৩৫ বল বাকি থাকতেই টার্গেটে পৌঁছে গেল হায়দরাবাদ (ভিডিও)
jugantor
৩৫ বল বাকি থাকতেই টার্গেটে পৌঁছে গেল হায়দরাবাদ (ভিডিও)

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০১ নভেম্বর ২০২০, ০০:১০:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

জিতলেই প্লে-অফ নিশ্চিত বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর। অন্যদিকে হারলে বিদায় নিশ্চিত সানরাইজার্স হায়দরাবাদের। তবে বড় ব্যবধানে জিতলে প্লে অফের আশা থাকবে ডেভিড ওয়ার্নারদের।

এমন কঠিন সমীকরণের ম্যাচে জ্বলে উঠল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে মাত্র ১২০ রানে আটকে ফেল রয়াল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর দুর্ধর্ষ ব্যাটিং লাইনআপ।

শুক্রবার রাতে শারজায় টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চাপে পড়ে ব্যাঙ্গালুরু। নির্ধারিত ২০ ওভারে ১২০ রান করে থামে ব্যাঙ্গালুরুর ইনিংস। আর সেই রান ৩৫ বল বাকি থাকতেই টপকে যায় হায়দরাবাদ।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ২৮ রানের মধ্যে দলের টপ অর্ডারের ৩ ব্যাটসম্যানকে হারায় ব্যাঙ্গালুরু। ব্যাঙ্গালুরুর সর্বনাশটা করেন সন্দ্বীপ শর্মা।

দেবদূত পাডিক্কেলকে মাত্র ৫ রানে আর বিরাট কোহলি মাত্র ৭ রানে ফেরান তিনি। আর শাহবাজ নাদিম নেন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটি।

চমৎকার খেলতে থাকা প্রোটিয়া সুপারস্টার এবি ডি ভিলিয়ার্সকে ২৪ রানে সাজঘরে ফেরান। হায়দরাবাদের বোলারদের বিপক্ষে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন ওয়াশিংটন সুন্দর ও গুরুকিরাত সিং। এ জুটি উইকেট বাঁচিয়ে খেলে দলীয় সংগ্রহ কোনোমতে ১০০ পার করেন।

শেষদিকে মারমুখী হলে ওয়াশিংটন ১৮ বলে ২১ রান করে ব্যর্থ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তিনি আউট হলে এর পরের দুই ব্যাটসম্যান শুধু আসছেন আর গেছেন। ক্রিস মরিসকে ৩ রানে আউট করেন ক্যারিবীয় তারকা জেসন হোল্ডার। ইসুরু উদানাকে শুন্য রানে ফেরান হোল্ডারই।

অপরপ্রান্তে গুরকিরাত সিং ২৪ বলে ১৫ রানে অপরাজিত থাকলে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২১ রানের টার্গেট দিতে পারে আরসিবি।

সন্দীপ শর্মা ৪ ওভার বল করে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন। ২৭ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন হোল্ডার। নটরাজন, রশিদ খান ও নাদিম একটি করে উইকেট পান।

কোহলিদের দেয়া এই সহজ টার্গেট পূরণে খেলতে নেমে শুরুতেই অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের উইকেট হারায় হায়দরাবাদ।

৮ রান করে ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে আউট হন ওয়ার্নার। এরপর মনিশ পান্ডে ও ঋদ্ধিমান সাহা জুটি খেলাকে অনেক দূর এগিয়ে নেন। মনিশ পান্ডেকে আউট কর জুটি ভাঙ্গেন যুজবেন্দ্র চাহাল। আউট হওয়ার আগে ১৯ বলে ২৬ রান করেন মনিশ। মনিশ যখন আউট হন তখন হায়দরাবাদের সংগ্রহ ৬০ রান। এরপর ৩২ বলে ৩৯ রান করে চাহালের বলে আউট হয়ে যান ঋদ্ধিমান সাহাও।

উইকেটে এসে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি কিউই ব্যাটসম্যান কেন উইলিয়ামসও। ৮ রানে তাকে ফেরান উদানা। তবে তাতে সমস্যা হতে দেননি জেসন হোল্ডার।

১০ বলে ২৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে জয়ের বন্দরে যখন পৌঁছে দেন হোল্ডার তখনও ৫ ওভার ৯ বল বাকি।

