ভ্যাকসিন নেওয়ার ‘অভিনয়ের’ সেই ভিডিও শেয়ার করে বিপাকে হরভজন
jugantor
ভ্যাকসিন নেওয়ার ‘অভিনয়ের’ সেই ভিডিও শেয়ার করে বিপাকে হরভজন

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৩ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:৪৯:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। যেখানে দেখা গেছে, মাস্ক পরিহিত একজন পুরুষ ও একজন নারী করোনা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। কিন্তু খুব খেয়াল করলে বোঝা যায়, তারা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন না, অভিনয় করছেন।

আর সেই ভিডিও নিজের টুইটারে শেয়ার করে বিপাকে পড়েছেন ভারতের সাবেক তারকা স্পিনার হরভজন সিং।

ভিডিওটি শেয়ার করে ভারতীয় নেটিজেনদের রোষানলে পড়েন হরভজন। দিনভর নানা কটাক্ষ, সমালোচনার শেষে অন্য একটি টুইটে ক্ষমা চেয়েছেন এ স্পেশালিস্ট স্পিনার।

নিজের টুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করে হরভজন অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক নেতারা আসলে করোনা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন না। তারা সেই ভ্যাকসিন নেওয়ার নাটক করছেন। আর সেই নাটকের অংশ হিসেবেই ছবি তুলছেন।

হরভজনের শেয়ার করা সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, ওই দুজনে বাহুতে সিরিঞ্জ ধরে দাঁড়িয়ে আছেন নার্স। কিন্তু ওষুধ পুশ করতে দেখা যায়নি তাকে। অথচ দুজনেই ভ্যাকসিন নিয়েছেন বলে ক্যামেরায় ‘ভি সাইন’ দেখিয়ে উঠে পড়েন।

হরভজন ভিডিওটি পোস্টের পর পরই তা ভারতসহ প্রতিবেশী বাংলাদেশের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়ে।

কিন্তু এই পোস্ট নিয়ে পরে বিপদের মুখে পড়েন হরভজন। এমন পরিস্থিতিতে ফের একটি টুইটে ভাজ্জি খ্যাত তারকা লেখেন, আসল ঘটনা যাচাই না করে আমি পোস্ট দিয়েছি। এজন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি। আসলে এটাই সত্যি আমাদের কিছু নেতা এইভাবে ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, ছবি তুলে গেছেন, ওকে ভালো।’

ঘটনাটি প্রসঙ্গে ভারতের সংবাদমাধ্যম নিউজ এইটিন জানিয়েছে, ভাইরাল সেই ভিডিওটি নিয়ে মুখ খুলেছেন তুমাকুরু ডেপুটি কমিশনার রাকেশ কুমার। একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান, ভিডিওর মানুষ দুজন কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রী নন।

পেশায় তারা দুজনেই চিকিৎসক। তাদের দুজনের নাম- ড. রজনী ও ড. নাগেন্দ্রাপ্পা। আর এ দুই চিকিৎসক করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন আগেই। কিন্তু পরে সংবাদ কর্মীদের সাহায্য করতে তাদের কথামতো ছবি তোলেন।

অর্থাৎ ফটো ক্লিক হওয়ার আগেই তারা করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন বলে জানান রাকেশ কুমার।


ভ্যাকসিন নেওয়ার ‘অভিনয়ের’ সেই ভিডিও শেয়ার করে বিপাকে হরভজন

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। যেখানে দেখা গেছে, মাস্ক পরিহিত একজন পুরুষ ও একজন নারী করোনা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন।  কিন্তু খুব খেয়াল করলে বোঝা যায়, তারা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন না, অভিনয় করছেন।  

আর সেই ভিডিও নিজের টুইটারে শেয়ার করে বিপাকে পড়েছেন ভারতের সাবেক তারকা স্পিনার হরভজন সিং।

ভিডিওটি শেয়ার করে ভারতীয় নেটিজেনদের রোষানলে পড়েন হরভজন।  দিনভর নানা কটাক্ষ, সমালোচনার শেষে অন্য একটি টুইটে ক্ষমা চেয়েছেন এ স্পেশালিস্ট স্পিনার।

নিজের টুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করে হরভজন অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক নেতারা আসলে করোনা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন না। তারা সেই ভ্যাকসিন নেওয়ার নাটক করছেন। আর সেই নাটকের অংশ হিসেবেই ছবি তুলছেন।

হরভজনের শেয়ার করা সেই ভিডিওতে দেখা গেছে, ওই দুজনে বাহুতে সিরিঞ্জ ধরে দাঁড়িয়ে আছেন নার্স। কিন্তু ওষুধ পুশ করতে দেখা যায়নি তাকে।  অথচ দুজনেই ভ্যাকসিন নিয়েছেন বলে ক্যামেরায় ‘ভি সাইন’ দেখিয়ে উঠে পড়েন।

হরভজন ভিডিওটি পোস্টের পর পরই তা ভারতসহ প্রতিবেশী বাংলাদেশের সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়ে। 

কিন্তু এই পোস্ট নিয়ে পরে বিপদের মুখে পড়েন হরভজন।  এমন পরিস্থিতিতে ফের একটি টুইটে ভাজ্জি খ্যাত তারকা লেখেন,  আসল ঘটনা যাচাই না করে আমি পোস্ট দিয়েছি।  এজন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি।  আসলে এটাই সত্যি আমাদের কিছু নেতা এইভাবে ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, ছবি তুলে গেছেন, ওকে ভালো।’

 

ঘটনাটি প্রসঙ্গে ভারতের সংবাদমাধ্যম নিউজ এইটিন জানিয়েছে, ভাইরাল সেই ভিডিওটি নিয়ে মুখ খুলেছেন তুমাকুরু ডেপুটি কমিশনার রাকেশ কুমার।  একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান, ভিডিওর মানুষ দুজন কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রী নন।  

পেশায় তারা দুজনেই চিকিৎসক। তাদের দুজনের নাম- ড. রজনী ও ড. নাগেন্দ্রাপ্পা। আর এ দুই চিকিৎসক করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন আগেই।  কিন্তু পরে সংবাদ কর্মীদের সাহায্য করতে তাদের কথামতো ছবি তোলেন।

অর্থাৎ ফটো ক্লিক হওয়ার আগেই তারা করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন বলে জানান রাকেশ কুমার।