যের এই খেলায় এতো কম টার্গেট যে কোনো দলের জয়ের জন্য যথেষ্ট নয় কখনোই।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। শুরু থেকেই ধুঁকতে থাকে দলটি। ওপেনার ফাফ ডু প্লেসিস ৯ বলে ১০ রান করে জফরা আর্চারের বলে আউট হন। ক্রিজে নেমেই ২ বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ঝড়ো ইনিংসের আভাস দেন অসি তারকা শেন ওয়াটসন।
কিন্তু পরের বলেই  সাজঘরের পথে হাঁটতে হয় তাকে। কার্তিক ত্যাগির বলে আউটের আগে ওয়াটসনের ব্যট থেকে আসে ৩ বলে ৮ রান।

ওয়াটসনের পর উইকেটে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি আম্বাতি রাইডুও। প্রথম থেকেই ব্যাটে-বলে হচ্ছিল না তার। ১৯ বল খেলে ১৩ রান করে তিওয়াতিয়ার বলে আউট হন তিনি। অপরপ্রান্ত ধরে থাকা স্যাম কারানও সতীর্থদের পথ অনুসরণ করেন। তাকে আউট করেন শ্রেয়াস গোপাল। ২৫ বলে ২২ করে ক্যারান আউট হলে স্কোরবোর্ডে তখন মাত্র ৫৬ রানে ৪ উইকেট চেন্নাইয়ের।

দলের এমন পরিস্থিতিতে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা। তবে উইকেট হারানোর ভয়ে ওয়ানডে মেজাজে ব্যাটিং করতে থাকে এই দুটি। ৪৬ বলে তাদের ৫১ রানের জুটি টি-টোয়েন্টির সঙ্গে মানানসই ছিল না। ১৮তম ওভারে রানআউট হন ধোনি। ২৮ বলে ২৮ করেন তিনি।

অপরপ্রান্তে থাকা জাদেজা যোগ করতে পারেন মাত্র অপরাজিত ৩৫ রান ।  

কেদর যাদবের ৭ বল খেলে মাত্র ৪ রান করলে রাজস্থানকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে মাত্র ১২৬ রানের টার্গেট ছুড়ে দিতে পারে চেন্নাই।

এমন লো স্কোর টার্গেট ছুঁতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায় রাজস্থান। ২৮ রানেই ৩ উইকেট হারায় স্মিথের দল। যে কারণে উইকেট বাঁচিয়ে ধীরগতির ব্যাটিং দেখা যায় রাজস্থান শিবিরেও। বেন স্টোকস ১১ বলে ১৯ রান, রবিন উথাপ্পা ৯ বলে ৪ রান করে আউট হন। 

দলেল নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান সঞ্জু স্যামসমকে শুন্য রানে ফেরান দীপক চাহার। 

এরপর আর উইকেটের দেখা পায়নি সিএসকের বোলাররা। জস বাটলার ও অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের জুটি অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন।

দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন বাটলার। ৪৮ বলে ৭ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কার মারে অপরাজিত ৭০ রান করেন তিনি। এদিকে বাটলারকে সঙ্গ দেয়া স্মিথ ৩৪ বলে ২৬ রান করেন।

এ জুটি ১৭তম ওভার চলাকালীন ১২৫ রানের টার্গেট ছুয়ে ফেলেন। ফলাফল চেন্নাইকে ৭ উইকেটে হারায় রাজস্থান রয়্যালস।

এই জয়ে ফলে ১০ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে প্লে-অফের দৌড়ে টিকে রইল স্মিথ অ্যান্ড কোং। আর এই ম্যাচ হারায় প্লে-অফের আশা প্রায় শেষ হয়ে গেল ধোনিবাহিনীর। ১০ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৬। তালিকার একেবারে তলানীতে অবস্থান করছে তারা। 

ম্যাচ হাইলাইটস দেখুন - 


 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২০