‘অস্ট্রেলিয়ানরা খুবই সতর্ক, না খেলেও চলে যেতে পারে’
jugantor
‘অস্ট্রেলিয়ানরা খুবই সতর্ক, না খেলেও চলে যেতে পারে’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৪ জুলাই ২০২১, ২০:৫৫:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিতে আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সফরে আসতে পারে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল।

ঢাকা সফরে আসার আগে করোনাভাইরাস নিয়ে খুবই সঙ্কিত অস্ট্রেলিয়া। এমনকি সফরে এসে যদি প্রতিপক্ষ কোনো ক্রিকেটার বা ক্রিকেট সংশ্লিস্ট কেউ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এমন খবর তাদের কাছে পৌঁছায় তাহলে না খেলেও দেশে ফিরে যেতে পারে।

এমনটি জানিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন বলেন, আমাদের দেশেও যদি ওয়েস্ট ইন্ডিজের মত কোনো ঘটনা ঘটে, তাহলে কিন্তু অস্ট্রেলিয়ানরা হয়তো না খেলেচলে যেতে পারে। অস্ট্রেলিয়ানরা করোনা বিষয়ে খুবই সতর্ক। সামান্যতম ত্রুটি পেলে তারা বেঁকে বসবে।

তিনি আরও বলেন, অস্ট্রেলিয়ানরা বাংলাদেশে খেলতে আসাই শেষ কথা নয়। কোনো কারণবশত, আমাদের এখানেও যদি উইন্ডিজের মত কোন ঘটনা ঘটে। যদি মাঠকর্মী বা হোটেল স্টাফও করোনা পজিটিভ হয়, তখন কিন্তু তারা বেঁকে বসতে পারে। বাকি ম্যাচ না খেলে চলেও যেতে পারে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেআগামী ৩ আগস্ট থেকে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট হবে বাকি চার ম্যাচ। সিরিজের সবগুলো ম্যাচ হবে মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার বারবাডোজের কিংসটন ওভালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া।

ম্যাচ শুরুর ঠিক কয়েক মিনিট আগে জানা যায়, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাপোর্ট স্টাফের একজনের শরীরে করোনা সংক্রমিত হয়েছে।

এমন খবরে স্থগিত হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে দ্রুত টিম হোটেলে নিয়ে আইসোলেশনে রাখা হয়।

পরে দুই দলের ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফ, ম্যাচ অফিসিয়াল, টিভি ক্রুসহ ১৫২ জনের করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ হওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে যে জটিলতা ছিল তা কেটে গেছে।

‘অস্ট্রেলিয়ানরা খুবই সতর্ক, না খেলেও চলে যেতে পারে’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৪ জুলাই ২০২১, ০৮:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিতে আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সফরে আসতে পারে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। 

ঢাকা সফরে আসার আগে করোনাভাইরাস নিয়ে খুবই সঙ্কিত অস্ট্রেলিয়া। এমনকি সফরে এসে যদি প্রতিপক্ষ কোনো ক্রিকেটার বা ক্রিকেট সংশ্লিস্ট কেউ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এমন খবর তাদের কাছে পৌঁছায় তাহলে না খেলেও দেশে ফিরে যেতে পারে।

এমনটি জানিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন বলেন, আমাদের দেশেও যদি ওয়েস্ট ইন্ডিজের মত কোনো ঘটনা ঘটে, তাহলে কিন্তু অস্ট্রেলিয়ানরা হয়তো না খেলে চলে যেতে পারে। অস্ট্রেলিয়ানরা করোনা বিষয়ে খুবই সতর্ক। সামান্যতম ত্রুটি পেলে তারা বেঁকে বসবে।

তিনি আরও বলেন, অস্ট্রেলিয়ানরা বাংলাদেশে খেলতে আসাই শেষ কথা নয়। কোনো কারণবশত, আমাদের এখানেও যদি উইন্ডিজের মত কোন ঘটনা ঘটে। যদি মাঠকর্মী বা হোটেল স্টাফও করোনা পজিটিভ হয়, তখন কিন্তু তারা বেঁকে বসতে পারে। বাকি ম্যাচ না খেলে চলেও যেতে পারে।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আগামী ৩ আগস্ট থেকে শুরু হবে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট হবে বাকি চার ম্যাচ। সিরিজের সবগুলো ম্যাচ হবে মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার বারবাডোজের কিংসটন ওভালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। 

ম্যাচ শুরুর ঠিক কয়েক মিনিট আগে জানা যায়, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাপোর্ট স্টাফের একজনের শরীরে করোনা সংক্রমিত হয়েছে।

এমন খবরে স্থগিত হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে। সংশ্লিষ্ট সবাইকে দ্রুত টিম হোটেলে নিয়ে আইসোলেশনে রাখা হয়। 

পরে দুই দলের ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফ, ম্যাচ অফিসিয়াল, টিভি ক্রুসহ ১৫২ জনের করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ হওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে যে জটিলতা ছিল তা কেটে গেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ টি২০ সিরিজ ২০২১

১০ আগস্ট, ২০২১