আশার ‘প্রদীপ’ও নিভে গেল
jugantor
আশার ‘প্রদীপ’ও নিভে গেল

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ মে ২০২১, ১৯:১৬:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের পরে বাংলাদেশ দল। সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে মুশফিকুর রহিমের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বিপর্যয় এড়িয়ে খেলায় ফিরে জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ম্যাচে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৪ ও ১২৫ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হন এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান।

শুক্রবার সিরিজের শেষ ম্যাচে শ্রীলংকার করা ২৮৬ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপদে পরে যায় টাইগাররা। ২৮ রানে ফেরেন নাঈম শেখ, সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল।

৯.৩ ওভারে টপঅর্ডার তিন ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর ব্যাকফুটে চলে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরাতে চেষ্টা করেন মুশফিকুর রহিম। তাকে ঘিরেই প্রত্যাশা ছিল আগের দুই ম্যাচের মতোম্যাচে ফেরায়। কিন্তু দলীয় ৮৪ রানে মুশফিক আউট হলে সেই ভরসা ভেস্তে যায়।

ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন তরুণ ওপেনার নাঈম শেখ। এরপর তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ৭ বলে ৪ রান করে ফেরেন এ অলরাউন্ডার। চলতি সিরিজে পুরোপুরি ব্যর্থ সাকিব।

শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম খেলায় শূন্য রানে ফেরেন সাকিব। দ্বিতীয় ম্যাচে টেস্টের মেজাজে ব্যাটিং করেও ফর্মে ফিরতে পারেননি তিনি। ৩৪ বল খেলে মাত্র ১৫ রান করেই ফেরেন সাজঘরে। শুক্রবার তৃতীয় ও সিরিজের শেষ ম্যাচে আউট হলেন মাত্র ৪ রান। তিন ম্যাচে সাকিবের সংগ্রহ মাত্র ১৯ রান।

দলীয় ২৮ রানে আম্পায়ারের ভুল কলে আউট হন তামিম ইকবাল। খালি চোখে দেখে মনে হয়েছে বলটি তামিম ইকবালের ব্যাটে লাগেনি। হয়তো তামিমের ব্যাট মাটিতে আঘাত করার শব্দ পেয়েই উইকেটকিপার আউটের আবেদন জানান। সঙ্গে সঙ্গে আঙ্গুল তুলে দেন শরফুদ্দৌলা ইবনে সৈকত রিভিউ নিয়েও সফল হননি তামিম। ২৯ বলে ১৭ রান করে ফেরেন এ ওপেনার।

দলীয় ৮৪ রানে ৫৪ বলে ২৮ রান করে আউট হন মুশফিকুর রহিম। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ২৮ওভারে খেলা শেষে১০৯/৪ রান। জয়ের জন্য ২২ওভারে আরও ১৭৮রান করতে হবে টাইগারদের।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে অধিনায়ক কুশল পেরেরার সেঞ্চুরি (১২০) ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ফিফটির (৫৫) সুবাদে ৬ উইকেটে ২৮৬ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে শ্রীলংকা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলংকা: ৫০ ওভারে ২৮৬/৬ (কুশল পেরেরা ১২০, ডি সিলভা ৫৫, গুনাথিলাকা ৩৯, কুশল মেন্ডিস ২২; তাসকিন ৪/৪৬)।

আশার ‘প্রদীপ’ও নিভে গেল

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ মে ২০২১, ০৭:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচেই  ব্যাটিং বিপর্যয়ের পরে বাংলাদেশ দল। সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে মুশফিকুর রহিমের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে বিপর্যয় এড়িয়ে খেলায় ফিরে জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ম্যাচে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৮৪ ও ১২৫ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হন এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। 

শুক্রবার সিরিজের শেষ ম্যাচে শ্রীলংকার করা ২৮৬ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপদে পরে যায় টাইগাররা। ২৮ রানে ফেরেন নাঈম শেখ, সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। 

৯.৩ ওভারে টপঅর্ডার তিন ব্যাটসম্যানের বিদায়ের পর ব্যাকফুটে চলে যাওয়া দলকে খেলায় ফেরাতে চেষ্টা করেন মুশফিকুর রহিম। তাকে ঘিরেই প্রত্যাশা ছিল আগের দুই ম্যাচের মতো ম্যাচে ফেরায়। কিন্তু দলীয় ৮৪ রানে মুশফিক আউট হলে সেই ভরসা ভেস্তে যায়। 

ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন তরুণ ওপেনার নাঈম শেখ। এরপর তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ৭ বলে ৪ রান করে ফেরেন এ অলরাউন্ডার। চলতি সিরিজে পুরোপুরি ব্যর্থ সাকিব।

শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম খেলায় শূন্য রানে ফেরেন সাকিব। দ্বিতীয় ম্যাচে টেস্টের মেজাজে ব্যাটিং করেও ফর্মে ফিরতে পারেননি তিনি। ৩৪ বল খেলে মাত্র ১৫ রান করেই ফেরেন সাজঘরে। শুক্রবার তৃতীয় ও সিরিজের শেষ ম্যাচে আউট হলেন মাত্র ৪ রান। তিন ম্যাচে সাকিবের সংগ্রহ মাত্র ১৯ রান। 

দলীয় ২৮ রানে আম্পায়ারের ভুল কলে আউট হন তামিম ইকবাল। খালি চোখে দেখে মনে হয়েছে বলটি তামিম ইকবালের ব্যাটে লাগেনি। হয়তো তামিমের ব্যাট মাটিতে আঘাত করার শব্দ পেয়েই উইকেটকিপার আউটের আবেদন জানান। সঙ্গে সঙ্গে আঙ্গুল তুলে দেন শরফুদ্দৌলা ইবনে সৈকত রিভিউ নিয়েও সফল হননি তামিম। ২৯ বলে ১৭ রান করে ফেরেন এ ওপেনার।

দলীয় ৮৪ রানে ৫৪ বলে ২৮ রান করে আউট হন মুশফিকুর রহিম। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ২৮ ওভারে খেলা শেষে ১০৯/৪ রান। জয়ের জন্য ২২ ওভারে আরও ১৭৮ রান করতে হবে টাইগারদের।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে  নেমে অধিনায়ক কুশল পেরেরার সেঞ্চুরি (১২০) ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ফিফটির (৫৫) সুবাদে ৬ উইকেটে ২৮৬ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে শ্রীলংকা। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলংকা: ৫০ ওভারে ২৮৬/৬ (কুশল পেরেরা ১২০, ডি সিলভা ৫৫, গুনাথিলাকা ৩৯, কুশল মেন্ডিস ২২; তাসকিন ৪/৪৬)।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকা-২০২১