কোপা আমেরিকায় ৪১ জন করোনা আক্রান্ত
jugantor
কোপা আমেরিকায় ৪১ জন করোনা আক্রান্ত

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৬ জুন ২০২১, ০০:৪৪:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মৃত্যু, হাহাকার, দমবন্ধ করা লকডাউন, করোনা মহামারির এই কঠিন সময়ে ক্ষণিকের জন্য বুক ভরে শ্বাস নিতে উৎসবের উপলক্ষ্য দরকার ছিল বিশ্ববাসীর।

তাই লাতিন আমেরিকার ফুটবল ছন্দ উপভোগের লোভে করোনাকে তোয়াক্কা না কোপা আমেরিকা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ নিয়ে কয়েক সপ্তাহ ধরে চলে নাটক। শঙ্কায় পড়ে কোপা।

অবশেষে সব শঙ্কা-সংশয় কাটিয়ে করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ব্রাজিলের মাঠে গড়ায় লাতিন ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই।

দুটি ম্যাচ হতে না হতেই ফের শঙ্কায় পড়েছে আয়োজনটি। টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট ৪১ জনের শরীরে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছেন।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কোপা আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্কিত ৪১ জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আবার ৩১জন হচ্ছেন খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফ। বাকি ১০ জন হলেন মাঠকর্মী।

এমন খবর ছড়ানোর পর পরবর্তী ম্যাচগুলো পরিচালনা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

কেননা করোনা ইস্যুতে এবারের কোপা আমেরিকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিল ব্রাজিলের নাগরিকরা। এতে করোনার বিস্তার আরো প্রকোট হবে মন্তব্য করে তুমুল আন্দোলন শুরু হয়, যা এখনও চলছে। খেলোয়াড়রা পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টের বিপক্ষে ছিল।

এখন সেই করোনার হানার খবরে আন্দোলন আরো চাঙা হবার সম্ভাবনা জেগেছে।

জানা গেছে, আক্রান্ত মাঠকর্মীরা সবাই ব্রাসিলিয়ার। যেখানে কোপা আমেরিকার উদ্বোধনী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং ওই ম্যাচে ভেনিজুয়েলাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে শুভ সূচনা করে ব্রাজিল। ওই ম্যাচের আগে ভেনিজুয়েলা দলের ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হন। পরে নতুন একাদশ নিয়ে মাঠে নামে তারা।

সঙ্গত কারণেই বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন ব্রাজিলের ফুটবল ফেডারেশনসহ দেশটির বাসিন্দারা।

এরই মধ্যে গত সোমবারের খবর, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন পেরু ফুটবল দলের ফিটনেস কোচ। কলম্বিয়া দলেরও কয়েকজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

এমন পরিস্থিতিতে গত একদিনেই কোপা আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্কিত ২৯২৭ জনের করোনা টেস্ট করেছে কর্তৃপক্ষ।

তথ্যসূত্র: ইএসপিএন, ওয়াশিংটন পোস্ট, ব্রাজিলিয়ান রিপোর্ট

কোপা আমেরিকায় ৪১ জন করোনা আক্রান্ত

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৬ জুন ২০২১, ১২:৪৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মৃত্যু, হাহাকার, দমবন্ধ করা লকডাউন, করোনা মহামারির এই কঠিন সময়ে ক্ষণিকের জন্য বুক ভরে শ্বাস নিতে উৎসবের উপলক্ষ্য দরকার ছিল বিশ্ববাসীর।

তাই লাতিন আমেরিকার ফুটবল ছন্দ উপভোগের লোভে করোনাকে তোয়াক্কা না কোপা আমেরিকা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ নিয়ে কয়েক সপ্তাহ ধরে চলে নাটক। শঙ্কায় পড়ে কোপা।

অবশেষে সব শঙ্কা-সংশয় কাটিয়ে করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ব্রাজিলের মাঠে গড়ায় লাতিন ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই।

দুটি ম্যাচ হতে না হতেই ফের শঙ্কায় পড়েছে আয়োজনটি। টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট ৪১ জনের শরীরে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছেন। 

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কোপা আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্কিত ৪১ জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আবার ৩১জন হচ্ছেন খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফ। বাকি ১০ জন হলেন মাঠকর্মী।

এমন খবর ছড়ানোর পর পরবর্তী ম্যাচগুলো পরিচালনা নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

কেননা করোনা ইস্যুতে এবারের কোপা আমেরিকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিল ব্রাজিলের নাগরিকরা। এতে করোনার বিস্তার আরো প্রকোট হবে মন্তব্য করে তুমুল আন্দোলন শুরু হয়, যা এখনও চলছে। খেলোয়াড়রা পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টের বিপক্ষে ছিল।

এখন সেই করোনার হানার খবরে আন্দোলন আরো চাঙা হবার সম্ভাবনা জেগেছে।

জানা গেছে, আক্রান্ত মাঠকর্মীরা সবাই ব্রাসিলিয়ার। যেখানে কোপা আমেরিকার উদ্বোধনী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং ওই ম্যাচে ভেনিজুয়েলাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে শুভ সূচনা করে ব্রাজিল। ওই ম্যাচের আগে ভেনিজুয়েলা দলের ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হন। পরে নতুন একাদশ নিয়ে মাঠে নামে তারা। 

সঙ্গত কারণেই বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন ব্রাজিলের ফুটবল ফেডারেশনসহ দেশটির বাসিন্দারা। 

এরই মধ্যে গত সোমবারের খবর, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন পেরু ফুটবল দলের ফিটনেস কোচ। কলম্বিয়া দলেরও কয়েকজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

এমন পরিস্থিতিতে গত একদিনেই কোপা আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্কিত ২৯২৭ জনের করোনা টেস্ট করেছে কর্তৃপক্ষ।

তথ্যসূত্র: ইএসপিএন, ওয়াশিংটন পোস্ট, ব্রাজিলিয়ান রিপোর্ট

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : কোপা আমেরিকা-২০২১