হায়দরাবাদের অধিনায়ক হতে পারতেন সাকিবও

প্রকাশ : ১২ মে ২০১৮, ১৩:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক,

চলতি আইপিএলে উল্কার গতিতে উড়ছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আসরের প্রথম ও এখন পর্যন্ত একমাত্র দল হিসেবে প্লে-অফে খেলা নিশ্চিত করেছে দলটি। এতে অগ্রণী ভূমিকা আছে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের।

অথচ অধিনায়ক তো দূরের কথা, একাদশে তার জায়গা পাওয়া নিয়েই ছিল ঢের শংকা। কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিং স্ক্যান্ডালের জেরে ডেভিড ওয়ার্নারকে ১ বছর নিষিদ্ধ করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। একই পথে হাঁটে হায়দরাবাদও। মাল্টি মিলিয়ন ডলারের একাদশ সংস্করণে তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। এতে ভাগ্য খুলে যায় নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের। পেয়ে যান নেতৃত্বের আর্মব্যান্ড।

কিন্তু আপনি কি জানেন? হায়দরাবাদের অধিনায়ক হতে পারতেন সাকিব আল হাসানও। ওয়ার্নারের স্থলাভিষিক্ত হতে পারতেন তিনিও। অজি বিস্ফোরক ওপেনারকে অধিনায়কের পদ থেকে সরাতে বাধ্য হন অরেঞ্জ আর্মিরা।  এতে যে সম্ভাব্য অধিনায়কের তালিকা করেছিল  তারা, তাতে নাম ছিল বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়কেরও।

বিষয়টি শুরু থেকেই আলোচনায় এসেছে। জানা যায়, অধিনায়ক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে উইলিয়ামসনের পাশাপাশি উচ্চারিত হচ্ছিল সাকিব ও শিখর ধাওয়ানের নামও। এবার তা খোলাসা করলেন সাবেক  চ্যাম্পিয়নদের  মেন্টর ভিভিএস লক্ষ্মণ।

সম্প্রতি অধিনায়ক-ইস্যুতে কথা বলতে গিয়ে তিনি টেনে আনেন সাকিবের কথা। বলেন, দলের অধিনায়ক বানানোর জন্য আমাদের হাতে অনেক অপশন ছিল। যার একজন ছিলেন সাকিব।

ভারতীয় এ ব্যাটিং কিংবদন্তি বলেন, এবার ডেভিড ওয়ার্নারকে না পাওয়ার কথা আমরা ভুলেও চিন্তা করিনি। বিষয়টি বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো। অল্প সময়ে অধিনায়ক নির্বাচন করা সহজ বিষয় ছিল না। তবে আমাদের হাতে একাধিক বিকল্প ছিল। ভাগ্য ভালো দলে উইলিয়ামসন, সাকিব, ধাওয়ানের মতো নেতাসুলভ অভিজ্ঞ ক্রিকেটার ছিল। তাই বিষয়টি শক্ত হাতেই সামলাতে পেরেছি।