সাকিব যা পারেননি তাই করে দেখালেন আফিফ! (ভিডিও)
jugantor
সাকিব যা পারেননি তাই করে দেখালেন আফিফ! (ভিডিও)

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:২১:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

সাকিব আল হাসান যেভাবে ক্যাচ মিস করার দৃশ্য। ছবি: এএফপি

তাসকিনের করা দলীয় চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে মানসে বল আকাশে উড়ান। এসময় দৌড়ে এসে জাম্প দেন সাকিব। কিন্তু বলটি তিনি ধরতে পারেননি। আর বলটি তালুবন্দি করলেও ব্যাটসম্যানের জন্য সমস্যা হতো না, কারণ ওই বলটি ছিল নো বল।

১১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে সাকিবের বলে অসাধারণ একটি ক্যাচ ধরেন আফিফ। বলটি দেখে মনে হচ্ছিল এটি ছক্কা হচ্ছে। কিন্তু আফিফ তার বুদ্ধিমত্তা দিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় প্রথমে বাউন্ডারি লাইন থেকে বলটি থামিয়ে দিয়ে আবারও শূন্যে ভাসান। এরপর তিনি বাউন্ডারি লাইনের বাইরে গিয়ে নিজের শরীর নিয়ন্ত্রণ করে তড়িৎ গতিতে আবারও মাঠে এসে শূন্যে ভেসে থাকা বলটি তালুবন্দি করেন।

সাকিব আল হাসান যে বলটি জাম্প দিয়ে প্রথম ধাপেই ক্যাচ ধরার ব্যর্থ চেষ্টা করছিলেন সে রকমই একটি বল আগে সীমানার ভেতরে থামিয়ে দিয়ে পরের ধাপে তা ক্যাচে পরিণত হয়। দুর্ভাগ্য স্কটিশ ব্যাটসম্যান মিচেল লিস্কের।

অসাধারণ ক্যাচ ধরায় আফিফকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন বাংলাদেশ দলের সব খেলোয়াড়রা। ছবি: এএফপি

পরে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে সীমানার কাছে তরুণ ক্রিকেটার আফিফ হোসেনের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হন রিচি বিরিংটন। এই রিচির সেঞ্চুরিময় ইনিংসের কারণেই ২০১২ সালে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে হেরে যায় বাংলাদেশ।

১১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রিচিকে ফেরানোর পর চতুর্থ বলে সাকিব ফেরান মাইকেল লিক্সকে। রিচি বিরিংটনের মতো লিক্সও ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন। তুলনামূলক সহজ ওই ক্যাচটি ধরেন লিটন দাস।

৫৩ রানে ৬ উইকেটের পতন ঘটানোর পর এক সময় মনে হয়েছিল তিন অংকের কোটা পূরণের আগেই অলআউট হয়ে যাবে স্কটিশরা। কিন্তু ক্রিস গ্রেভসের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে (২৮ বলে চারটি বাউন্ডারি আর দুটি ছক্কায় দলীয় সর্বোচ্চ ৪৫ রান) শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ১৪০/৯ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করায় স্কটল্যান্ড।

টি২০ বিশ্বকাপ ২০২১

সাকিব যা পারেননি তাই করে দেখালেন আফিফ! (ভিডিও)

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সাকিব আল হাসান যেভাবে ক্যাচ মিস করার দৃশ্য। ছবি: এএফপি
সাকিব আল হাসান যেভাবে ক্যাচ মিস করার দৃশ্য। ছবি: এএফপি

তাসকিনের করা দলীয় চতুর্থ ওভারের দ্বিতীয় বলে মানসে বল আকাশে উড়ান। এসময় দৌড়ে এসে জাম্প দেন সাকিব। কিন্তু বলটি তিনি ধরতে পারেননি। আর বলটি তালুবন্দি করলেও ব্যাটসম্যানের জন্য সমস্যা হতো না, কারণ ওই বলটি ছিল নো বল।  

১১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে সাকিবের বলে অসাধারণ একটি ক্যাচ ধরেন আফিফ। বলটি দেখে মনে হচ্ছিল এটি ছক্কা হচ্ছে। কিন্তু আফিফ তার বুদ্ধিমত্তা দিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় প্রথমে বাউন্ডারি লাইন থেকে বলটি থামিয়ে দিয়ে আবারও শূন্যে ভাসান। এরপর তিনি বাউন্ডারি লাইনের বাইরে গিয়ে নিজের শরীর নিয়ন্ত্রণ করে তড়িৎ গতিতে আবারও মাঠে এসে শূন্যে ভেসে থাকা বলটি তালুবন্দি করেন। 

সাকিব আল হাসান যে বলটি জাম্প দিয়ে প্রথম ধাপেই ক্যাচ ধরার ব্যর্থ চেষ্টা করছিলেন সে রকমই একটি বল আগে সীমানার ভেতরে থামিয়ে দিয়ে পরের ধাপে তা ক্যাচে পরিণত হয়। দুর্ভাগ্য স্কটিশ ব্যাটসম্যান মিচেল লিস্কের। 

অসাধারণ ক্যাচ ধরায় আফিফকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন বাংলাদেশ দলের সব খেলোয়াড়রা। ছবি: এএফপি

পরে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে সীমানার কাছে তরুণ ক্রিকেটার আফিফ হোসেনের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হন রিচি বিরিংটন। এই রিচির সেঞ্চুরিময় ইনিংসের কারণেই ২০১২ সালে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচে হেরে যায় বাংলাদেশ।

১১তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রিচিকে ফেরানোর পর চতুর্থ বলে সাকিব ফেরান মাইকেল লিক্সকে। রিচি বিরিংটনের মতো লিক্সও ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন। তুলনামূলক সহজ ওই ক্যাচটি ধরেন লিটন দাস। 

৫৩ রানে ৬ উইকেটের পতন ঘটানোর পর এক সময় মনে হয়েছিল তিন অংকের কোটা পূরণের আগেই অলআউট হয়ে যাবে স্কটিশরা। কিন্তু ক্রিস গ্রেভসের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে (২৮ বলে চারটি বাউন্ডারি আর দুটি ছক্কায় দলীয় সর্বোচ্চ ৪৫ রান) শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ১৪০/৯ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করায় স্কটল্যান্ড।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : টি২০ বিশ্বকাপ ২০২১