দেশে সাকিবের বছরে আয় অর্ধকোটি, আইপিএলে মাসে ২ কোটি

প্রকাশ : ২১ এপ্রিল ২০১৮, ০৮:০৬ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস রিপোর্টার

নতুন মৌসুমের চুক্তিতে বড় ধরনের রদবদল নিয়ে এল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আগের চুক্তিতে থাকা ১৬ ক্রিকেটারের মধ্য থেকে বাদ দেয়া হয়েছে ৬ জনকে। নতুন মৌসুমে ১০ জনকে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে রেখেছে বিসিবি।

নতুন চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটারদের বেতন স্কেল এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে গত বছরের চুক্তি অনুসারে দেশের সেরা ক্রিকেটারদের মাসিক পারিশ্রমিক ৪ লাখ টাকা। সেই বিবেচনায় দেশের ক্রিকেট বোর্ড থেকে সাকিব আল হাসানের বছরে আয় ৪৮ লাখ। 

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএলে) এক মাসে সাকিবের আয় ২ কোটি টাকা। আইপিএলের চলমান ১১তম আসরে ২ কোটি টাকায় সাকিবকে দলে নিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। 

এই বিবেচনায় দেশে কয়েক ধাপ পিছিয়ে থাকলে বিদেশে সাকিবের চেয়ে এগিয়ে মোস্তাফিজ। গত বছরে চুক্তি অনুসারে বিসিবি থেকে কাটার মাস্টারের মাসিক আয় ২ লাখ টাকা।

আর চলতি আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ২ কোটি ২০ লাখ টাকায় কিনে নিয়েছে দ্য ‘ফিজ’ খ্যাত ক্রিকেটারকে।

বাজে পারফরম্যান্সের কারণে বিসিবির নতুন চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন সাব্বির রহমান রুম্মন, সৌম্য সরকার, তাসকিন আহমেদ, ইমরুল কায়েস, কামরুল ইসলাম রাব্বি ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

চুক্তি থেকে তাদের বাদ দেয়া প্রসঙ্গে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, সম্প্রতি বাজে পারফরম্যান্সের কারণে তাদের বাদ দেয়া হয়েছে। পারফরম্যান্স ভালো হলে আবার তাদের বিবেচনা করা হবে।

বিসিবির চুক্তিতে আছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মোস্তাফিজুর রহমান, মুমিনুল হক সৌরভ, রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম।

আগেই গুঞ্জন ছিল, বিসিবির নতুন চুক্তি থেকে বাদ যাচ্ছেন কয়েকজন ক্রিকেটার। তবে সেই সংখ্যাটা যে এতটা লম্বা হবে তা কেউ অনুমান করতে পারেননি। গত বছর বোর্ডের চুক্তিতে ১৬ জন ক্রিকেটারকে রাখা হলেও নতুন মৌসুমের জন্য রাখা হচ্ছে ১০ জনকে।

নতুন চুক্তি থেকে বাদ দেয়া হচ্ছে ৬ জন ক্রিকেটারকে। একই সঙ্গে ৬ উইকেট বিসিবি এর আগে কখনও তুলে নিয়েছে কিনা তা হলফ করে বলা মুশকিল।

তবে ৬ উইকেট তুলে নেয়া হলেও তিনজনকে বিবেচনায় রেখে দিবে বিসিবি। তাদের পারফরম্যান্সের ওপর নির্ভর করে চুক্তিভুক্ত করবে ক্রিকেট বোর্ড।

বুধবারের মিরপুরে ক্রিকেট বোর্ডের সভা শুরুর আগেই গুঞ্জন ছিল ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়ানো হবে। তবে সেই সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিয়েছেন বিসিবির কর্তারা।

গত বছর ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়িয়ে দ্বিগুণ করায় এবার আর বেতন বাড়ানোর চিন্তা করছেন না বোর্ডের কর্তাব্যক্তিরা।