অল্পের জন্য যে রেকর্ড হয়নি রাবাদার
jugantor
অল্পের জন্য যে রেকর্ড হয়নি রাবাদার

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১১ নভেম্বর ২০২০, ০৫:১০:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

দল শিরোপা না পেলেও ‘পার্পল ক্যাপ’ নিজের দখলেই রেখেছেন দিল্লি ক্যাপিট্যালসের দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার কাগিসো রাবাদা।

টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি তিনি। মঙ্গলবারের ফাইনালে ৩ ওভারে ৩২ রান খরচায় একটি উইকেট নেন রাবাদা।

রাবাদার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতীয় পেসার জসপ্রিত বুমরাহ। যিনি ১৫ ইনিংস খেলে ২৭ উইকেট নিয়েছেন।

আর বুমরার পিছু পিছু ছুটে আসছিলেন তারই সতীর্থ অস্ট্রেলিয়ার গতি তারকা ট্রেন্ট বোল্ট। যিনি বুমরার সমান ইনিংস খেলে ২৫ উইকেট সংগ্রহ করেছেন।

তবে তারা দুজনের কেউ রাবাদাকে ছাপিয়ে যেতে পারেননি। রাবাদা ১৭ ইনিংস খেলে ঝুলিত জমা করেছেন ৩০ উইকেট। আইপিএল ১৩তম আসরের ‘পার্পল ক্যাপ’ জিতে নিলেন তিনি।

সবাইকে ছাপিয়ে গেলেও অল্পের জন্য ইতিহাস গড়তে পারেননি রাবাদা। মাত্র ২ উইকেটের জন্য স্বদেশি অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভোর রেকর্ডে ভাগ বসাতে পারেননি।

আইপিএল ইতিহাসে এক আসরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের রেকর্ড ব্রাভোর। তিনি ২০১৩ সালের আসরে ৩২টি উইকেট পেয়েছিলেন। আর মাত্র ২ উইকেট পেলেই এ রেকর্ডের পাশে নিজের নাম লেখাতে পারতেন রাবাদা। আর ৩টি পেলে ব্রাভোর রেকর্ড মুছে দিয়ে এককভাবেই আইপিএলের ইতিহাসে নিজের নাম লেখাতে পারতেন।

তবে সেটি না পারলেও ব্রাভোর ঠিক নিচেই অবস্থান করছেন রাবাদা। আইপিএলের ইতিহাসে এখন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি তিনি। তার পরেই আছেন শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্কা (২৮ উইকেট)।

একনজরে আইপিএলের প্রতি আসরে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি -

২০০৮ - সোহেল তানভীর (১১ ইনিংসে ২২ উইকেট)
২০০৯ - আরপি সিং (১৬ ইনিংসে ২৩ উইকেট)
২০১০ - প্রজ্ঞান ওঝা (১৬ ইনিংসে ২১ উইকেট)
২০১১ - লাসিথ মালিঙ্গা (১৬ ইনিংসে ২৮ উইকেট)
২০১২ - মরনে মরকেল (১৬ ইনিংসে ২৫ উইকেট)
২০১৩ - ডোয়াইন ব্রাভো (১৮ ইনিংসে ৩২ উইকেট)
২০১৪ - মোহিত শর্মা (১৬ ইনিংসে ২৩ উইকেট)
২০১৫ - ডোয়াইন ব্রাভো (১৬ ইনিংসে ২৬ উইকেট)
২০১৬ - ভুবনেশ্বর কুমার (১৭ ইনিংসে ২৩ উইকেট)
২০১৭ - ভুবনেশ্বর কুমার (১৪ ইনিংসে ২৬ উইকেট)
২০১৮ - অ্যান্ড্রু টাই (১৪ ইনিংসে ২৪ উইকেট)
২০১৯ - ইমরান তাহির (১৭ ইনিংসে ২৬ উইকেট)
২০২০ - কাগিসো রাবাদা (১৭ ইনিংসে ৩০ উইকেট)

তথ্যসূত্র: ইএসপিএন ক্রিকইনফো

অল্পের জন্য যে রেকর্ড হয়নি রাবাদার

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১১ নভেম্বর ২০২০, ০৫:১০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দল শিরোপা না পেলেও ‘পার্পল ক্যাপ’ নিজের দখলেই রেখেছেন দিল্লি ক্যাপিট্যালসের দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার কাগিসো রাবাদা। 

টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি তিনি। মঙ্গলবারের ফাইনালে ৩ ওভারে ৩২ রান খরচায় একটি উইকেট নেন রাবাদা।

রাবাদার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতীয় পেসার জসপ্রিত বুমরাহ। যিনি ১৫ ইনিংস খেলে ২৭ উইকেট নিয়েছেন। 

আর বুমরার পিছু পিছু ছুটে আসছিলেন তারই সতীর্থ অস্ট্রেলিয়ার গতি তারকা ট্রেন্ট বোল্ট। যিনি বুমরার সমান ইনিংস খেলে ২৫ উইকেট সংগ্রহ করেছেন। 

তবে তারা দুজনের কেউ রাবাদাকে ছাপিয়ে যেতে পারেননি। রাবাদা ১৭ ইনিংস খেলে ঝুলিত জমা করেছেন ৩০ উইকেট। আইপিএল ১৩তম আসরের ‘পার্পল ক্যাপ’ জিতে নিলেন তিনি। 

সবাইকে ছাপিয়ে গেলেও অল্পের জন্য ইতিহাস গড়তে পারেননি রাবাদা। মাত্র ২ উইকেটের জন্য স্বদেশি অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভোর রেকর্ডে ভাগ বসাতে পারেননি। 

আইপিএল ইতিহাসে এক আসরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের রেকর্ড ব্রাভোর। তিনি ২০১৩ সালের আসরে ৩২টি উইকেট পেয়েছিলেন। আর মাত্র ২ উইকেট পেলেই এ রেকর্ডের পাশে নিজের নাম লেখাতে পারতেন রাবাদা। আর ৩টি পেলে ব্রাভোর রেকর্ড মুছে দিয়ে এককভাবেই আইপিএলের ইতিহাসে নিজের নাম লেখাতে পারতেন।

তবে সেটি না পারলেও ব্রাভোর ঠিক নিচেই অবস্থান করছেন রাবাদা। আইপিএলের ইতিহাসে এখন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি তিনি। তার পরেই আছেন শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্কা (২৮ উইকেট)।

একনজরে আইপিএলের প্রতি আসরে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি - 

২০০৮ - সোহেল তানভীর (১১ ইনিংসে ২২ উইকেট)
২০০৯ - আরপি সিং (১৬ ইনিংসে ২৩ উইকেট)
২০১০ - প্রজ্ঞান ওঝা (১৬ ইনিংসে ২১ উইকেট)
২০১১ - লাসিথ মালিঙ্গা (১৬ ইনিংসে ২৮ উইকেট)
২০১২ - মরনে মরকেল (১৬ ইনিংসে ২৫ উইকেট)
২০১৩ - ডোয়াইন ব্রাভো (১৮ ইনিংসে ৩২ উইকেট)
২০১৪ - মোহিত শর্মা (১৬ ইনিংসে ২৩ উইকেট)
২০১৫ - ডোয়াইন ব্রাভো (১৬ ইনিংসে ২৬ উইকেট)
২০১৬ - ভুবনেশ্বর কুমার (১৭ ইনিংসে ২৩ উইকেট)
২০১৭ - ভুবনেশ্বর কুমার (১৪ ইনিংসে ২৬ উইকেট)
২০১৮ - অ্যান্ড্রু টাই (১৪ ইনিংসে ২৪ উইকেট)
২০১৯ - ইমরান তাহির (১৭ ইনিংসে ২৬ উইকেট)
২০২০ - কাগিসো রাবাদা (১৭ ইনিংসে ৩০ উইকেট)

তথ্যসূত্র: ইএসপিএন ক্রিকইনফো

 

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২০