সাকিবহীন কেকেআরকে হারিয়ে শীর্ষে চেন্নাই
jugantor
সাকিবহীন কেকেআরকে হারিয়ে শীর্ষে চেন্নাই

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২২ এপ্রিল ২০২১, ০০:০৯:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) হয়ে প্রথম তিন ম্যাচে প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স করতে না পারায় চতুর্থ ম্যাচে একাদশে জায়গা হয়নি সাকিব আল হাসানের। বাংলাদেশ সেরা এই অলরাউন্ডারের পরিবর্তে ক্যারিবীয় তারকা স্পিনার সুনীল নারিনকে খেলায় কেকেআর।

সাকিবহীন ম্যাচে হ্যাটট্রিক পরাজয়এড়াতে নেমে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে ২২১ রানের বিশাল টার্গেট তাড়ায় ১৮ রানে হারে কেকেআর। ১৮ রানের জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে যায় চেন্নাই।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে জয়ে আইপিএল শুরু করা কেকেআর পরের দুই ম্যাচেমুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে হেরে ব্যাকফুটে চলে যায়।

টানা দুই হারের পর হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে বুধবার চেন্নাই সুপার কিংসের মুখোমুখিহয় কেকেআর। মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড় স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ফাফ ডু প্লেসিসের ৬০ বলে ৯টি চার ও চারটি ছক্কায় সাজানো অপরাজিত ৯০ আর ঋতুরাজ গায়কওয়াদের ৪২ বলে ৬টি চার ও চারটি ছক্কায় সাজানো ৬৪ রানের ইনিংসে ভর করে ৩ উইকেটে ২২০ রানের পাহাড় গড়ে চেন্নাই।

হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে রানের পাহাড় ডিঙ্গাতে নেমে ৩১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে যায় কেকেআর। ষষ্ঠ উইকেটে দলের হাল ধরেন দীনেশ কার্তিক ও আন্দ্রে রাসেল। এই জুটিতে তারা যোগ করেন ৮১ রান। দলীয় ১১২ রানে স্যাম কারানের বলে বিভ্রান্ত হয়ে ফেরেন আন্দ্রে রাসেল। সাজঘরে ফেরার আগে মাত্র ২২ বলে তিনটি চার ও ৬টি দৃষ্টিনন্দন ছক্কায় ৫৪ রান করেন আন্দ্রে রাসেল। দলীয় ১৪৬ রানে ফেরেন কার্তিক। তার আগে ২৪ বলে করেন ৪০ রান।

জয়ের জন্য শেষ ৩০ বলে প্রয়োজন ছিল ৭৫ রান। লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে একাই লড়াই করে যান কেকেআরের অস্ট্রেলিয়ান তারকা পেসার প্যাট কামিন্স। ১৬তম ওভারে স্যাম করানকে চার ছক্কা আর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৩০ রান আদায় করে নেন কামিন্স।

জয়ের জন্য শেষ ২৪ বলে প্রয়োজন ছিল ৪৫ রান। ১৭তম ওভারে মাত্র ৫ রান খরচ করে কমলেশ নাগরকোটির উইকেট তুলে নেন লুঙ্গি এনগিডি।

শেষ ১৮বলে প্রয়োজন ছিল ৪০ রান। ১৮তম ওভারে শার্দুল ঠাকুর খরচ করেন ১২ রান। ১২ বলে কলকাতার প্রয়োজন ছিল ২৮ রান। ১৯তম ওভারে ৮ রান দিয়ে বরুন চক্রবর্তীকে রান আউট করেন স্যাম কারান।

শেষ ওভারে ২০ রান করতে শার্দুল ঠাকুরের প্রথম বলে ডাবল রান নিতে গিয়ে রান আউট হন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা। তার আউটের মধ্য দিয়ে থেমেযায় কামিন্সের লড়াই। ৩৪ বলে চারটি চার আর৬টি ছক্কায় অপরাজিত ৬৬ রান করেও দলকে জয় উপহার দিতে পারেননি কামিন্স। কেকেআর ২২১ রান তাড়া করতে গিয়ে ১৯.১ ওভারে ২০২ রানে অলআউট হয়। ১৮ রানের জয়ে চার ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে হটিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে যায় চেন্নাই সুপার কিংস।

সাকিবহীন কেকেআরকে হারিয়ে শীর্ষে চেন্নাই

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২২ এপ্রিল ২০২১, ১২:০৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) হয়ে প্রথম তিন ম্যাচে প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স করতে না পারায় চতুর্থ ম্যাচে একাদশে জায়গা হয়নি সাকিব আল হাসানের। বাংলাদেশ সেরা এই অলরাউন্ডারের পরিবর্তে ক্যারিবীয় তারকা স্পিনার সুনীল নারিনকে খেলায় কেকেআর।

সাকিবহীন ম্যাচে হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে নেমে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে ২২১ রানের বিশাল টার্গেট তাড়ায় ১৮ রানে হারে কেকেআর। ১৮ রানের জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে যায় চেন্নাই।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে জয়ে আইপিএল শুরু করা কেকেআর পরের দুই ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে হেরে ব্যাকফুটে চলে যায়। 

টানা দুই হারের পর হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে বুধবার চেন্নাই সুপার কিংসের মুখোমুখি হয় কেকেআর। মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড় স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ফাফ ডু প্লেসিসের ৬০ বলে ৯টি চার ও চারটি ছক্কায় সাজানো অপরাজিত ৯০ আর  ঋতুরাজ গায়কওয়াদের ৪২ বলে ৬টি চার ও চারটি ছক্কায় সাজানো ৬৪ রানের ইনিংসে ভর করে ৩ উইকেটে ২২০ রানের পাহাড় গড়ে চেন্নাই। 

হ্যাটট্রিক পরাজয় এড়াতে রানের পাহাড় ডিঙ্গাতে নেমে ৩১ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে যায় কেকেআর। ষষ্ঠ উইকেটে দলের হাল ধরেন দীনেশ কার্তিক ও আন্দ্রে রাসেল। এই জুটিতে তারা যোগ করেন ৮১ রান। দলীয় ১১২ রানে স্যাম কারানের বলে বিভ্রান্ত হয়ে ফেরেন আন্দ্রে রাসেল। সাজঘরে ফেরার আগে মাত্র ২২ বলে তিনটি চার ও ৬টি দৃষ্টিনন্দন ছক্কায় ৫৪ রান করেন আন্দ্রে রাসেল। দলীয় ১৪৬ রানে ফেরেন কার্তিক। তার আগে ২৪ বলে করেন ৪০ রান। 

জয়ের জন্য শেষ ৩০ বলে প্রয়োজন ছিল ৭৫ রান। লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে একাই লড়াই করে যান কেকেআরের অস্ট্রেলিয়ান তারকা পেসার প্যাট কামিন্স। ১৬তম ওভারে স্যাম করানকে চার ছক্কা আর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৩০ রান আদায় করে নেন কামিন্স। 

জয়ের জন্য শেষ ২৪ বলে প্রয়োজন ছিল ৪৫ রান। ১৭তম ওভারে মাত্র ৫ রান খরচ করে কমলেশ নাগরকোটির উইকেট তুলে নেন লুঙ্গি এনগিডি। 

শেষ ১৮ বলে প্রয়োজন ছিল ৪০ রান। ১৮তম ওভারে শার্দুল ঠাকুর খরচ করেন ১২ রান। ১২ বলে কলকাতার প্রয়োজন ছিল ২৮ রান। ১৯তম ওভারে ৮ রান দিয়ে বরুন চক্রবর্তীকে রান আউট করেন স্যাম কারান।

শেষ ওভারে ২০ রান করতে শার্দুল ঠাকুরের প্রথম বলে ডাবল রান নিতে গিয়ে রান আউট হন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা। তার আউটের মধ্য দিয়ে থেমে যায় কামিন্সের লড়াই। ৩৪ বলে চারটি চার আর ৬টি ছক্কায় অপরাজিত ৬৬ রান করেও দলকে জয় উপহার দিতে পারেননি কামিন্স। কেকেআর ২২১ রান তাড়া করতে গিয়ে ১৯.১ ওভারে ২০২ রানে অলআউট হয়। ১৮ রানের জয়ে চার ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে হটিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে যায় চেন্নাই সুপার কিংস।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২১