আমার কাজ এটিই, ছক্কা মেরে জেতানোর পর ধোনি

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৩:০১ | অনলাইন সংস্করণ

ধোনি,

আম্বাতি রাইডুকে উমেশ যাদব রানআউট করলে জয়ের স্বপ্ন দেখে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। একরকম ম্যাচটা তাদের দিকেই হেলে যায়। পরে তাদের মুঠো থেকে ম্যাচটি বের করে নেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। অতিমানবীয় এক ইনিংস খেলে চেন্নাই সুপার কিংসকে রোমাঞ্চকর জয় উপহার দেন তিনি।

ধোনির সেই ইনিংস নিয়ে এখন চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। কারণ তাতে যে ম্লান হয়ে গেছে এবি ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ো ৬৮ রান। ইনিংসটিকে অনেকে অনেকভাবে ব্যাখ্যা দিচ্ছেন। তা নিয়ে নিজের অভিমত জানিয়েছেন ধোনিও, একজন ফিনিশারের দায়িত্ব শেষ পর্যন্ত ক্রিজে থাকা। তাতে জয় বা হার হোক। সেই কাজটিই করেছি।

কুইন্টন ডি ককের ৫৩ ও ভিলিয়ার্সের বিস্ফোরক ইনিংসে প্রথমে ব্যাট করে ২০৫ রানের পাহাড় গড়ে বেঙ্গালুরু। তা চেজ করতে গিয়ে শেষদিকে জমে ওঠে ম্যাচ। জয়ের জন্য শেষ ৩ বলে দরকার ছিল ৫ রান। সেই অবস্থায় কোরি অ্যান্ডারসনকে সপাটে ব্যাট চালিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জয় উপহার দেন ধোনি। তার অনবদ্য ব্যাটিংয়ে আরেকটি রুদ্ধশ্বাস জয় পায় চেন্নাই। মাত্র ৩৪ বলে অপরাজিত ৭০ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন ধোনি।

এ জয়ে ভূমিকা রেখেছেন রাইডুও। তার ব্যাট থেকে আসে গুরুত্বপূর্ণ ৮২ রান। এ ব্যাটারের প্রশংসা করতেও ভুল করেননি ধোনি, এবির ইনিংস দেখেই মনে হয়েছিল, আমরা কিছু রান বেশি দিয়ে ফেলেছি। রাইডু অসাধারণ খেলেছে। টি-টোয়েন্টির জন্য ও আদর্শ ক্রিকেটার। আমাদের ব্যাটিং লাইনে ওর উপস্থিতি শক্তিমত্তা বাড়িয়েছে।

দুজনের সুবাদে জিতলেও ম্যাচসেরার পুরস্কার উঠেছে ধোনির হাতে।

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter