‘এমন পিচে বল করলে হাজার উইকেট পেতেন কুম্বলে’
jugantor
‘এমন পিচে বল করলে হাজার উইকেট পেতেন কুম্বলে’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১১:০৮:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকঢোল পিটিয়ে খুব আয়োজন করে শুরু হয়েছিল গোলাপি বলে ভারত-ইংল্যান্ডের দিবারাত্রির টেস্ট। কারণ টেস্টটি দিয়েই অভিষেক ঘটেছে আহমেদাবাদে স্থাপিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়ামের।

আর পাঁচ দিনের সেই টেস্ট শেষ হয়ে গেল মাত্র দেড় দিনে! ইংল্যান্ডকে ১০ উইকেটে হারাতে পুরো দুদিনও লাগেনি ভারতের।

এমন জয়ে ভূয়সী প্রশংসায় ভাসার কথা ছিল ভারতীয় দলের কিন্তু। কিন্তু বিরাট কোহলির দলের সেই কৃতিত্বকে ছাপিয়ে আলোচনায় এখন মোতেরার বাইশ গজের উইকেট। অনেক সাবেক তারকারা উইকেটের আচরণ নিয়ে টিপ্পটি কাঁটছেন।

সেটা হবারই কথা। কারণ ম্যাচে ৩০ উইকেটের ২৮টিই নিয়েছেন স্পিনাররা।

ইংল্যান্ডের দুই ইনিংসে ২০ উইকেটের মধ্যে ১৯টিই নিয়েছেন ভারতীয় স্পিনাররা। ভারতও যে ইনিংসে অলআউট হয়েছে, তাতে ৯ উইকেট নেন ইংল্যান্ডের দুই স্পিনার। এর মধ্যে পার্টটাইম অফস্পিনার জো রুটও নেন ৫ উইকেট। অতএব, বোঝাই যাচ্ছে, কেমন স্পিনবান্ধব উইকেট বানিয়েছে মোতেরার কিউরেটররা!

এমন পিচ নিয়ে সমালোচনা করেছেন ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী সাবেক তারকা যুবরাজ সিং। তার দাবি, অনিল কুম্বলে ও হরভজন সিংকে এই ধরনের পিচে বল করার বেশি সুযোগ পেতেন;তবে তারা নিশ্চিতভাবেই টেস্ট ক্যারিয়ারে অনেক বেশি উইকেটের মালিক হতেন।

মোতেরায় ভারতের জয়ের পর যুবরাজ নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘দুদিনে ম্যাচ শেষ হওয়া টেস্ট ক্রিকেটের পক্ষে ভালো উদাহরণ কিনা, সে বিষয়ে নিশ্চিত নই। যদি অনিল কুম্বলে ও হরভজন সিং এ ধরনের পিচে বল করতেন, তবে ওদের সংগ্রহে হাজারটা ও আটশর বেশি উইকেট থাকতো। যাই হোক, অভিনন্দন ভারতকে। অক্ষর প্যাটেলের স্পেলটি অসাধারণ ছিল। অভিনন্দন অশ্বিন ও ইশান্তকেও।’

প্রসঙ্গত ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে আহমেদাবাদের মোতেরায় ব্যাটসম্যানরা স্পিনবিষে ধরাশায়ী হয়েছেন বেশি। প্রথম ইনিংসে অক্ষর-অশ্বিনের ঘূর্ণিজাদুতে ইংল্যান্ড মাত্র ১১২ রানেই গুটিয়ে যায়। ভারতও লিচ ও জো রুটের স্পিনে ১৪৫ রানে গুটিয়ে যায়।

জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় স্পিনারদের ঘূর্ণির সামনে মাত্র ৮১ রানেই অলআউট হয় সফরকারীরা। মাত্র ৪৯ রানের টার্গেট কোনো উইকেট না হারিয়ে চা-বিরতির আগেই সেরে ফেলে ভারত। ১০ উইকেটে ম্যাচটি জিতে নেয় স্বাগতিকরা।

