ঈদে বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে আড্ডা মিস করেছেন আসিফ
jugantor
ঈদে বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে আড্ডা মিস করেছেন আসিফ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৪ মে ২০২১, ২৩:২১:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আসিফ হোসেন খান, নামটি সবারই পরিচিত। বিভিন্ন সময় দেশের পতাকা বিশ্বের বুকে উঁচিয়ে ধরেছেন আন্তর্জাতিক শুটিংয়ে সাফল্য অর্জন করে।

২০০২ সালে কমনওয়েলথ গেমসে ইংল্যান্ডের আকাশে লাল সবুজের পতাকা উঁচিয়ে গোটা বিশ্বের সমীহ আদায় করে নিয়েছিলে আসিফ হোসেন খান। প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ইভেন্টে অংশ নিয়েই ভারতকে পেছনে ফেলে স্বর্ণপদক এনে দিয়েছিলেন বাংলাদেশকে।

২০০৬ সালে সাফ গেমসেও আসিফের অর্জন ছিল স্বর্ণপদক। এরপর বারবারই ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে নিজেকে মেলে ধরার চেষ্টা করেছেন আসিফ। তবে পরিবেশ পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকায় শুটিং ক্যারিয়ারে বেশি দূরে আগাতে পারেননি তিনি। তবে বাংলাদেশের প্রথম বিশ্ব তারকা আসিফ হোসেন খানই।

আসিফ হোসেন খান এখন দায়িত্ব পালন করছেন বিকেএসপির শুটিং কোচ হিসেবে। অন্য তারকাদের মত এবার আসিফের ঈদও কেটেছে ঘরেই, পাবনায় যাওয়া হয়নি তার। বাবা মাই বিকেএসপিতে চলে এসেছেন ছেলের সঙ্গে ঈদ করতে। তাই সাভারের বাইরে কোথাও যাওয়া হয়নি আসিফের। সকাল থেকে পরিবারের সঙ্গেই থেকেছেন। বিকেএসপিতেই ঘুরেছেন বাচ্চাদের নিয়ে।

আসিফ যমুনা নিউজকে বলেন, প্রতিবার পাবনায় যাই ঈদ করতে, বন্ধু বান্ধবের সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা হয়। কিন্তু এবার আর তা হলো না। তারপরও খুব ভালো কেটেছে দিনটা। তবে বন্ধু বান্ধবকে খুব বেশি মিস করেছি। ঘরে ছোট ছেলে মেয়ে থাকায় ঢাকায় পর্যন্ত যাইনি। শুধু দোয়া করছি দ্রুতই যেন করোনা থেকে মুক্তি পায় বিশ্ব।

ক্রীড়া অঙ্গনসহ দেশের সব মানুষকে জানিয়েছেন ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আসিফ হোসেন খান। একইসঙ্গে করোনা থেকে পরিবারের সদস্যদের মুক্ত রাখতে সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

ঈদে বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে আড্ডা মিস করেছেন আসিফ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৪ মে ২০২১, ১১:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আসিফ হোসেন খান, নামটি সবারই পরিচিত। বিভিন্ন সময় দেশের পতাকা বিশ্বের বুকে উঁচিয়ে ধরেছেন আন্তর্জাতিক শুটিংয়ে সাফল্য অর্জন করে। 

২০০২ সালে কমনওয়েলথ গেমসে ইংল্যান্ডের আকাশে লাল সবুজের পতাকা উঁচিয়ে গোটা বিশ্বের সমীহ আদায় করে নিয়েছিলে আসিফ হোসেন খান। প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ইভেন্টে অংশ নিয়েই ভারতকে পেছনে ফেলে স্বর্ণপদক এনে দিয়েছিলেন বাংলাদেশকে।

২০০৬ সালে সাফ গেমসেও আসিফের অর্জন ছিল স্বর্ণপদক। এরপর বারবারই ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে নিজেকে মেলে ধরার চেষ্টা করেছেন আসিফ। তবে পরিবেশ পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকায় শুটিং ক্যারিয়ারে বেশি দূরে আগাতে পারেননি তিনি। তবে বাংলাদেশের প্রথম বিশ্ব তারকা আসিফ হোসেন খানই। 

আসিফ হোসেন খান এখন দায়িত্ব পালন করছেন বিকেএসপির শুটিং কোচ হিসেবে। অন্য তারকাদের মত এবার আসিফের ঈদও কেটেছে ঘরেই, পাবনায় যাওয়া হয়নি তার। বাবা মাই বিকেএসপিতে চলে এসেছেন ছেলের সঙ্গে ঈদ করতে। তাই সাভারের বাইরে কোথাও যাওয়া হয়নি আসিফের। সকাল থেকে পরিবারের সঙ্গেই থেকেছেন। বিকেএসপিতেই ঘুরেছেন বাচ্চাদের নিয়ে।

আসিফ যমুনা নিউজকে বলেন, প্রতিবার পাবনায় যাই ঈদ করতে, বন্ধু বান্ধবের সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা হয়। কিন্তু এবার আর তা হলো না। তারপরও খুব ভালো কেটেছে দিনটা। তবে বন্ধু বান্ধবকে খুব বেশি মিস করেছি। ঘরে ছোট ছেলে মেয়ে থাকায় ঢাকায় পর্যন্ত যাইনি। শুধু দোয়া করছি দ্রুতই যেন করোনা থেকে মুক্তি পায় বিশ্ব।

ক্রীড়া অঙ্গনসহ দেশের সব মানুষকে জানিয়েছেন ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আসিফ হোসেন খান। একইসঙ্গে করোনা থেকে পরিবারের সদস্যদের মুক্ত রাখতে সতর্কতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন