২০ বছরে আসলে কোনো উন্নতিই হয়নি: মুমিনুল
jugantor
২০ বছরে আসলে কোনো উন্নতিই হয়নি: মুমিনুল

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১১:০৭:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

উদ্দেশ্যহীনভাবে চলছে বাংলাদেশের টেস্ট অভিযাত্রা।

যে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ওয়ানডে-তে হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ, সেই প্রতিপক্ষের কাছেই টেস্টে ধবলধোলাই হলো মুমিনুলরা।

সদ্য শেষ হওয়া দুই ম্যাচের সিরিজে যেভাবে উইন্ডিজ স্পিনারদের উইকেট উপহার দিয়ে এসেছেন টাইগাররা, তাতে দলটিকে টেস্টে নবীন মনে হয়েছে বোদ্ধাদের।

অথচ ২০২০ সালের ডিসেম্বরে টেস্ট ক্রিকেটে টাইগারদের ২০ বছর পূরণ হয়েছে। পা দিয়েছে একুশে।

এই ২০ বছরে প্রাপ্তির ঝুলি কতটা গভীর হয়েছে তা খুঁজতে গেলে মিলবে শুধুই হতাশা।

পরিসংখ্যান বলছে– এখনও পর্যন্ত ১২১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে জয় মাত্র ১৪টি।

ঘরের মাঠে আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের কাছেও ম্যাচ হেরেছে বাংলাদেশ।

২০ বছর ধরে খেলে এই দীর্ঘ ফরম্যাটে বাংলাদেশ দলের উন্নতি কতটুকু হয়েছে? প্রশ্ন করা হয় খর্বশক্তির উইন্ডিজের কাছে হোয়াইটওয়াশ হওয়া টেস্ট দলের বর্তমান অধিনায়ক মুমিনুল হককে।

জবাবে সরল স্বীকারোক্তি দিলেন মুমিনুল। সোজাসুজিই মেনে নিয়েছেন, ২০ বছরে আসলে কোনো উন্নতিই হয়নি বাংলাদেশের।

রোববার খেলা শেষে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসে টাইগার অধিনায়ক বলেন, ‘আসলেই! ২০ বছর হয়ে গেছে। আমার মনে হয়, ওইভাবে কোনো উন্নতিই হয়নি। তবে আমি মনে করি উন্নতির শেষ নেই। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সুযোগ থাকে। আমরা যতদিন খেলব, যতদিন বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করব, ততদিন উন্নতি করতে হবে।’

ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় সারির দল পেয়েও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্টের খাতাটা শূন্য বাংলাদেশের।

সামনে শ্রীলংকা সিরিজেও দল ঘুরে দাঁড়াবে কিনা–এমন প্রশ্ন মুমিনুলের উত্তর, ‘আসলে ব্যাটসম্যানদের বড় ইনিংস খেলার অভ্যাস গড়তে হবে। লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করার অভ্যাস তৈরি করতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এটিই। ব্যাটসম্যানরা যদি তিন-চার সেশন ব্যাটিং করতে পারে, তা হলে টেস্টে দলের জন্য সহজ হবে।’

২০ বছরে আসলে কোনো উন্নতিই হয়নি: মুমিনুল

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১১:০৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

উদ্দেশ্যহীনভাবে চলছে বাংলাদেশের টেস্ট অভিযাত্রা। 

যে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ওয়ানডে-তে হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ, সেই প্রতিপক্ষের কাছেই টেস্টে ধবলধোলাই হলো মুমিনুলরা।

সদ্য শেষ হওয়া দুই ম্যাচের সিরিজে যেভাবে উইন্ডিজ স্পিনারদের উইকেট উপহার দিয়ে এসেছেন টাইগাররা, তাতে দলটিকে টেস্টে নবীন মনে হয়েছে বোদ্ধাদের।

অথচ ২০২০ সালের ডিসেম্বরে টেস্ট ক্রিকেটে টাইগারদের ২০ বছর পূরণ হয়েছে।  পা দিয়েছে একুশে। 

এই ২০ বছরে প্রাপ্তির ঝুলি কতটা গভীর হয়েছে তা খুঁজতে গেলে মিলবে শুধুই হতাশা।

পরিসংখ্যান বলছে– এখনও পর্যন্ত ১২১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে জয় মাত্র ১৪টি। 

ঘরের মাঠে আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের কাছেও ম্যাচ হেরেছে বাংলাদেশ।  

২০ বছর ধরে খেলে এই দীর্ঘ ফরম্যাটে বাংলাদেশ দলের উন্নতি কতটুকু হয়েছে? প্রশ্ন করা হয় খর্বশক্তির উইন্ডিজের কাছে হোয়াইটওয়াশ হওয়া টেস্ট দলের বর্তমান অধিনায়ক মুমিনুল হককে।

জবাবে সরল স্বীকারোক্তি দিলেন মুমিনুল। সোজাসুজিই মেনে নিয়েছেন, ২০ বছরে আসলে কোনো উন্নতিই হয়নি বাংলাদেশের। 

রোববার খেলা শেষে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসে টাইগার অধিনায়ক বলেন, ‘আসলেই! ২০ বছর হয়ে গেছে। আমার মনে হয়, ওইভাবে কোনো উন্নতিই হয়নি। তবে আমি মনে করি উন্নতির শেষ নেই। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সুযোগ থাকে। আমরা যতদিন খেলব, যতদিন বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করব, ততদিন উন্নতি করতে হবে।’

ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় সারির দল পেয়েও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্টের খাতাটা শূন্য বাংলাদেশের।

সামনে শ্রীলংকা সিরিজেও দল ঘুরে দাঁড়াবে কিনা–এমন প্রশ্ন মুমিনুলের উত্তর, ‘আসলে ব্যাটসম্যানদের বড় ইনিংস খেলার অভ্যাস গড়তে হবে।  লম্বা সময় ধরে ব্যাটিং করার অভ্যাস তৈরি করতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এটিই।  ব্যাটসম্যানরা যদি তিন-চার সেশন ব্যাটিং করতে পারে, তা হলে টেস্টে দলের জন্য সহজ হবে।’
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ ২০২১ ঢাকা

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১