‘কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি’ (ভিডিও)
jugantor
‘কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি’ (ভিডিও)

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৫ জুন ২০২১, ২৩:৫০:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দুই ম্যাচের মতোই কোপা আমেরিকায় নিজেদের প্রথম একই ভাগ্য বরণ করেছে আর্জেন্টিনা।

শেষ দুই ম্যাচের মতো মঙ্গলবার রিও দে জেনেইরোর নিল্তন সান্তোসেও চিলির বিপক্ষে ড্র করেছে আকাশি-সাদার দল।

কিন্তু বিশ্বকাপ বাছাইয়ের মতো কোপায়ও দুর্দান্ত জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল ব্রাজিল। নেইমারের জাদুতে ভেনিজুয়েলাকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে সেলেকাওরা।

মঙ্গলবার ভোরে কোপা আমেরিকায় ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে চিলির বিপক্ষে আর্জন্টিনার ম্যাচ শেষেই শুরু হয় দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে ব্যাঙ্গতক সব পোস্ট। এ নিয়েসোশ্যাল মিডিয়ায়তোলপাড় চলছে।

মঙ্গলবার সারাদিনই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল বেশকিছু ভিডিও, মিম। ট্রলে মেতেছে নেটিজেনরা। দিনভর দুই দলের সমর্থকরা একে অপরের টাইমলাইনে গিয়ে খোঁচা দিয়ে গেছেন।

সেই ম্যাচে মেসির অসাধারণ ফ্রি-কিকের গোলের ভিডিও কেউ আপলোড করলে বা তার স্তুতি গাইলে সেই পোস্টের নিচে ব্রাজিল সমর্থকরা কমেন্ট করে আসছেন, মেসি একা কী করবে?

এরইমধ্যে ভাইরাল হয়েছে বেশ কিছু মিম। যেখানে গত কয়েকমাস ধরে ভাইরাল কাকলী ফার্নিচারের সেই বিজ্ঞাপনের সংলাপ ব্যবহার করছেন। তবে একটু এডিট করে।

আর্জেন্টিনা দলের ছবির নিচে এডিট করে লেখা হয়েছে - কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি।

এমন বক্তব্য লিখে মূলত ব্রাজিল সমর্থকরা এই বলে খোঁচা মেরেছেন যে, বাংলাদেশে আর্জেন্টিনার সমর্থনে যে উত্তেজনা চলে এবয মেসি, ডি মারিয়াদের নিয়ে যত প্রশংসার ফুলঝুড়ি দেখা যায়, মাঠের পারফরম্যান্স তা বলে না। দলটি সেভাবে ম্যাচ জেতে না।

এমন মিম দেখে ছেড়ে কথা বলেননি আর্জেন্টিনা সমর্থকরা। তারাও পাল্টা মিম বানিয়েছেন।

ব্রাজিল দলের ছবির নিচে তারা এডিট করে লিখেছেন - কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি।

তারা মূলত দলটির পোস্টার বয় নেইমারের বিষয়টি টেনে এনেছেন। সম্প্রতি ব্রাজিল ট্রান জয় লাভ করলেও দলের সেরা তারকা নেইমার আহত হওয়ার অভিনয় বেশি করেন। যা গত বিশ্বকাপ থেকেই দেখা যাচ্ছে। এ নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও অনেক প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে বেশকিছু।

এরইমধ্যে ভাইরাল হয়েছে ফুটবলপ্রিয় ব্যক্তিত্ব হাইকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের পুরনো একটি ভিডিও।

যেখানে তাকে জনসমক্ষে বলতে দেখা যায়, এই অ্যাকাডেমি বানানো হয়েছে ফুটবল ম্যাচ জেতার জন্য না। ম্যাচ জেতার জন্য, বড় ট্রফি আনার জন্য, বড় অর্জনের জন্য এই ক্লাব আমারা বানাইনি। এখানে আমরা জিততে আসিনি। এই ফুটবল ম্যাচ দেখতে ১ হাজার মানুষ জমায়েত হয়েছেন এখানে। তাদের এক ঘণ্টা আনন্দ যদি তোমারা দিতে পারো এটাই সার্থকতা। আর জেতার ব্যাপারটা মানুষের হাতে না। সয়ং বিধাতা যদি তার কপালে ইজ্জত না দেয়।

