ঢাকায় থেকেও বোনের বিয়েতে যেতে পারেননি মোস্তাফিজ, মা-বাবার মন খারাপ
jugantor
ঢাকায় থেকেও বোনের বিয়েতে যেতে পারেননি মোস্তাফিজ, মা-বাবার মন খারাপ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৪ মে ২০২১, ১৮:১৪:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকায় থেকেও বোনের বিয়েতে যেতে পারেননি মুস্তাফিজ, মা-বাবার মন খারাপ

ক্রিকেটার মোস্তাফিজ খেলা না থাকলে সাতক্ষীরায় গ্রামের বাড়িতে থাকতেই পছন্দ করেন। গ্রাম-প্রকৃতি ও পরিবার বেশ টানে তাকে। সেই ক্রিকেটারই কিনা বোনের বিয়েতে থাকতে পারলেন না।

মুস্তাফিজুর রহমানের ঘনিষ্ট বন্ধু হাফিজুর রহমান হাফিজ গণমাধ্যমকে জানান, মোস্তাফিজের ছোটবোনের বিয়ে হয়েছে বৃহস্পতিবার রাতে। বোনের বিয়েতেও থাকতে পারেনি মোস্তাফিজ।

হাফিজুর রহমান আরো জানান, মুস্তাফিজ বিয়েতে না আসায় তার বাবা-মায়ের মন খারাপ। বাড়িতে কোনো আনন্দ নেই। ঈদের আনন্দও নেই। মুস্তাফিজের মা, বাবা, ভাই-বোনসহ সকলের মন খুব খারাপ।

কাটার মাস্টার খ্যাত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সিমার মোস্তাফিজ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ খেলতে ভারত গিয়েছিলেন। দেশটি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে। যোগ হয়েছে করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট। এমতাবস্থায় বন্ধ হয়ে যায় আইপিএল।

স্ত্রীকে নিয়ে বিশেষ ফ্লাইটে ঢাকায় ফেরেন মোস্তাফিজ। এরপর থেকে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন মোস্তাফিজ। করোনার হটস্পট ভারত থেকে আসায় তাদের কোয়ারেন্টিনের বিষয়ে ছাড় দিতে নারাজ বাংলাদেশ সরকার। এজন্য ঢাকায় হোটেলবন্দি ঈদ কাটাতে হচ্ছে তাকে। সঙ্গে আছেন স্ত্রী। ৬ মে থেকে কোয়ারেন্টিনে আছেন এই বাঁহাতি পেসার।

মোস্তাফিজ বাড়ি না ফেরায় পরিবারে ঈদ আনন্দ বিসর্জনে গেছে। কোয়ারেন্টিনের কারণে বোনের বিয়েতেও থাকতে পারেননি টাইগার পেসার।

মুস্তাফিজকে মুস্তাফিজ করে গড়ে তোলার কারিগর তার ভাই মোখলেছুর রহমান। সেই মোখলেছুর জানান, মোস্তাফিজ বাড়িতে থাকলে সবার মাঝে আনন্দের মাত্রা বেড়ে যায়। এলাকার মানুষও মোস্তাফিজকে নিয়ে আনন্দে মেতে উঠে। তবে এ বছর ঈদে সে বাড়িতে নেই। বাড়ির সবার মন স্বাভাবিক ভাবেই একটু খারাপ। তবে বাস্তবতা মেনে নিতে হবে। মোবাইলে কথা বলে সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে। দোয়া চেয়েছে।

ঢাকায় থেকেও বোনের বিয়েতে যেতে পারেননি মোস্তাফিজ, মা-বাবার মন খারাপ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৪ মে ২০২১, ০৬:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ঢাকায় থেকেও বোনের বিয়েতে যেতে পারেননি মুস্তাফিজ, মা-বাবার মন খারাপ
সস্ত্রীক মোস্তাফিজুর রহমান। ছবি: সংগৃহীত

ক্রিকেটার মোস্তাফিজ খেলা না থাকলে সাতক্ষীরায় গ্রামের বাড়িতে থাকতেই পছন্দ করেন। গ্রাম-প্রকৃতি ও পরিবার বেশ টানে তাকে। সেই ক্রিকেটারই কিনা বোনের বিয়েতে থাকতে পারলেন না।

মুস্তাফিজুর রহমানের ঘনিষ্ট বন্ধু হাফিজুর রহমান হাফিজ গণমাধ্যমকে জানান, মোস্তাফিজের ছোটবোনের বিয়ে হয়েছে বৃহস্পতিবার রাতে। বোনের বিয়েতেও থাকতে পারেনি মোস্তাফিজ।

হাফিজুর রহমান আরো জানান, মুস্তাফিজ বিয়েতে না আসায় তার বাবা-মায়ের মন খারাপ।  বাড়িতে কোনো আনন্দ নেই। ঈদের আনন্দও নেই। মুস্তাফিজের মা, বাবা, ভাই-বোনসহ সকলের মন খুব খারাপ।  

কাটার মাস্টার খ্যাত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সিমার মোস্তাফিজ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ খেলতে ভারত গিয়েছিলেন। দেশটি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে। যোগ হয়েছে করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট। এমতাবস্থায় বন্ধ হয়ে যায় আইপিএল। 

স্ত্রীকে নিয়ে বিশেষ ফ্লাইটে ঢাকায় ফেরেন মোস্তাফিজ। এরপর থেকে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন মোস্তাফিজ। করোনার হটস্পট ভারত থেকে আসায় তাদের কোয়ারেন্টিনের বিষয়ে ছাড় দিতে নারাজ বাংলাদেশ সরকার। এজন্য ঢাকায় হোটেলবন্দি ঈদ কাটাতে হচ্ছে তাকে। সঙ্গে আছেন স্ত্রী। ৬ মে থেকে কোয়ারেন্টিনে আছেন এই বাঁহাতি পেসার।

মোস্তাফিজ বাড়ি না ফেরায় পরিবারে ঈদ আনন্দ বিসর্জনে গেছে। কোয়ারেন্টিনের কারণে বোনের বিয়েতেও থাকতে পারেননি টাইগার পেসার।

মুস্তাফিজকে মুস্তাফিজ করে গড়ে তোলার কারিগর তার ভাই মোখলেছুর রহমান। সেই মোখলেছুর জানান, মোস্তাফিজ বাড়িতে থাকলে সবার মাঝে আনন্দের মাত্রা বেড়ে যায়। এলাকার মানুষও মোস্তাফিজকে নিয়ে আনন্দে মেতে উঠে। তবে এ বছর ঈদে সে বাড়িতে নেই। বাড়ির সবার মন স্বাভাবিক ভাবেই একটু খারাপ। তবে বাস্তবতা মেনে নিতে হবে। মোবাইলে কথা বলে সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে। দোয়া চেয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস