দুই কেজির জন্য পদক হাতছাড়া পাকিস্তানের তালহার
jugantor
দুই কেজির জন্য পদক হাতছাড়া পাকিস্তানের তালহার

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৬ জুলাই ২০২১, ১৭:৪২:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

অলিম্পিকে ২৮ বছর পর পদক জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেও মাত্র দুই কেজির জন্য ব্যর্থ হন তালহা তালিব। ভারোত্তলনে ছেলেদের বিভাগে ৬৭ কেজি ওজনশ্রেণিতে পঞ্চম স্থানে শেষ করেন পাকিস্তানের এ তরুণ।

৪৫ বছরে প্রথম পাকিস্তানি ভারোত্তলক হিসেবে অলিম্পিকে অংশ নেওয়ার সুযোগ পান তালহা। চলতি বছরের এপ্রিলে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ পদক জয়ের পর টোকিও অলিম্পিকে পদক জয়ে আশান্বিত করেছিলেন ২১ বছর বয়সী এ ভারোত্তলক।

রোববার তালহা এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের পারফরম্যান্সকে ছাপিয়ে তৃতীয় চেষ্টায় ১৭০ কেজি উত্তোলন করেন। কিন্তু তা যথেষ্ট ছিল না। স্ন্যাচ এবং ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে তালহা ৩২০ কেজি তোলেন। ব্রোঞ্জজয়ী ইতালির মিনো জান্নি ৩২২ কেজি উত্তোলন করেন। ৩২১ কেজি উত্তোলন করে চতুর্থ হন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিযোগী।

ব্রোঞ্জজয়ীর সঙ্গে তালহার ব্যবধান ছিল মাত্র দুই কেজি। মাত্র দুই কেজির জন্যই স্বপ্নভঙ্গ হয় পাকিস্তানি ভারোত্তলকের।

যথাযথ প্রশিক্ষণ ছাড়া তালহা যেভাবে অলিম্পিকে নিজেকে মেলে ধরেছেন তাতে মুগ্ধ নেটিজেনরা। পাকিস্তানের ভারোত্তলক সংগঠনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে অনেকে বলছেন, ২০১৮ সালে কমনওয়েলথ গেমসে তালহা যখন ব্রোঞ্জ পদক জিতেন তখন যদি তাকে যথাযথ অনুশীলনের সুযোগ দেওয়া হতো তাহলে ২৮ বছর পর নিশ্চয়ই অলিম্পিকে পাকিস্তানের পতাকা উড়ত।

দুই কেজির জন্য পদক হাতছাড়া পাকিস্তানের তালহার

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৬ জুলাই ২০২১, ০৫:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অলিম্পিকে ২৮ বছর পর পদক জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেও মাত্র দুই কেজির জন্য ব্যর্থ হন তালহা তালিব। ভারোত্তলনে ছেলেদের বিভাগে ৬৭ কেজি ওজনশ্রেণিতে পঞ্চম স্থানে শেষ করেন পাকিস্তানের এ তরুণ।

৪৫ বছরে প্রথম পাকিস্তানি ভারোত্তলক হিসেবে অলিম্পিকে অংশ নেওয়ার সুযোগ পান তালহা। চলতি বছরের এপ্রিলে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ পদক জয়ের পর টোকিও অলিম্পিকে পদক জয়ে আশান্বিত করেছিলেন ২১ বছর বয়সী এ ভারোত্তলক। 

রোববার তালহা এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের পারফরম্যান্সকে ছাপিয়ে তৃতীয় চেষ্টায় ১৭০ কেজি উত্তোলন করেন। কিন্তু তা যথেষ্ট ছিল না। স্ন্যাচ এবং ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে তালহা ৩২০ কেজি তোলেন। ব্রোঞ্জজয়ী ইতালির মিনো জান্নি ৩২২ কেজি উত্তোলন করেন। ৩২১ কেজি উত্তোলন করে চতুর্থ হন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিযোগী।

ব্রোঞ্জজয়ীর সঙ্গে তালহার ব্যবধান ছিল মাত্র দুই কেজি। মাত্র দুই কেজির জন্যই স্বপ্নভঙ্গ হয় পাকিস্তানি ভারোত্তলকের। 

যথাযথ প্রশিক্ষণ ছাড়া তালহা যেভাবে অলিম্পিকে নিজেকে মেলে ধরেছেন তাতে মুগ্ধ নেটিজেনরা। পাকিস্তানের ভারোত্তলক সংগঠনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে অনেকে বলছেন, ২০১৮ সালে কমনওয়েলথ গেমসে তালহা যখন ব্রোঞ্জ পদক জিতেন তখন যদি তাকে যথাযথ অনুশীলনের সুযোগ দেওয়া হতো তাহলে ২৮ বছর পর নিশ্চয়ই অলিম্পিকে পাকিস্তানের পতাকা উড়ত। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : অলিম্পিক ২০২০