অই ভিডিওতে সুমনের বক্তব্য কে আর্জেন্টিনা দলের বলে ট্রলে মেতেছে ব্রাজিল সমর্থকরা। তারা বোঝাতে চাইছেন, কোপায় চিলির সঙ্গে জয়লাভ করতে মাঠে নামেনি আর্জেন্টিনা, ড্র করেই খুশি তারা। কারণ ৯০ মিনিট ধরে ফুটবলবিশ্বকে আনন্দ দিতেই মাঠে নামে মেসির দল আর্জেন্টিনা। জয় পেতে নয়।

এদিকে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে বেশ কিছু অব্যাহতি পত্র। যেখানে দেখা গেছে, আর্জেন্টিনা সমর্থকরা লিখিতভাবে দলটির সমর্থন থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন।

একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গেছে, এক ব্যক্তি বলছেন, আমি মোহাম্মদ আলী সজ্ঞানে ও সইচ্ছায় আর্জেন্টিনা ফুটবল সাপোর্ট থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করছি। আমি আমার পরবর্তী জেনারেশনের আর কেই আর্জেন্টিনা দল সমর্থন করবে না। আপনারা যারা আর্জেন্টিনার সাপোর্ট করছেন সময় থাকতে তারাও নিজেদের ঠিক করে নিন, আর্জেন্টিনা সাপোর্ট প্রত্যাহার করুন।

এরপর দেখা যায় ওই ব্যক্তি একটি প্রত্যাহার পত্রে সই করছেন।

একটি কাওয়ালী গানও ভাইরাল হয়েছে। আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের জার্সি সদৃশ পোশাকে দুই পাশে দুই দল বসেছেন।

গানের কথা কথায়, এক দল আরেক দলকে পরাস্ত করছেন।

ব্রাজিল দল থেকে বলা হচ্ছে, ৩২ বছর ধরে যে দল বিশ্বকাপ যেতে না, কোয়ালিফাই করতে বের হয় পাসি না। গানের মধ্যেই কেউ একজন জিজ্ঞেস করে দলটা কি আর্জেন্টিনা?

তখন গায়ক বলেন, আরে দলের নাম সুধাও কেন? এরপর সামনের আর্জেন্টিনা সাপোর্টারদের ব্যাঙ্গ করে তারা কোরাস গাইতে থাকে - খেইলা গেছে ম্যারাডোনা, রাইখা গেছে ফ্যান। মায়া কইরা যদি একটা কাপ ভিক্ষা দেন।

‘কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি’ (ভিডিও)

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৫ জুন ২০২১, ১১:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দুই ম্যাচের মতোই কোপা আমেরিকায় নিজেদের প্রথম একই ভাগ্য বরণ করেছে আর্জেন্টিনা। 

শেষ দুই ম্যাচের মতো মঙ্গলবার রিও দে জেনেইরোর নিল্তন সান্তোসেও চিলির বিপক্ষে ড্র করেছে আকাশি-সাদার দল।

কিন্তু বিশ্বকাপ বাছাইয়ের মতো কোপায়ও দুর্দান্ত জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দল ব্রাজিল। নেইমারের জাদুতে ভেনিজুয়েলাকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে সেলেকাওরা।

মঙ্গলবার ভোরে কোপা আমেরিকায় ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে চিলির বিপক্ষে আর্জন্টিনার ম্যাচ শেষেই শুরু হয় দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে ব্যাঙ্গতক সব পোস্ট।  এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছে।

মঙ্গলবার সারাদিনই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল বেশকিছু ভিডিও, মিম। ট্রলে মেতেছে নেটিজেনরা। দিনভর দুই দলের সমর্থকরা একে অপরের টাইমলাইনে গিয়ে খোঁচা দিয়ে গেছেন।

সেই ম্যাচে মেসির অসাধারণ ফ্রি-কিকের গোলের ভিডিও কেউ আপলোড করলে বা তার স্তুতি গাইলে সেই পোস্টের নিচে ব্রাজিল সমর্থকরা কমেন্ট করে আসছেন, মেসি একা কী করবে?

