অলিম্পিকে অংশ নিয়েই কীর্তি গড়লেন সিরিয়ার ছোট্ট মেয়েটি (ভিডিও)
jugantor
অলিম্পিকে অংশ নিয়েই কীর্তি গড়লেন সিরিয়ার ছোট্ট মেয়েটি (ভিডিও)

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৪ জুলাই ২০২১, ১৩:১০:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিয়েই কীর্তি গড়েছেন যুদ্ধ বিধ্বস্ত সিরিয়ার এক টেবিল টেনিস তারকা।

তার কীর্তিটি হলো- এবারের আসরের সবচেয়ে কম বয়সি প্রতিযোগী তিনি। তার নাম হেন্দ জাজা। বয়স মাত্র ১২ বছর।

ইন্টারন্যাশনাল টেবিল টেনিস ফেডারেশন জানিয়েছে, হেন্দ জাজার জন্ম ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি।অর্থাৎ তার বর্তমান বয়স ১২ বছর ২০৫ দিন। তার চেয়ে কম বয়সি প্রতিযোগী আর নেই টোকিও অলিম্পিকে।

তিনগুণের বেশি বয়সি প্রতিপক্ষের বিপক্ষে লড়েছেন সিরিয়ার ছোট্ট মেয়েটি। যদিও এখনও বৈশ্বিক আসরটিতে পেরে ওঠার মতো বয়স ও অভিজ্ঞতা হয়ে ওঠেনি তার। প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে তাকে।

অস্ট্রিয়ান প্রতিপক্ষ ৩৯ বছর বয়সি লিউ জিয়ার কাছে শনিবার ৪-০ ব্যবধানে হেরে গেছেন জাজা।

কিন্তু তার আগেই অলিম্পিকের রেকর্ডবুকে নাম লেখালেন এই সিরিয়ান।

অনেকের মতে, একেতো যুদ্ধবিগ্রহ লেগে থাকা দেশ, তার ওপর এই বয়সেই গ্রেটেস্ট শো অন আর্থে ঠাঁই পাওয়া। চারটিখানি কথা নয়। হেন্দা জাজা হতে পারেন প্রতিকূলতার মাঝে বেড়ে ওঠা প্রতিভাবানদের অনুপ্রেরণার উৎস।

সিরিয়ার হামাতে জন্ম নেওয়া হেন্দ জাজার জন্ম ক্রীড়া পরিবারে। মাত্র ৫ বছর বয়সে টেবিল টেনিসে হাতেখড়ি তার।

করোনাভাইরাস ও গৃহযুদ্ধের কারণে জাজা এক বছরে দেশের বাইরে খেলতে পেরেছেন মাত্র ২-৩টি ম্যাচ।

গত বছর জর্ডানের আম্মানে হওয়া ওয়েস্টার্ন এশিয়া অলিম্পিক কোয়ালিফিকেশনে সবার নজর কাড়েন জাজা। সেই টুর্নামেন্টে সবাইকে চমকে দিয়ে সেরা হন মাত্র ১১ বছর বয়সে। দেশের হয়ে টিকিট কাটেন টোকিও অলিম্পিকের।

তথ্যসূত্র: অলিম্পিকস ডট কম

অলিম্পিকে অংশ নিয়েই কীর্তি গড়লেন সিরিয়ার ছোট্ট মেয়েটি (ভিডিও)

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৪ জুলাই ২০২১, ০১:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিয়েই কীর্তি গড়েছেন যুদ্ধ বিধ্বস্ত সিরিয়ার এক টেবিল টেনিস তারকা।

তার কীর্তিটি হলো- এবারের আসরের সবচেয়ে কম বয়সি প্রতিযোগী তিনি। তার নাম হেন্দ জাজা। বয়স মাত্র ১২ বছর।

ইন্টারন্যাশনাল টেবিল টেনিস ফেডারেশন জানিয়েছে, হেন্দ জাজার জন্ম ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি।অর্থাৎ তার বর্তমান বয়স ১২ বছর ২০৫ দিন। তার চেয়ে কম বয়সি প্রতিযোগী আর নেই টোকিও অলিম্পিকে।

তিনগুণের বেশি বয়সি প্রতিপক্ষের বিপক্ষে লড়েছেন সিরিয়ার ছোট্ট মেয়েটি। যদিও এখনও বৈশ্বিক আসরটিতে পেরে ওঠার মতো বয়স ও অভিজ্ঞতা হয়ে ওঠেনি তার। প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে তাকে।

অস্ট্রিয়ান প্রতিপক্ষ ৩৯ বছর বয়সি লিউ জিয়ার কাছে শনিবার ৪-০ ব্যবধানে হেরে গেছেন জাজা।

কিন্তু তার আগেই অলিম্পিকের রেকর্ডবুকে নাম লেখালেন এই সিরিয়ান।

অনেকের মতে, একেতো যুদ্ধবিগ্রহ লেগে থাকা দেশ, তার ওপর এই বয়সেই গ্রেটেস্ট শো অন আর্থে ঠাঁই পাওয়া। চারটিখানি কথা নয়। হেন্দা জাজা হতে পারেন প্রতিকূলতার মাঝে বেড়ে ওঠা প্রতিভাবানদের অনুপ্রেরণার উৎস।

সিরিয়ার হামাতে জন্ম নেওয়া হেন্দ জাজার জন্ম ক্রীড়া পরিবারে। মাত্র ৫ বছর বয়সে টেবিল টেনিসে হাতেখড়ি তার।

করোনাভাইরাস ও গৃহযুদ্ধের কারণে জাজা এক বছরে দেশের বাইরে খেলতে পেরেছেন মাত্র ২-৩টি ম্যাচ।

গত বছর জর্ডানের আম্মানে হওয়া ওয়েস্টার্ন এশিয়া অলিম্পিক কোয়ালিফিকেশনে সবার নজর কাড়েন জাজা। সেই টুর্নামেন্টে সবাইকে চমকে দিয়ে সেরা হন মাত্র ১১ বছর বয়সে। দেশের হয়ে টিকিট কাটেন টোকিও অলিম্পিকের।

 

তথ্যসূত্র: অলিম্পিকস ডট কম

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : অলিম্পিক ২০২০