জানতাম, মেসির সঙ্গেও এমন হবে: ম্যারাডোনা
jugantor
জানতাম, মেসির সঙ্গেও এমন হবে: ম্যারাডোনা

  স্পোর্টস ডেস্ক  

৩১ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪২:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

চলতি বছরের আগস্ট থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ফুটবলবিশ্বে আলোচিত ছিল বার্সেলোনা-মেসি দ্বৈরথের খবর।

মেসি বার্সা ছাড়ছেন কি ছাড়ছেন না - এ নিয়ে জল কম ঘোলা হয়নি। দীর্ঘ নাটকীয়তা ও জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বার্সাতেই থেকে গেছেন মেসি। সেসময় নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান ও জোসেফ বার্তোমেউয়ের সঙ্গে মেসির সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকে।

বিশ্বজুড়ে গণমাধ্যমে এসেছে মেসির সঙ্গে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষের রেষরেষির সব খবরই। এক মৌসুমের জন্য বার্সার জার্সি গায়ে রাখলেও মেসি যে ক্লাবের ওপর বেশ অসন্তুষ্ট নন, তা বোঝা গেছে স্পষ্ট।

এবার সেই ঘটনাকে ফের সামনে এনে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনা জানালেন, তিনি আগেই জানতেন যে, মেসির সঙ্গে যে এমন বাজে আচরণ করবে তার ক্লাব। কারণ তার সঙ্গেও এমনটাই ঘটেছিল।

শুক্রবার নিজের ৬০তম জন্মদিনে আর্জেন্টাইন পত্রিকা ক্লারিনে দেয়া এক সাক্ষাতকারে মেসি-বার্সা দ্বৈরথ নিয়ে কথা বলেছেন ম্যারাডোনা।

তিনি বলেন, ‘আমি জানতাম, এটি বাজেভাবে শেষ হতে চলেছে। আমি ভেবেছিলাম লিও চলে যাবে। আমার ক্ষেত্রেও এমনটা হয়েছিল। বার্সেলোনা কোনো সহজ ক্লাব নয়। মেসি অনেক বছর ধরে সেখানে আছে। কিন্তু তার সঙ্গে বার্সা কর্তৃপক্ষ সম্মানসূচক আচরণ দেখায়নি, যতটা তার প্রাপ্য। বার্সাকে সব কিছু দিয়েছে মেসি। তাদের সাফল্যের চূড়ায় নিয়ে গেছে। আর সেই মেসি ক্লাব ছাড়তে চাইলে তারা তাকে না বলে দিল।’

এ সময় ক্লাব নাপোলিতে থাকাকালীন নিজের অভিজ্ঞতার স্মৃতি রোমন্থন করেন ম্যারাডোনা।

তিনি বলেন, ‘ আমাকে দ্বিগুণ বেতন দিয়ে দলে ভেড়াতে চেয়েছিল মার্শেই। তখন আমি নাপোলিতে। ক্লাব প্রেসিডেন্টকে বললাম, আমাকে যেতে দাও। তিনি আমাকে আশ্বস্ত করে বললেন, আমরা যদি উয়েফা কাপ জিতি তাহলে তিনি আমাকে যেতে দেবেন। আমরা যেদিন জিতলাম, তার অফিসে গিয়ে তাকে বললাম, আমি চলে যাচ্ছি, কিন্তু তিনি কথা রাখলেন না। আমাকে যেতে দেননি।’

নিজের সেই অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে স্বদেশি তারকা মেসির পক্ষ নিয়ে যে বার্সেলোনাকে একহাত নিলেন ম্যারাডোনা। তা বুঝতে বাকি নেই কারও।

তথ্যসূত্র: ফুটবল ইসপানা

জানতাম, মেসির সঙ্গেও এমন হবে: ম্যারাডোনা

 স্পোর্টস ডেস্ক 
৩১ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চলতি বছরের আগস্ট থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ফুটবলবিশ্বে আলোচিত ছিল বার্সেলোনা-মেসি দ্বৈরথের খবর।

মেসি বার্সা ছাড়ছেন কি ছাড়ছেন না - এ নিয়ে জল কম ঘোলা হয়নি।  দীর্ঘ নাটকীয়তা ও জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বার্সাতেই থেকে গেছেন মেসি।  সেসময় নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান ও জোসেফ বার্তোমেউয়ের সঙ্গে মেসির সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকে। 

বিশ্বজুড়ে গণমাধ্যমে এসেছে মেসির সঙ্গে বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষের রেষরেষির সব খবরই।  এক মৌসুমের জন্য বার্সার জার্সি গায়ে রাখলেও মেসি যে ক্লাবের ওপর বেশ অসন্তুষ্ট নন, তা বোঝা গেছে স্পষ্ট।  

এবার সেই ঘটনাকে ফের সামনে এনে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনা জানালেন, তিনি আগেই জানতেন যে, মেসির সঙ্গে যে এমন বাজে আচরণ করবে তার ক্লাব। কারণ তার সঙ্গেও এমনটাই ঘটেছিল।

শুক্রবার নিজের ৬০তম জন্মদিনে আর্জেন্টাইন পত্রিকা ক্লারিনে দেয়া এক সাক্ষাতকারে মেসি-বার্সা দ্বৈরথ নিয়ে কথা বলেছেন ম্যারাডোনা।

তিনি বলেন, ‘আমি জানতাম, এটি বাজেভাবে শেষ হতে চলেছে। আমি ভেবেছিলাম লিও চলে যাবে। আমার ক্ষেত্রেও এমনটা হয়েছিল। বার্সেলোনা কোনো সহজ ক্লাব নয়। মেসি অনেক বছর ধরে সেখানে আছে। কিন্তু তার সঙ্গে বার্সা কর্তৃপক্ষ সম্মানসূচক আচরণ দেখায়নি, যতটা তার প্রাপ্য।  বার্সাকে সব কিছু দিয়েছে মেসি।  তাদের সাফল্যের চূড়ায় নিয়ে গেছে। আর সেই মেসি ক্লাব ছাড়তে চাইলে তারা তাকে না বলে দিল।’

এ সময় ক্লাব নাপোলিতে থাকাকালীন নিজের অভিজ্ঞতার স্মৃতি রোমন্থন করেন ম্যারাডোনা।  

তিনি বলেন, ‘ আমাকে দ্বিগুণ বেতন দিয়ে দলে ভেড়াতে চেয়েছিল মার্শেই।  তখন আমি নাপোলিতে। ক্লাব প্রেসিডেন্টকে বললাম, আমাকে যেতে দাও। তিনি আমাকে আশ্বস্ত করে বললেন, আমরা যদি উয়েফা কাপ জিতি তাহলে তিনি আমাকে যেতে দেবেন। আমরা যেদিন জিতলাম, তার অফিসে গিয়ে তাকে বললাম, আমি চলে যাচ্ছি, কিন্তু তিনি কথা রাখলেন না। আমাকে যেতে দেননি।’

নিজের সেই অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে স্বদেশি তারকা মেসির পক্ষ নিয়ে যে বার্সেলোনাকে একহাত নিলেন ম্যারাডোনা। তা বুঝতে বাকি নেই কারও।

তথ্যসূত্র: ফুটবল ইসপানা