ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস
jugantor
ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৫ আগস্ট ২০২১, ১২:০৩:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ট্রেন্টব্রিজে সিরিজের প্রথম ম্যাচে উইকেট যেন বিশ্বাসঘাতকা করল স্বাগতিকদের সঙ্গে। কন্ডিশন আর উইকেটের ধরন দুটোই হয়ে উঠল ব্যাটসম্যানদের জন্য দুরূহ।

উপযুক্ত কন্ডিশনের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করে ইংলিশদের ২০০-এরও কম রানে গুটিয়ে দিলেন ভারতীয় পেসাররা, যা ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস।


ম্যাচের প্রথম ওভারে পঞ্চম বলেই বাঁহাতি ইংলিশ ওপেনার রোরি বার্নসকে শূন্যরানে এলবিডব্লিউর শিকার বানিয়ে সাজঘরে ফেরত পাঠান জাসপ্রিত বুমরাহ।

এর পর ডম সিবলি আর জ্যাক ক্রলি ২০ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়ে যান দলকে। এই দুই টপঅর্ডারের ৪২ রানের ধীরগতির জুটি ভাঙেন পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ক্রলি। এর পর জো রুট নেমে লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত কোনো ক্ষতি হতে দেননি।

তবে বিরতির পর মাঠে নেমেই ডম সিবলিকে ফিরিয়ে নিজের প্রথম উইকেট শিকার উদযাপন করেন মোহাম্মদ শামি।

তবে সতীর্থের বিদায়ে বিচলিত না হয়ে অর্ধশতক তুলে নেন অধিনায়ক জো রুট। জনি বেয়ারস্টো দারুণ সঙ্গ দেন রুটকে।

চা বিরতির ঠিক আগে শামির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন বেয়ারস্টো। ৭২ রানের জুটি ভাঙে রুট-বেয়ারস্টোর। এটাই ইনিংসের সর্বোচ্চ জুটি। ১৩৮ রান তুলতেই তখন ইংলিশদের অর্ধেক ইনিংস হাওয়া।

এর পর বাকি সবাই ছিলেন আসা-যাওয়ার মধ্যে। মাত্র তিন ওভারে ব্যবধানে আউট হন মিডলঅর্ডারের তিন তারকা। বাটলারকে ফেরেন বুমরাহ। পরের ওভারে অধিনায়ক রুট আর রবিনসনকে ফেরান শার্দুল ঠাকুর। রুটের সংগ্রামী ৬৪ রানের ইনিংসই সর্বোচ্চ।

রুটের বিদায়ের পর কেবল স্যাম কারানের ইনিংসটি নজর কেড়েছে। সঙ্গীর অভাবে অপরাজিত ২৭ রানের ইনিংসকে বড় করতে পারেননি ক্যারান। মাত্র ১৮৩ রানেই গুটিয়ে গেছে স্বাগতিকদের ইনিংস। নিজেদের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস সংগ্রহ এখন এটিই। এর আগে ২০০৭ সালে ভারতের মুখোমুখি হয়ে ১৯৬ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল দলটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড: ৬৫.৪ ওভারে ১৮৩ (ক্রলি ২৭, রুট ৬৪, বেয়ারস্টো ২৯, কারান ২৭*; বুমরাহ ৪৬-৪, শামি ২৮-৩, সিরাজ ৪৮-১, শার্দুল ১৩-৩-৪১-২)।

ভারত: ১৩ ওভারে ২১/০ (রোহিত ৯*, রাহুল ৯*)।

ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৫ আগস্ট ২০২১, ১২:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

 

ট্রেন্টব্রিজে সিরিজের প্রথম ম্যাচে উইকেট যেন বিশ্বাসঘাতকা করল স্বাগতিকদের সঙ্গে। কন্ডিশন আর উইকেটের ধরন দুটোই হয়ে উঠল ব্যাটসম্যানদের জন্য দুরূহ।  

উপযুক্ত কন্ডিশনের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করে ইংলিশদের ২০০-এরও কম রানে গুটিয়ে দিলেন ভারতীয় পেসাররা, যা ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস।


ম্যাচের প্রথম ওভারে পঞ্চম বলেই বাঁহাতি ইংলিশ ওপেনার রোরি বার্নসকে শূন্যরানে এলবিডব্লিউর শিকার বানিয়ে সাজঘরে ফেরত পাঠান জাসপ্রিত বুমরাহ।

এর পর ডম সিবলি আর জ্যাক ক্রলি ২০ ওভার পর্যন্ত টেনে নিয়ে যান দলকে। এই দুই টপঅর্ডারের ৪২ রানের ধীরগতির জুটি ভাঙেন পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ক্রলি। এর পর জো রুট নেমে লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত কোনো ক্ষতি হতে দেননি।

তবে বিরতির পর মাঠে নেমেই ডম সিবলিকে ফিরিয়ে নিজের প্রথম উইকেট শিকার উদযাপন করেন মোহাম্মদ শামি।

তবে সতীর্থের বিদায়ে বিচলিত না হয়ে অর্ধশতক তুলে নেন অধিনায়ক জো রুট। জনি বেয়ারস্টো দারুণ সঙ্গ দেন রুটকে।

চা বিরতির ঠিক আগে শামির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন বেয়ারস্টো। ৭২ রানের জুটি ভাঙে রুট-বেয়ারস্টোর। এটাই ইনিংসের সর্বোচ্চ জুটি। ১৩৮ রান তুলতেই তখন ইংলিশদের অর্ধেক ইনিংস হাওয়া।

এর পর বাকি সবাই ছিলেন আসা-যাওয়ার মধ্যে। মাত্র তিন ওভারে ব্যবধানে আউট হন মিডলঅর্ডারের তিন তারকা। বাটলারকে ফেরেন বুমরাহ।  পরের ওভারে অধিনায়ক রুট আর রবিনসনকে ফেরান শার্দুল ঠাকুর। রুটের সংগ্রামী ৬৪ রানের ইনিংসই সর্বোচ্চ।

রুটের বিদায়ের পর কেবল স্যাম কারানের ইনিংসটি নজর কেড়েছে। সঙ্গীর অভাবে অপরাজিত ২৭ রানের ইনিংসকে বড় করতে পারেননি ক্যারান। মাত্র ১৮৩ রানেই গুটিয়ে গেছে স্বাগতিকদের ইনিংস। নিজেদের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সর্বনিম্ন প্রথম ইনিংস সংগ্রহ এখন এটিই। এর আগে ২০০৭ সালে ভারতের মুখোমুখি হয়ে ১৯৬ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল দলটি।
 
সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড: ৬৫.৪ ওভারে ১৮৩ (ক্রলি ২৭, রুট ৬৪, বেয়ারস্টো ২৯, কারান ২৭*; বুমরাহ ৪৬-৪, শামি ২৮-৩, সিরাজ ৪৮-১, শার্দুল ১৩-৩-৪১-২)।

ভারত: ১৩ ওভারে ২১/০ (রোহিত ৯*, রাহুল ৯*)।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন