ফাওয়াদের সেঞ্চুরিতে বড় লিড নিল পাকিস্তান
jugantor
ফাওয়াদের সেঞ্চুরিতে বড় লিড নিল পাকিস্তান

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:১১:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

করাচি টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান ১০০ ছাড়াতে পারে কিনা, এ নিয়ে ছিল ঘোর সংশয়। নিউজিল্যান্ডের মতো ঘরের মাঠেও ধরাশায়ী হতে যাচ্ছে বাবর আজমের দল- এমনটি ধরেই নিয়েছিলেন সমর্থকরা।

কিন্তু সব সংশয় উড়িয়ে দিয়ে ১৫৮ রানের লিড নিল পাকিস্তান। ৩৭৮ রানে গিয়ে থামল স্বাগতিকদের ইনিংস।

এমন পারফরম্যান্স দেখলে যে কেউই বলবেন, এটাই পাকিস্তান দল।

আর এবার রাজার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন অভিজ্ঞ পাক ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলম। তার ২৪৫ রানে অনবদ্য ১০৯ রানের ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে পাকিস্তান।

ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্ট শতকের দেখা পেলেন ফাওয়াদ। দেশের মাটিতে এটিই তার প্রথম টেস্ট।

ফাওয়াদের পর আরেক অভিজ্ঞ তারকা ফাহিম আশরাফের ৮৪ বলে ৬৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংসে ভর করে ৩৭৮ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।

এ দুজন ছাড়াও ব্যাটিং বিপর্যয়ের সময় হাল ধরে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আজহার আলি করেছেন ফিফটি রান। ১৫১ বলে ৫১ রান করেছেন তিনি।

বুধবার প্রথম দিন দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দিয়ে শেষ বিকালে ব্যাটিংয়ে নামে পাকিস্তান। আর প্রোটিয়া বোলার রাবাদা-মহারাজের তোপের মুখে মাত্র ২৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে পাকিস্তান।

এ বিপর্যস্ত দলের হাল ধরেন আজহার আলি। চোট সারিয়ে মাঠে ফেরা অধিনায়ক বাবর আজম ও তরুণ অলরাউন্ডার শাহীন শাহ আফ্রিদি দ্রুতই আউট হলে কাণ্ডারির ভূমিকায় অবতীর্ণ হন ফাওয়াদ।

পঞ্চম উইকেটে আজহারকে নিয়ে স্কোর বোর্ডে ৯৪ রান জমা করেন ফাওয়াদ। ষষ্ঠ উইকেটে মোহাম্মদ রিজওয়ানকে (৩৩) নিয়ে ৫৫ ও সপ্তম উইকেটে ফাহিমকে নিয়ে ১০২ রান যোগ করেন ফাওয়াদ।

সেঞ্চুরির পর এনগিদির বলে আউট হয়ে ফাওয়াদ সাজঘরে ফিরলে টেলএন্ডাররা খারাপ খেলেননি। প্রোটিয়ার পেসারদের ভালোই সামলেছেন তারা।

রাবাদার বলে বোল্ড হওয়ার আগে মাত্র ৩৩ বলে ২১ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলেন হাসান আলী। নুমান আলী করেছেন ৪৯ বলে ২৪ রান। তবে এ দুজনকে ছাপিয়ে গেছেন লেগব্রেক গুগলি বোলার ইয়াসির শাহ।

৩৭ বলে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত হয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। তার এ ইনিংসে চারটি বাউন্ডারি ও ১টি ছক্কার মার ছিল।

দ. আফ্রিকার পক্ষে কাগিসো রাবাদা ও কেশভ মহারাজ ৩টি করে উইকেট পেয়েছেন। দুটি করে উইকেট পেয়েছেন নর্টজ ও এনগিদি।

১১৯.২ ওভারে পাকিস্তানকে অলআউট করে ব্যাটিংয়ে নেমেছে সফরকারী দ. আফ্রিকা।

১৫৮ রানের লিড তাড়া করতে নেমে ইতিমধ্যে ১ উইকেট হারিয়ে ৮৪ রান করেছে তারা। ৪৫ বলে ২৯ রান করে ইয়াসির শাহের গুগলিতে আউট হয়েছেন ওপেনার ডিন এলগার।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, এইডেন মার্করাম ৩৪ ও রসি ভ্যান ডার ডুসেন ১৭রানে ব্যাট করছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংস ২২০।

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস ৩৭৮ (আজহার আলী ৫১, ফাওয়াদ আলম ১০৯, মোহাম্মদ রিজওয়ান ৩৩, ফাহিম আশরাফ ৬৪, ইয়াসির শাহ ৩৮*। কাগিসো রাবাদা ৩/৭০, মহারাজ ৩/৯০।

দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংস ৮৪/১ (এলগার ২৯, মার্করাম ৩৪*)

ফাওয়াদের সেঞ্চুরিতে বড় লিড নিল পাকিস্তান

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করাচি টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান ১০০ ছাড়াতে পারে কিনা, এ নিয়ে ছিল ঘোর সংশয়। নিউজিল্যান্ডের মতো ঘরের মাঠেও ধরাশায়ী হতে যাচ্ছে বাবর আজমের দল- এমনটি ধরেই নিয়েছিলেন সমর্থকরা।

কিন্তু সব সংশয় উড়িয়ে দিয়ে ১৫৮ রানের লিড নিল পাকিস্তান।  ৩৭৮ রানে গিয়ে থামল স্বাগতিকদের ইনিংস।    

এমন পারফরম্যান্স দেখলে যে কেউই বলবেন, এটাই পাকিস্তান দল।  

আর এবার রাজার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন অভিজ্ঞ পাক ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলম।  তার ২৪৫ রানে অনবদ্য ১০৯ রানের ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে পাকিস্তান।  

ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্ট শতকের দেখা পেলেন ফাওয়াদ। দেশের মাটিতে এটিই তার প্রথম টেস্ট। 

ফাওয়াদের পর আরেক অভিজ্ঞ তারকা ফাহিম আশরাফের ৮৪ বলে ৬৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংসে ভর করে ৩৭৮ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।

এ দুজন ছাড়াও ব্যাটিং বিপর্যয়ের সময় হাল ধরে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া আজহার আলি করেছেন ফিফটি রান। ১৫১ বলে ৫১ রান করেছেন তিনি।

বুধবার প্রথম দিন দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২২০ রানে গুটিয়ে দিয়ে শেষ বিকালে ব্যাটিংয়ে নামে পাকিস্তান। আর প্রোটিয়া বোলার রাবাদা-মহারাজের তোপের মুখে মাত্র ২৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসে পাকিস্তান।

এ বিপর্যস্ত দলের হাল ধরেন আজহার আলি। চোট সারিয়ে মাঠে ফেরা অধিনায়ক বাবর আজম ও তরুণ অলরাউন্ডার শাহীন শাহ আফ্রিদি দ্রুতই আউট হলে কাণ্ডারির ভূমিকায় অবতীর্ণ হন ফাওয়াদ।  

পঞ্চম উইকেটে আজহারকে নিয়ে স্কোর  বোর্ডে ৯৪ রান জমা করেন ফাওয়াদ।  ষষ্ঠ উইকেটে মোহাম্মদ রিজওয়ানকে (৩৩) নিয়ে ৫৫ ও সপ্তম উইকেটে ফাহিমকে নিয়ে ১০২ রান যোগ করেন ফাওয়াদ। 

সেঞ্চুরির পর এনগিদির বলে আউট হয়ে ফাওয়াদ সাজঘরে ফিরলে টেলএন্ডাররা খারাপ খেলেননি।  প্রোটিয়ার পেসারদের ভালোই সামলেছেন তারা।

রাবাদার বলে বোল্ড হওয়ার আগে মাত্র ৩৩ বলে ২১ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলেন হাসান আলী।  নুমান আলী করেছেন ৪৯ বলে ২৪ রান।  তবে এ দুজনকে ছাপিয়ে গেছেন লেগব্রেক গুগলি বোলার ইয়াসির শাহ।

৩৭ বলে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত হয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।  তার এ ইনিংসে চারটি বাউন্ডারি ও ১টি ছক্কার মার ছিল।

দ. আফ্রিকার পক্ষে কাগিসো রাবাদা ও কেশভ মহারাজ ৩টি করে উইকেট পেয়েছেন। দুটি করে উইকেট পেয়েছেন নর্টজ ও এনগিদি।

১১৯.২ ওভারে পাকিস্তানকে অলআউট করে ব্যাটিংয়ে নেমেছে সফরকারী দ. আফ্রিকা।

১৫৮ রানের লিড তাড়া করতে নেমে ইতিমধ্যে ১ উইকেট হারিয়ে ৮৪ রান করেছে তারা।  ৪৫ বলে ২৯ রান করে ইয়াসির শাহের গুগলিতে আউট হয়েছেন ওপেনার ডিন এলগার।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত, এইডেন মার্করাম ৩৪ ও রসি ভ্যান ডার ডুসেন ১৭ রানে ব্যাট করছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংস ২২০।

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস ৩৭৮ (আজহার আলী ৫১, ফাওয়াদ আলম ১০৯, মোহাম্মদ রিজওয়ান ৩৩, ফাহিম আশরাফ ৬৪, ইয়াসির শাহ ৩৮*।  কাগিসো রাবাদা ৩/৭০, মহারাজ ৩/৯০।

দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংস ৮৪/১ (এলগার ২৯, মার্করাম ৩৪*)