এরইমধ্যে ভাইরাল হয়েছে বেশ কিছু মিম। যেখানে গত কয়েকমাস ধরে ভাইরাল কাকলী ফার্নিচারের সেই বিজ্ঞাপনের সংলাপ ব্যবহার করছেন। তবে একটু এডিট করে।

আর্জেন্টিনা দলের ছবির নিচে এডিট করে লেখা হয়েছে - কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি।

এমন বক্তব্য লিখে মূলত ব্রাজিল সমর্থকরা এই বলে খোঁচা মেরেছেন যে, বাংলাদেশে আর্জেন্টিনার সমর্থনে যে উত্তেজনা চলে এবয মেসি, ডি মারিয়াদের নিয়ে যত প্রশংসার ফুলঝুড়ি দেখা যায়, মাঠের পারফরম্যান্স তা বলে না। দলটি সেভাবে ম্যাচ জেতে না।

এমন মিম দেখে ছেড়ে কথা বলেননি আর্জেন্টিনা সমর্থকরা। তারাও পাল্টা মিম বানিয়েছেন।

ব্রাজিল দলের ছবির নিচে তারা এডিট করে লিখেছেন -  কাকলী ফুটবল টিম, জিতে কম গল্প বেশি।

তারা মূলত দলটির পোস্টার বয় নেইমারের বিষয়টি টেনে এনেছেন। সম্প্রতি ব্রাজিল ট্রান জয় লাভ করলেও দলের সেরা তারকা নেইমার আহত হওয়ার অভিনয় বেশি করেন। যা গত বিশ্বকাপ থেকেই দেখা যাচ্ছে। এ নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও অনেক প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে বেশকিছু।

 

এরইমধ্যে ভাইরাল হয়েছে ফুটবলপ্রিয় ব্যক্তিত্ব হাইকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের পুরনো একটি ভিডিও।

যেখানে তাকে জনসমক্ষে বলতে দেখা যায়, এই অ্যাকাডেমি বানানো হয়েছে ফুটবল ম্যাচ জেতার জন্য না। ম্যাচ জেতার জন্য, বড় ট্রফি আনার জন্য, বড় অর্জনের জন্য এই ক্লাব আমারা বানাইনি। এখানে আমরা জিততে আসিনি। এই ফুটবল ম্যাচ দেখতে ১ হাজার মানুষ জমায়েত হয়েছেন এখানে। তাদের এক ঘণ্টা আনন্দ যদি তোমারা দিতে পারো এটাই সার্থকতা। আর জেতার ব্যাপারটা মানুষের হাতে না। সয়ং বিধাতা যদি তার কপালে ইজ্জত না দেয়।

অই ভিডিওতে সুমনের বক্তব্য কে আর্জেন্টিনা দলের বলে ট্রলে মেতেছে ব্রাজিল সমর্থকরা। তারা বোঝাতে চাইছেন, কোপায় চিলির সঙ্গে জয়লাভ করতে মাঠে নামেনি আর্জেন্টিনা, ড্র করেই খুশি তারা। কারণ ৯০ মিনিট ধরে ফুটবলবিশ্বকে আনন্দ দিতেই মাঠে নামে মেসির দল আর্জেন্টিনা। জয় পেতে নয়।

এদিকে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে বেশ কিছু অব্যাহতি পত্র। যেখানে দেখা গেছে, আর্জেন্টিনা সমর্থকরা লিখিতভাবে দলটির সমর্থন থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন।

একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গেছে, এক ব্যক্তি বলছেন, আমি মোহাম্মদ আলী সজ্ঞানে ও সইচ্ছায় আর্জেন্টিনা ফুটবল সাপোর্ট থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করছি। আমি আমার পরবর্তী জেনারেশনের আর কেই আর্জেন্টিনা দল সমর্থন করবে না। আপনারা যারা আর্জেন্টিনার সাপোর্ট করছেন সময় থাকতে তারাও নিজেদের ঠিক করে নিন, আর্জেন্টিনা সাপোর্ট প্রত্যাহার করুন। 

এরপর দেখা যায় ওই ব্যক্তি একটি প্রত্যাহার পত্রে সই করছেন।

 

একটি কাওয়ালী গানও ভাইরাল হয়েছে। আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের জার্সি সদৃশ পোশাকে দুই পাশে দুই দল বসেছেন।

গানের কথা কথায়, এক দল আরেক দলকে পরাস্ত করছেন।

ব্রাজিল দল থেকে বলা হচ্ছে, ৩২ বছর ধরে যে দল বিশ্বকাপ যেতে না, কোয়ালিফাই করতে বের হয় পাসি না। গানের মধ্যেই কেউ একজন জিজ্ঞেস করে দলটা কি আর্জেন্টিনা? 

তখন গায়ক বলেন, আরে দলের নাম সুধাও কেন? এরপর সামনের আর্জেন্টিনা সাপোর্টারদের ব্যাঙ্গ করে তারা কোরাস গাইতে থাকে - খেইলা গেছে ম্যারাডোনা, রাইখা গেছে ফ্যান। মায়া কইরা যদি একটা কাপ ভিক্ষা দেন।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন