বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইলেন কিউই ম্যাচ রেফারি
jugantor
বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইলেন কিউই ম্যাচ রেফারি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০১ এপ্রিল ২০২১, ১৩:০২:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইলেন ম্যাচ রেফারি সাবেক কিউই ক্রিকেটার জেফ ক্রো।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতির ব্যবহারে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ার ঘটনায় নিজেকে দায়ী করেছেন এই ম্যাচ রেফারি।

নেপিয়ারে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের লক্ষ্য নিয়ে বিতর্ক বাঁধে। লক্ষ্য না জেনেই ব্যাট হাতে মাঠে নামতে হয় মাহমুদউল্লাহর দলের ব্যাটসম্যানদের।

সেই ম্যাচে ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। বৃষ্টির কারণে বাকি ২.১ ওভার ব্যাট করতে পারেননি স্বাগতিকরা।

বৃষ্টি থামলে ১৬ ওভারে বাংলাদেশের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১৪৮ রান।

কিউই বোর্ড এনজেডসি ও বাংলাদেশ বোর্ড বিসিবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ১৪৮ রানের লক্ষ্য ঘোষণাও করা হয়।

কিন্তু বাংলাদেশ যখন ব্যাটিং শুরু করার কিছু সময় পর ম্যাচ থামিয়ে দেন রেফারি জেফ ক্রো।

নতুন করে হিসাবনিকাশ করে ঘোষণা দেন, ১৪৮ নয়, ১৬ ওভারে ১৭০ রান তাড়া করতে হবে বাংলাদেশকে। ফের ব্যাটিং শুরু করে বাংলাদেশ। ১৩ ওভার পর আবার জানানো হয়, ১৭০ নয়, জিততে হলে টাইগারদের করতে হয়ে ১৭১ রান।

ম্যাচ পরিচালকদের এমন খামখেয়ালিপনা স্বাভাবিকভাবে নিতে পারেননি ক্রিকেটপ্রেমী। বিষয়টি নিয়ে পরে অসন্তোষ প্রকাশ করেন টাইগারদের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

ওই ঘটনার পর বাংলাদেশের গণমাধ্যমকে বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস বলেন, ‘জেফ ক্রো পরে বারবার আমাদের সরি বলেছেন। ম্যাচের পরও ঘটনার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বাংলাদেশের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন।’

বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইলেন কিউই ম্যাচ রেফারি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০১ এপ্রিল ২০২১, ০১:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইলেন ম্যাচ রেফারি সাবেক কিউই ক্রিকেটার জেফ ক্রো।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতির ব্যবহারে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ার ঘটনায় নিজেকে দায়ী করেছেন এই ম্যাচ রেফারি। 

নেপিয়ারে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের লক্ষ্য নিয়ে বিতর্ক বাঁধে। লক্ষ্য না জেনেই ব্যাট হাতে মাঠে নামতে হয় মাহমুদউল্লাহর দলের ব্যাটসম্যানদের।

সেই ম্যাচে ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। বৃষ্টির কারণে বাকি ২.১ ওভার ব্যাট করতে পারেননি স্বাগতিকরা।

বৃষ্টি থামলে ১৬ ওভারে বাংলাদেশের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১৪৮ রান।

কিউই বোর্ড এনজেডসি ও বাংলাদেশ বোর্ড বিসিবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ১৪৮ রানের লক্ষ্য ঘোষণাও করা হয়। 

কিন্তু বাংলাদেশ যখন ব্যাটিং শুরু করার কিছু সময় পর ম্যাচ থামিয়ে দেন রেফারি জেফ ক্রো।

নতুন করে হিসাবনিকাশ করে ঘোষণা দেন, ১৪৮ নয়, ১৬ ওভারে ১৭০ রান তাড়া করতে হবে বাংলাদেশকে।  ফের ব্যাটিং শুরু করে বাংলাদেশ। ১৩ ওভার পর আবার জানানো হয়, ১৭০ নয়, জিততে হলে টাইগারদের করতে হয়ে ১৭১ রান।

ম্যাচ পরিচালকদের এমন খামখেয়ালিপনা স্বাভাবিকভাবে নিতে পারেননি ক্রিকেটপ্রেমী।  বিষয়টি নিয়ে পরে অসন্তোষ প্রকাশ করেন টাইগারদের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। 

ওই ঘটনার পর বাংলাদেশের গণমাধ্যমকে বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস বলেন, ‘জেফ ক্রো পরে বারবার আমাদের সরি বলেছেন। ম্যাচের পরও ঘটনার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বাংলাদেশের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন।’
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজ ২০২১