আইপিএল ভারতে হওয়ার আর কোনো সম্ভাবনা নেই
jugantor
আইপিএল ভারতে হওয়ার আর কোনো সম্ভাবনা নেই

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৯ মে ২০২১, ২১:৩০:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস যেভাবে সংক্রমিত হচ্ছে তাতে ভারতে আইপিএল আর হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এমনটিই বলছেন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী।

রোববার এক সাক্ষাৎকারে সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছেন, ইংল্যান্ড সিরিজ শেষে বিরাট কোহলিরা চলে যাবে শ্রীলংকায়। সেখানে তিনটি একদিনের ম্যাচ এবং পাঁচটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। তাই আইপিএল আর ভারতে হওয়ার সুযোগ নেই। আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজন করার সুযোগ কবে পাব, সেটা এই মুহূর্তে বলা খুব কঠিন।

এক প্রশ্নের জবাবে সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছেন, এখন হয়তো অনেকের মনে হতে পারে আইপিএল আগে বন্ধ হলেই ভালো হত। কিন্তু মুম্বাই এবং চেন্নাইয়ে কেউ আক্রান্ত হয়নি। দিল্লি এবং আহমেদাবাদের খেলা হওয়ার পরেই এই ঘটনা ঘটেছে। লোকে অনেক কথাই বলবে। কিন্তু ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দিকে দেখুন। ওদেরও অনেকে আক্রান্ত হয়েছে। কিন্তু ওরা ম্যাচ পিছিয়ে পরে আয়োজন করেছে। আইপিএলে সেটা সম্ভব নয়। সাত দিনের জন্য খেলা বন্ধ রাখলেই ক্রিকেটাররা দেশেফিরে যাবে।

ভারতীয় সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেছেন, যদি কেউ আক্রান্ত না হত তাহলে আমরা প্রতিযোগিতা চালিয়ে যেতাম। ক্রিকেটাররা জৈব সুরক্ষা বলয়ে ছিল এবং মাঠে কোনও দর্শক ঢুকতে দেওয়া হচ্ছিল না। কোনও ক্রিকেটারও আক্রান্ত হয়নি। ওরা আক্রান্ত হতেই আমরা আইপিএলবন্ধ করে দেই। তবেচলমান অন্যান্য লিগগুলোর দিকে তাকিয়ে দেখুন, অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তার পরও প্রতিযোগিতা বন্ধ নেই।

আইপিএল ভারতে হওয়ার আর কোনো সম্ভাবনা নেই

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৯ মে ২০২১, ০৯:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস যেভাবে সংক্রমিত হচ্ছে তাতে ভারতে আইপিএল আর হওয়ার সম্ভাবনা নেই। এমনটিই বলছেন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী। 

রোববার এক সাক্ষাৎকারে সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছেন, ইংল্যান্ড সিরিজ শেষে বিরাট কোহলিরা চলে যাবে শ্রীলংকায়। সেখানে তিনটি একদিনের ম্যাচ এবং পাঁচটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে। তাই আইপিএল আর ভারতে হওয়ার সুযোগ নেই। আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজন করার সুযোগ কবে পাব, সেটা এই মুহূর্তে বলা খুব কঠিন।

এক প্রশ্নের জবাবে সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছেন, এখন হয়তো অনেকের মনে হতে পারে আইপিএল আগে বন্ধ হলেই ভালো হত। কিন্তু মুম্বাই এবং চেন্নাইয়ে কেউ আক্রান্ত হয়নি। দিল্লি এবং আহমেদাবাদের খেলা হওয়ার পরেই এই ঘটনা ঘটেছে। লোকে অনেক কথাই বলবে। কিন্তু ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দিকে দেখুন। ওদেরও অনেকে আক্রান্ত হয়েছে। কিন্তু ওরা ম্যাচ পিছিয়ে পরে আয়োজন করেছে। আইপিএলে সেটা সম্ভব নয়। সাত দিনের জন্য খেলা বন্ধ রাখলেই ক্রিকেটাররা দেশে ফিরে যাবে। 

ভারতীয় সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেছেন, যদি কেউ আক্রান্ত না হত তাহলে আমরা প্রতিযোগিতা চালিয়ে যেতাম। ক্রিকেটাররা জৈব সুরক্ষা বলয়ে ছিল এবং মাঠে কোনও দর্শক ঢুকতে দেওয়া হচ্ছিল না। কোনও ক্রিকেটারও আক্রান্ত হয়নি। ওরা আক্রান্ত হতেই আমরা আইপিএল বন্ধ করে দেই। তবে চলমান অন্যান্য লিগগুলোর দিকে তাকিয়ে দেখুন, অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। তার পরও প্রতিযোগিতা বন্ধ নেই। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২১