‘এমন পিচে বল করলে হাজার উইকেট পেতেন কুম্বলে’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১১:০৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকঢোল পিটিয়ে খুব আয়োজন করে শুরু হয়েছিল গোলাপি বলে ভারত-ইংল্যান্ডের দিবারাত্রির টেস্ট। কারণ টেস্টটি দিয়েই অভিষেক ঘটেছে আহমেদাবাদে স্থাপিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়ামের।

আর পাঁচ দিনের সেই টেস্ট শেষ হয়ে গেল মাত্র দেড় দিনে! ইংল্যান্ডকে ১০ উইকেটে হারাতে পুরো দুদিনও লাগেনি ভারতের। 

এমন জয়ে ভূয়সী প্রশংসায় ভাসার কথা ছিল ভারতীয় দলের কিন্তু। কিন্তু বিরাট কোহলির দলের সেই কৃতিত্বকে ছাপিয়ে আলোচনায় এখন মোতেরার বাইশ গজের উইকেট।  অনেক সাবেক তারকারা উইকেটের আচরণ নিয়ে টিপ্পটি কাঁটছেন।

সেটা হবারই কথা। কারণ ম্যাচে ৩০ উইকেটের ২৮টিই নিয়েছেন স্পিনাররা। 

ইংল্যান্ডের দুই ইনিংসে ২০ উইকেটের মধ্যে ১৯টিই নিয়েছেন ভারতীয় স্পিনাররা। ভারতও যে ইনিংসে অলআউট হয়েছে, তাতে ৯ উইকেট নেন ইংল্যান্ডের দুই স্পিনার। এর মধ্যে পার্টটাইম অফস্পিনার জো রুটও নেন ৫ উইকেট।  অতএব, বোঝাই যাচ্ছে, কেমন স্পিনবান্ধব উইকেট বানিয়েছে মোতেরার কিউরেটররা!

এমন পিচ নিয়ে সমালোচনা করেছেন ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী সাবেক তারকা যুবরাজ সিং। তার দাবি, অনিল কুম্বলে ও হরভজন সিংকে এই ধরনের পিচে বল করার বেশি সুযোগ পেতেন;তবে তারা নিশ্চিতভাবেই টেস্ট ক্যারিয়ারে অনেক বেশি উইকেটের মালিক হতেন।

মোতেরায় ভারতের জয়ের পর যুবরাজ নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘দুদিনে ম্যাচ শেষ হওয়া টেস্ট ক্রিকেটের পক্ষে ভালো উদাহরণ কিনা, সে বিষয়ে নিশ্চিত নই। যদি অনিল কুম্বলে ও হরভজন সিং এ ধরনের পিচে বল করতেন, তবে ওদের সংগ্রহে হাজারটা ও আটশর বেশি উইকেট থাকতো।  যাই হোক, অভিনন্দন ভারতকে। অক্ষর প্যাটেলের স্পেলটি অসাধারণ ছিল। অভিনন্দন অশ্বিন ও ইশান্তকেও।’

প্রসঙ্গত ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে আহমেদাবাদের মোতেরায় ব্যাটসম্যানরা স্পিনবিষে ধরাশায়ী হয়েছেন বেশি। প্রথম ইনিংসে অক্ষর-অশ্বিনের ঘূর্ণিজাদুতে ইংল্যান্ড মাত্র ১১২ রানেই গুটিয়ে যায়। ভারতও লিচ ও জো রুটের স্পিনে ১৪৫ রানে গুটিয়ে যায়।

জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় স্পিনারদের ঘূর্ণির সামনে মাত্র ৮১ রানেই অলআউট হয় সফরকারীরা।  মাত্র ৪৯ রানের টার্গেট কোনো উইকেট না হারিয়ে চা-বিরতির আগেই সেরে ফেলে ভারত। ১০ উইকেটে ম্যাচটি জিতে নেয় স্বাগতিকরা। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন