তরুণ পেসার হাসানের অভিষেক
jugantor
তরুণ পেসার হাসানের অভিষেক

  ক্রীড়া প্রতিবেদক  

২০ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:১৫:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে আজ বুধবার অভিষেক হয়েছে বোলিং অলরাউন্ডার হাসান মাহমুদের।

বাংলাদেশ টিমের ১৩৪তম ওয়ানডে ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হলো এই পেসারের।

ধারাবাহিকভাবে ভালো বোলিং করায় জাতীয় দলে স্থান হয় তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের। তিন পেসার নিয়ে খেলছে বাংলাদেশ। অন্য দুজন মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।

ঘরোয়া ক্রিকেট ও বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ধারাবাহিক পারফরম করায় জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপেও ভালো বল করেছেন তিনি। লক্ষ্মীপুরের এ পেসার নিয়মিতই বল করতে পারেন ১৪০ কিলোমিটারের আশপাশে, যা গত বিপিএলেও প্রমাণ করেছেন।

অনেক সময় রান দিলেও দারুণ কিছু ডেলিভারিতে নিজের সম্ভাবনার প্রমাণও রেখেছেন। ঢাকা প্লাটুনের হয়ে ১৩ ম্যাচে নিয়েছেন ১০ উইকেট। ৩ জানুয়ারি সিলেটে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে ৩২ রানে ৪ উইকেট নেওয়াই তার সবচেয়ে বড় সাফল্য।

হাসানের বোলিংয়ে কিছু বৈচিত্র্য থাকলেও সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়েছেন গতি দিয়ে। সর্বোচ্চ ঘণ্টায় ১৪২.৪০ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করেছেন এ টুর্নামেন্টে।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানও একাধিকবার তার প্রশংসা করে বলেছেন, ‘হাসান মাহমুদ একজন সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার। সে বেশ জোরে বল করতে পারে।’

তাই গতি ও ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার দিকে তাকিয়েই হাসানকে দলে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাকিব আল হাসান ফিরছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে না খেলা সৌম্য সরকারও ফিরেছেন একাদশে। কোচের দেওয়া আভাস অনুযায়ী ফিরেছেন নাজমুল হোসেন শান্তও। সাকিবের সঙ্গে দ্বিতীয় স্পিনার হিসেবে আছেন মেহেদী হাসান।

বাংলাদেশ টিমে খেলছেন, তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান, হাসান মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

তরুণ পেসার হাসানের অভিষেক

 ক্রীড়া প্রতিবেদক 
২০ জানুয়ারি ২০২১, ০১:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে আজ বুধবার অভিষেক হয়েছে বোলিং অলরাউন্ডার হাসান মাহমুদের।

বাংলাদেশ টিমের ১৩৪তম ওয়ানডে ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হলো এই পেসারের।

ধারাবাহিকভাবে ভালো বোলিং করায় জাতীয় দলে স্থান হয় তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের। তিন পেসার নিয়ে খেলছে বাংলাদেশ। অন্য দুজন মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।

ঘরোয়া ক্রিকেট ও বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ধারাবাহিক পারফরম করায় জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপেও ভালো বল করেছেন তিনি। লক্ষ্মীপুরের এ পেসার নিয়মিতই বল করতে পারেন ১৪০ কিলোমিটারের আশপাশে, যা গত বিপিএলেও প্রমাণ করেছেন।

অনেক সময় রান দিলেও দারুণ কিছু ডেলিভারিতে নিজের সম্ভাবনার প্রমাণও রেখেছেন। ঢাকা প্লাটুনের হয়ে ১৩ ম্যাচে নিয়েছেন ১০ উইকেট। ৩ জানুয়ারি সিলেটে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে ৩২ রানে ৪ উইকেট নেওয়াই তার সবচেয়ে বড় সাফল্য।

হাসানের বোলিংয়ে কিছু বৈচিত্র্য থাকলেও সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়েছেন গতি দিয়ে। সর্বোচ্চ ঘণ্টায় ১৪২.৪০ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করেছেন এ টুর্নামেন্টে।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানও একাধিকবার তার প্রশংসা করে বলেছেন, ‘হাসান মাহমুদ একজন সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার। সে বেশ জোরে বল করতে পারে।’

তাই গতি ও ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার দিকে তাকিয়েই হাসানকে দলে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাকিব আল হাসান ফিরছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে না খেলা সৌম্য সরকারও ফিরেছেন একাদশে। কোচের দেওয়া আভাস অনুযায়ী ফিরেছেন নাজমুল হোসেন শান্তও। সাকিবের সঙ্গে দ্বিতীয় স্পিনার হিসেবে আছেন মেহেদী হাসান।

বাংলাদেশ টিমে খেলছেন, তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, সৌম্য সরকার, মেহেদী হাসান, হাসান মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।