আফ্রিদিকে ব্যাট দিয়ে মেরেছিলেন শোয়েব! কী ঘটেছিল সেদিন?
jugantor
আফ্রিদিকে ব্যাট দিয়ে মেরেছিলেন শোয়েব! কী ঘটেছিল সেদিন?

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৬ মে ২০২১, ০০:১৯:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার একবার তার সে সময়ের জ্যেষ্ঠ সতীর্থ অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদিকে ব্যাট দিয়ে বাড়ি মেরেছিলেন। কোনোভাবে সরে গিয়ে ব্যাটের আঘাত থেকে বাঁচেন আফ্রিদি।

ঘটনাটি ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। ড্রেসিংরুমে ঘটে যাওয়া সেই ঘটনার কথা অনেকে হয়ত জানেন না। তবে সে সময় এ নিয়ে পাক ক্রিকেটে তুমুল বির্তক ছড়ায়। কারণ সেই ঘটনায় শাস্তি হিসেবে পরের ম্যাচগুলো না খেলিয়ে শোয়েবকে দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেয় পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট। পাক সমর্থকসহ বিশ্বক্রিকেটে বিস্ময় সৃষ্টি করে ঘটনাটি।

সম্প্রতি পাকিস্তানের গণমাধ্যম সামা ডট টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সেই ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন।

কী কারণে শোয়েব আখতার অমন বাজে ব্যবহার করেছিলেন সে কথাও বলেন।

প্রসঙ্গটির শুরুটা অবশ্য সামা টিভির সঞ্চালকের।

তিনি আফ্রিদিকের প্রশ্ন করেন, শোয়েব আখতারকে কেমন মানুষ মনে হয় আপনার?

জবাবে সাবেক অলরাউন্ডার একবাক্যেই বলেন, শোয়েব আখতার খুব ভালো মনের মানুষ। কিন্তু......

একটা ‘কিন্তু’ যোগ করে দেওয়াতে রহস্য ও আকর্ষণ দুটোই বাড়িয়ে দেন আফ্রিদি।

মূলত ‘কিন্তু’ শব্দ দিয়ে ২০০৭ সালের সেই বিতর্কিত ঘটনার কথাটাই সামনে নিয়ে এলেন বুমবুম আফ্রিদি।

তিনি বলেন, ‘অনেক ঘটনা আসলে একদিক থেকে যেতে যেতে হঠাৎ ঘটে যায়। আমরা একটা বিষয় নিয়ে মজা করছিলাম। আসিফ (পেসার) সেখানে আমার পক্ষ নেয়। শোয়েব তখন রেগে যায় আর এটা-ওটা হতে হতে অমন একটা ঘটনা ঘটে গেছে।’

এমন ঘটনার পরও শোয়েবকে অবশ্য বদমেজাজি বলতে রাজি নন আফ্রিদি।

সতীর্থ শোয়েবকে ভালো মানুষ হিসেবেই জানেন সাবেক পাক অধিনায়ক। বললেন, ‘আমার কথা হচ্ছে শোয়েবের সুন্দর একটা হৃদয় আছে।’

আসলে কী ঘটেছিল সেদিন? শোয়েব আখতার তার আত্মজীবনী ‘কন্ট্রোভার্সিয়ালি ইওর্স’-এ খুব ভালোভাবেই বর্ণনা করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, ঝগড়াটা আফ্রিদির সঙ্গে নয়, হয়েছিল আরেক সাবেক পেসার মোহাম্মদ আসিফের সঙ্গে।

কিন্তু ঝগড়াটা অমন বাজে পর্যায়ে যাওয়ার জন্য সেখানে শহীদ আফ্রিদিকেই দায়ী করেছেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস।

তিনি লিখেছেন, ‘আফ্রিদি পরিস্থিতিটাকে আরও চরমে নিয়ে গিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত অবস্থা এমন পর্যায়ে গিয়েছিল যে আমি তাদের দুজনকেই ব্যাট দিয়ে বাড়ি দিই। আফ্রিদি কোনোভাবে সরে যেতে পেরেছে। কিন্তু আসিফ পারেনি। ব্যাটটি গিয়ে আসিফের ঊরুতে আঘাত করে। সে মাটিতে পড়ে যায়। ’

শোয়েব আরো লিখেছেন, ‘আমি আসলে মেজাজ হারিয়ে ফেলেছিলাম। এমন আচরণ আমি কখনোই এর আগে করিনি। বিশেষ করে ড্রেসিংরুমে তো নয়ই।’

আফ্রিদিকে ব্যাট দিয়ে মেরেছিলেন শোয়েব! কী ঘটেছিল সেদিন?