৫ উইকেটে জয় পায় সানরাইজ হায়দরাবাদ।

ম্যাচ হাইলাইটস দেখুন -

৩৫ বল বাকি থাকতেই টার্গেটে পৌঁছে গেল হায়দরাবাদ (ভিডিও)

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০১ নভেম্বর ২০২০, ১২:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জিতলেই প্লে-অফ নিশ্চিত বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর। অন্যদিকে হারলে বিদায় নিশ্চিত সানরাইজার্স হায়দরাবাদের। তবে বড় ব্যবধানে জিতলে প্লে অফের আশা থাকবে ডেভিড ওয়ার্নারদের। 

এমন কঠিন সমীকরণের ম্যাচে জ্বলে উঠল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে মাত্র ১২০ রানে আটকে ফেল রয়াল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর দুর্ধর্ষ ব্যাটিং লাইনআপ। 

শুক্রবার রাতে শারজায় টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই চাপে পড়ে ব্যাঙ্গালুরু। নির্ধারিত ২০ ওভারে ১২০ রান করে থামে ব্যাঙ্গালুরুর ইনিংস। আর সেই রান ৩৫ বল বাকি থাকতেই টপকে যায় হায়দরাবাদ।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ২৮ রানের মধ্যে দলের টপ অর্ডারের ৩ ব্যাটসম্যানকে হারায় ব্যাঙ্গালুরু। ব্যাঙ্গালুরুর সর্বনাশটা করেন সন্দ্বীপ শর্মা। 

দেবদূত পাডিক্কেলকে মাত্র ৫ রানে আর বিরাট কোহলি মাত্র ৭ রানে ফেরান তিনি। আর শাহবাজ নাদিম নেন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটি। 

চমৎকার খেলতে থাকা প্রোটিয়া সুপারস্টার এবি ডি ভিলিয়ার্সকে ২৪ রানে সাজঘরে ফেরান। হায়দরাবাদের বোলারদের বিপক্ষে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন ওয়াশিংটন সুন্দর ও গুরুকিরাত সিং। এ জুটি উইকেট বাঁচিয়ে খেলে দলীয় সংগ্রহ কোনোমতে ১০০ পার করেন।

শেষদিকে মারমুখী হলে ওয়াশিংটন ১৮ বলে ২১ রান করে ব্যর্থ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তিনি আউট হলে এর পরের দুই ব্যাটসম্যান শুধু আসছেন আর গেছেন। ক্রিস মরিসকে ৩ রানে আউট করেন ক্যারিবীয় তারকা জেসন হোল্ডার। ইসুরু উদানাকে শুন্য রানে ফেরান হোল্ডারই।

অপরপ্রান্তে গুরকিরাত সিং ২৪ বলে ১৫ রানে অপরাজিত থাকলে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২১ রানের টার্গেট দিতে পারে আরসিবি।

সন্দীপ শর্মা ৪ ওভার বল করে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন। ২৭ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন হোল্ডার। নটরাজন, রশিদ খান ও নাদিম একটি করে উইকেট পান।

কোহলিদের দেয়া এই সহজ টার্গেট পূরণে খেলতে নেমে শুরুতেই অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের উইকেট হারায় হায়দরাবাদ।

৮ রান করে ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে আউট হন ওয়ার্নার। এরপর মনিশ পান্ডে ও ঋদ্ধিমান সাহা জুটি খেলাকে অনেক দূর এগিয়ে নেন। মনিশ পান্ডেকে আউট কর জুটি ভাঙ্গেন যুজবেন্দ্র চাহাল। আউট হওয়ার আগে ১৯ বলে ২৬ রান করেন মনিশ। মনিশ যখন আউট হন তখন হায়দরাবাদের সংগ্রহ ৬০ রান। এরপর ৩২ বলে ৩৯ রান করে চাহালের বলে আউট হয়ে যান ঋদ্ধিমান সাহাও।

উইকেটে এসে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি কিউই ব্যাটসম্যান কেন উইলিয়ামসও। ৮ রানে তাকে ফেরান উদানা। তবে তাতে সমস্যা হতে দেননি জেসন হোল্ডার।

১০ বলে ২৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে জয়ের বন্দরে যখন পৌঁছে দেন হোল্ডার তখনও ৫ ওভার ৯ বল বাকি।

৫ উইকেটে জয় পায় সানরাইজ হায়দরাবাদ।

ম্যাচ হাইলাইটস দেখুন - 
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২০