সমর্থকদের উন্মাদনা দেখলে অস্বস্তিতে পড়ে যাই: কোহলি

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ২০:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

বিরাট কোহলি

ক্রিকেট থেকে শচীন টেন্ডুলকারের বিদায়ের পর থেকেই ভারত কাঁপিয়ে যাচ্ছেন বিরাট কোহলি। শচীন যখন খেলতেন তখন তিনি সমর্থকদের উন্মাদনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন। তার জমানা শেষে এখন সেই অবস্থানে কোহলি। সমর্থকদের মধ্যমণি তিনিই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল জনপ্রিয় তিনি। কোহলি কী করছেন, কী পরছেন, কোথায় যাচ্ছেন—জানার জন্য ভক্তদের মধ্যে আগ্রহ চোখে পড়ার মতো। ভক্তদের উন্মাদনা এবং সংবাদমাধ্যমের হাত থেকে বাঁচতেই বিয়েটা পর্যন্ত ইতালিতে করেছেন কোহলি।

১০ বছর ধরে ভারতের হয়ে ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন কোহলি। তার চুলের স্টাইল, ট্যাটু এমনকি নতুন গাড়িও সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চার বিষয়। মাঠে তার নড়াচড়া, এক–একটি শট নিয়ে আলোচনায় ব্যস্ত থাকেন ভক্তরা।

কোথায় একটু খেতে যাবেন, শপিংয়ে যাবেন। সেখানেও ধাওয়া করেন সমর্থকরা। খ্যাতির যে কী বিড়ম্বনা। বিরাট কিন্তু কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়ে যান।

বিরাট বলছিলেন, ‘‌ভক্তদের এত উন্মাদনা দেখলে এখনও অস্বস্তি বোধ হয়। আমার তো মনে হয় অধিনায়ক হওয়ার আগে আমি যেমন ছিলাম। এখনও তেমন আছি। চার বছরে সত্যিই কী কোনও পরিবর্তন এসেছে আমার মধ্যে?‌ মনে হয় না। তাই মাঝে মাঝেই ভক্তদের এত উন্মাদনা দেখলে অস্বস্তিতে পড়ে যাই।’‌

প্রিয় ক্রিকেটারের প্রতি সমর্থকদের উন্মাদনার থাকবেই। তবে সেই উন্মাদনার ভারসাম্য থাকে সেদিকে নজর দিতে হবে। কোহলির ভাষায়, ‘‌ভালো খেললে যেমন ভক্তরা প্রশংসায় ভরিয়ে দেন। খারাপ খেললে সমালোচনা করেন। এই দুটোর মধ্যে একটা ভারসাম্য থাকা উচিত। মাথায় রাখবেন যে ক্রিকেটাররাও কিন্তু সাধারণ মানুষ।’‌

শচীন টেন্ডুলকার ক্রিকেট থেকে অবসরে যাওয়ার সময় আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন সমর্থকরা। এ ব্যাপারে বিরাট কোহলি বলেন, ‘‌শচীনের অবসরের দিন স্টেডিয়াম ছেড়ে বেরোনোর সময় বাসের সামনের সিটে বসেছিলাম আমি। সমর্থকরা প্রায় রাস্তায় শুয়ে পড়েছিল। সবাই কাঁদছিল। গোটা ব্যাপারটায় আমি বেশ আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলাম। এখন বুঝতে পারছি খ্যাতির কী বিড়ম্বনা।’ -খবর ‌আজকাল

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল ২০১৮

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.