একাই লড়াই করলেন মাহমুদউল্লাহ
jugantor
একাই লড়াই করলেন মাহমুদউল্লাহ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

৩০ নভেম্বর ২০২০, ২০:২৯:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের একার লড়াইয়ে শেষপর্যন্ত ১৪৬ রান করল খুলনা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন খুলনার এই অধিনায়ক। তবে ব্যাটিং তাণ্ডব শুরু করেও বেশিদূর যেতে পারেননি আরিফুল হক। ১১ বলে তিন বাউন্ডারিতে ১৯ রানে ফেরেন তিনি। হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে মুশফিকুর রহিমের ঢাকাকে ১৪৭ রান করতে হবে।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকার বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ২.২ ওভারে ১৩ রানেই আউট খুলনার ওপেনার এনামুল হক বিজয়। এরপর ছয় রানের ব্যবধানে ফেরেন ব্যাটিংয়ে প্রমোশন নেয়া সাকিব আল হাসান। খুলনার এই ওপেনারকে ১১ রানে বোল্ড করেন রুবেল হোসেন। তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে তরুণ পেসার শফিকুল ইসলামের বলে বোল্ড জহুরুল ইসলাম অমি।

৩০ রানে প্রথমসারির ৩ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরান ইমরুল কায়েস ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। চতুর্থ উইকেটে তারা ৫৬ রানের জুটি গড়েন। ২৭ বলে ২৯ রান করে ফেরেন ইমরুল কায়েস।

এরপর আরিফুল হককে সঙ্গে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে ফের ৩৫ রানের জুটি গড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মাত্র ১১ বলে তিনটি বাউন্ডারির সাহায্যে ১৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন আরিফুল হক। ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হন ৪৭ বলে তিন চারে ৪৫ রান করা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৫ বলে এক চার ও এক ছক্কায় ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন শুভাগত হোম চৌধুরী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
খুলনা: ২০ ওভারে ১৪৬/৮ (মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৪৫, ইমরুল কায়েস ২৯, আরিফুল হক ১৯, শুভাগত হোম চৌধুরী ১৫*, সাকিব আল হাসান১১; রুবেল হোসেন ৩/২৮, শফিকু্ল ইসলাম ২/৩৪)।

একাই লড়াই করলেন মাহমুদউল্লাহ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৮:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের একার লড়াইয়ে শেষপর্যন্ত ১৪৬ রান করল খুলনা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন খুলনার এই অধিনায়ক। তবে ব্যাটিং তাণ্ডব শুরু করেও বেশিদূর যেতে পারেননি আরিফুল হক। ১১ বলে তিন বাউন্ডারিতে ১৯ রানে ফেরেন তিনি। হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে মুশফিকুর রহিমের ঢাকাকে ১৪৭ রান করতে হবে।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢাকার বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ২.২ ওভারে ১৩ রানেই আউট খুলনার ওপেনার এনামুল হক বিজয়। এরপর ছয় রানের ব্যবধানে ফেরেন ব্যাটিংয়ে প্রমোশন নেয়া সাকিব আল হাসান। খুলনার এই ওপেনারকে ১১ রানে বোল্ড করেন রুবেল হোসেন। তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে তরুণ পেসার শফিকুল ইসলামের বলে বোল্ড জহুরুল ইসলাম অমি। 

৩০ রানে প্রথমসারির ৩ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরান ইমরুল কায়েস ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। চতুর্থ উইকেটে তারা ৫৬ রানের জুটি গড়েন। ২৭ বলে ২৯ রান করে ফেরেন ইমরুল কায়েস।  

এরপর আরিফুল হককে সঙ্গে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে ফের ৩৫ রানের জুটি গড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মাত্র ১১ বলে তিনটি বাউন্ডারির সাহায্যে ১৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন আরিফুল হক। ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হন ৪৭ বলে তিন চারে ৪৫ রান করা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৫ বলে এক চার ও এক ছক্কায় ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন শুভাগত হোম চৌধুরী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
খুলনা: ২০ ওভারে ১৪৬/৮ (মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৪৫, ইমরুল কায়েস ২৯, আরিফুল হক ১৯, শুভাগত হোম চৌধুরী ১৫*, সাকিব আল হাসান ১১; রুবেল হোসেন ৩/২৮, শফিকু্ল ইসলাম ২/৩৪)।

 

ঘটনাপ্রবাহ : বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