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৬ মে ২০২১, ১২:১৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার একবার তার সে সময়ের জ্যেষ্ঠ সতীর্থ অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদিকে ব্যাট দিয়ে বাড়ি মেরেছিলেন। কোনোভাবে সরে গিয়ে ব্যাটের আঘাত থেকে বাঁচেন আফ্রিদি।

ঘটনাটি ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। ড্রেসিংরুমে ঘটে যাওয়া সেই ঘটনার কথা অনেকে হয়ত জানেন না। তবে সে সময় এ নিয়ে পাক ক্রিকেটে তুমুল বির্তক ছড়ায়। কারণ সেই ঘটনায় শাস্তি হিসেবে পরের ম্যাচগুলো না খেলিয়ে শোয়েবকে দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেয় পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট। পাক সমর্থকসহ বিশ্বক্রিকেটে বিস্ময় সৃষ্টি করে ঘটনাটি।  

সম্প্রতি পাকিস্তানের গণমাধ্যম সামা ডট টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সেই ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন।

কী কারণে শোয়েব আখতার অমন বাজে ব্যবহার করেছিলেন সে কথাও বলেন।

প্রসঙ্গটির শুরুটা অবশ্য সামা টিভির সঞ্চালকের। 

তিনি আফ্রিদিকের প্রশ্ন করেন, শোয়েব আখতারকে কেমন মানুষ মনে হয় আপনার?

জবাবে সাবেক অলরাউন্ডার একবাক্যেই বলেন, শোয়েব আখতার খুব ভালো মনের মানুষ। কিন্তু......

একটা ‘কিন্তু’ যোগ করে দেওয়াতে রহস্য ও আকর্ষণ দুটোই বাড়িয়ে দেন আফ্রিদি।

মূলত ‘কিন্তু’ শব্দ দিয়ে ২০০৭ সালের সেই বিতর্কিত ঘটনার কথাটাই সামনে নিয়ে এলেন বুমবুম আফ্রিদি।

তিনি বলেন, ‘অনেক ঘটনা আসলে একদিক থেকে যেতে যেতে হঠাৎ ঘটে যায়। আমরা একটা বিষয় নিয়ে মজা করছিলাম। আসিফ (পেসার) সেখানে আমার পক্ষ নেয়। শোয়েব তখন রেগে যায় আর এটা-ওটা হতে হতে অমন একটা ঘটনা ঘটে গেছে।’ 

এমন ঘটনার পরও শোয়েবকে অবশ্য বদমেজাজি বলতে রাজি নন আফ্রিদি।

সতীর্থ শোয়েবকে ভালো মানুষ হিসেবেই জানেন সাবেক পাক অধিনায়ক। বললেন, ‘আমার কথা হচ্ছে শোয়েবের সুন্দর একটা হৃদয় আছে।’

আসলে কী ঘটেছিল সেদিন? শোয়েব আখতার তার আত্মজীবনী ‘কন্ট্রোভার্সিয়ালি ইওর্স’-এ খুব ভালোভাবেই বর্ণনা করেছেন। 

তিনি জানিয়েছেন, ঝগড়াটা আফ্রিদির সঙ্গে নয়, হয়েছিল আরেক সাবেক পেসার মোহাম্মদ আসিফের সঙ্গে।

কিন্তু ঝগড়াটা অমন বাজে পর্যায়ে যাওয়ার জন্য সেখানে শহীদ আফ্রিদিকেই দায়ী করেছেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস।

তিনি লিখেছেন, ‘আফ্রিদি পরিস্থিতিটাকে আরও চরমে নিয়ে গিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত অবস্থা এমন পর্যায়ে গিয়েছিল যে আমি তাদের দুজনকেই ব্যাট দিয়ে বাড়ি দিই। আফ্রিদি কোনোভাবে সরে যেতে পেরেছে। কিন্তু আসিফ পারেনি। ব্যাটটি গিয়ে আসিফের ঊরুতে আঘাত করে। সে মাটিতে পড়ে যায়। ’

শোয়েব আরো লিখেছেন, ‘আমি আসলে মেজাজ হারিয়ে ফেলেছিলাম। এমন আচরণ আমি কখনোই এর আগে করিনি। বিশেষ করে ড্রেসিংরুমে তো নয়ই।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন