‘আইপিএল থেকে এক বছর টাকা না কামালে কী এমন ক্ষতি হবে?’
jugantor
‘আইপিএল থেকে এক বছর টাকা না কামালে কী এমন ক্ষতি হবে?’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১০ মে ২০২১, ১৮:১১:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

মহামারি করোনায় ভারতে প্রতিদিন তিন লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। মারা যাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে আইপিএল বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ছিলেন পাকিস্তানের সাবেক তারকা ক্রিকেটার শোয়েব আখতার।

করোনার সুরক্ষা বলয়ে থেকেও ক্রিকেটাররা আক্রান্ত হওয়ায় মাঝ পথেই বন্ধ হয়ে যায় আইপিএল।

আইপিএল বন্ধ হওয়ার পর ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুত গতির পেসার শোয়েব আখতার বলেছেন, সপ্তাহ দু-এক আগে আমি যখন আইপিএল বন্ধ করার কথা বলেছিলাম, তার পিছনে একটা আবেগ ছিল। ভারতে এখন জাতীয় বিপর্যয় চলছে। প্রতিদিন ৪-৫ লক্ষ লোক করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। এটা টেস্ট রিপোর্ট দেখে জানা যাচ্ছে। কত লোক এর বাইরেও রয়েছেন, যাদের পরীক্ষা করা হয়নি। ১০-১২ হাজার লোক মারা যাচ্ছেন প্রতিদিন। এই অবস্থায় আইপিএলের তামাশা চালিয়ে যাওয়া উচিত নয়।

তিনি আরও বলেন, লোকে টাকা কামালে তাতে আমার কোনও সমস্যা নেই। তবে ২০০৮ থেকে তো টাকা কামিয়ে আসছেন! এক বছর টাকা না কামালে বা না খেললে কী এমন ক্ষতি হয়ে যাবে? এত লোক মারা যাচ্ছে, তার মাঝে এমন তামাশা না চালালেই নয়? যে কারণে প্রতিবেশি হিসেবে বলেছিলাম এই মুহূর্তে আইপিএল চালু রাখা মোটেও উচিত নয়।

পাকিস্তানের সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার আরও বলেছেন, আমরা পিএসএলের জন্য জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করেছিলাম, পুরো ফ্লপ ছিল। ভারতও চেষ্টা করে দেখেছে তাঁরাও ব্যর্থ হয়েছে। দুবাই-ইংল্যান্ডের মতো দেশে জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করা যায় কারণ সেখানকার নিয়ম-কানুন আলাদা। কিন্তু আমাদের এখানে? হোটেলের একজন কর্মী কী জৈব সুরক্ষার বলয়ে থাকে? সে কোথায় থেকে আসে? কাজেই এসব ভারত কিংবা পাকিস্তানে ফ্লপ।

‘আইপিএল থেকে এক বছর টাকা না কামালে কী এমন ক্ষতি হবে?’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১০ মে ২০২১, ০৬:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মহামারি করোনায় ভারতে প্রতিদিন তিন লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। মারা যাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে আইপিএল বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ছিলেন পাকিস্তানের সাবেক তারকা ক্রিকেটার শোয়েব আখতার। 

করোনার সুরক্ষা বলয়ে থেকেও ক্রিকেটাররা আক্রান্ত হওয়ায় মাঝ পথেই বন্ধ হয়ে যায় আইপিএল। 

আইপিএল বন্ধ হওয়ার পর ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুত গতির পেসার শোয়েব আখতার বলেছেন, সপ্তাহ দু-এক আগে আমি যখন আইপিএল বন্ধ করার কথা বলেছিলাম, তার পিছনে একটা আবেগ ছিল। ভারতে এখন জাতীয় বিপর্যয় চলছে। প্রতিদিন ৪-৫ লক্ষ লোক করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। এটা টেস্ট রিপোর্ট দেখে জানা যাচ্ছে। কত লোক এর বাইরেও রয়েছেন, যাদের পরীক্ষা করা হয়নি। ১০-১২ হাজার লোক মারা যাচ্ছেন প্রতিদিন। এই অবস্থায় আইপিএলের তামাশা চালিয়ে যাওয়া উচিত নয়।

তিনি আরও বলেন, লোকে টাকা কামালে তাতে আমার কোনও সমস্যা নেই। তবে ২০০৮ থেকে তো টাকা কামিয়ে আসছেন! এক বছর টাকা না কামালে বা না খেললে কী এমন ক্ষতি হয়ে যাবে? এত লোক মারা যাচ্ছে, তার মাঝে এমন তামাশা না চালালেই নয়? যে কারণে প্রতিবেশি হিসেবে বলেছিলাম এই মুহূর্তে আইপিএল চালু রাখা মোটেও উচিত নয়।

পাকিস্তানের সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার আরও বলেছেন, আমরা পিএসএলের জন্য জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করেছিলাম, পুরো ফ্লপ ছিল। ভারতও চেষ্টা করে দেখেছে তাঁরাও ব্যর্থ হয়েছে। দুবাই-ইংল্যান্ডের মতো দেশে জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করা যায় কারণ সেখানকার নিয়ম-কানুন আলাদা। কিন্তু আমাদের এখানে? হোটেলের একজন কর্মী কী জৈব সুরক্ষার বলয়ে থাকে? সে কোথায় থেকে আসে? কাজেই এসব ভারত কিংবা পাকিস্তানে ফ্লপ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০২১