মাহমুদউল্লাহকে প্রশংসায় ভাসালেন সাকলাইন মুশতাক
jugantor
মাহমুদউল্লাহকে প্রশংসায় ভাসালেন সাকলাইন মুশতাক

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৩৮:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজেও ধবলধোলাই হয়েছেন মাহমুদউল্লাহরা। তবে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে স্বল্প পুঁজি নিয়েও লড়াই করে হেরেছে টাইগাররা।

খেলাকে শেষ ওভার পর্যন্ত নিয়ে গেছেন বাংলাদেশের বোলাররা। তবে অনিয়মিত বোলার মাহমুদউল্লাহ ছিলেন অসাধারণ।

কুড়িতম ওভারে নিজেই বল হাতে নিয়ে কারিশমা দেখান তিনি। প্রথম তিন বলে পর পর ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচের মোড়ই ঘুরিয়ে দেন। শেষ বলটিতেও স্টাম্প ভেঙে দেন। যদিও সেই আউটটি হয়নি। কারণ ব্যাটার নওয়াজ প্রস্তুত নন বলে জানালে বলটি ডেড বলে সিগনাল দেন আম্পায়ার।

মাহমুদউল্লাহ চাইলে আবেদন করতেই পারতেন। কিন্তু তিনি সেটি না করে ফের বল করেন। তাতে চার মেরে তৃতীয় ম্যাচটিও জিতে নেয় পাকিস্তান।

এভাবে পরিস্থিতি বেশ ভালোভাবে সামাল দেওয়ার কারণে মাহমুদউল্লাহর প্রশংসা করলেন পাকিস্তানের হেড কোচ সাকলাইন মুশতাক।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত গড়িয়েছে। আমাদের ছেলেরা তাদের স্নায়ুচাপ ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। আমি বাংলাদেশকে কৃতিত্ব দিতে চাই। বিশেষ করে মাহমুদউল্লাহকে, শেষ ওভারে ও যেভাবে বোলিং করেছে এবং পরিস্থিতি সামাল দিয়েছে।’

প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলায় তৃতীয় ম্যাচে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছে পাকিস্তান দল। শেষ ম্যাচে একাদশে একাধিক পরিবর্তন আনে পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট। বেশ কয়েকজন পরীক্ষিত পারফর্মারকে বিশ্রাম দিয়ে একাদশে রাখা হয়েছিল সুযোগ না পাওয়া খেলোয়াড়দের।

এ বিষয়ে পাকিস্তানের হেড কোচ বলেন, ‘দলে এই ধরণের গভীরতা থাকা পাকিস্তানের জন্য একটি দুর্দান্ত জিনিস, বেঞ্চের ছেলেরা কঠোর পরিশ্রম করছে এবং দলে জায়গা পেতে একে অপরকে চাপ দিচ্ছে, আপনি এর চেয়ে বেশি কিছু চাইতে পারবেন না।’

মাহমুদউল্লাহকে প্রশংসায় ভাসালেন সাকলাইন মুশতাক

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৩৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজেও ধবলধোলাই হয়েছেন মাহমুদউল্লাহরা।  তবে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে স্বল্প পুঁজি নিয়েও লড়াই করে হেরেছে টাইগাররা।

খেলাকে শেষ ওভার পর্যন্ত নিয়ে গেছেন বাংলাদেশের বোলাররা। তবে অনিয়মিত বোলার মাহমুদউল্লাহ ছিলেন অসাধারণ।

কুড়িতম ওভারে নিজেই বল হাতে নিয়ে কারিশমা দেখান তিনি। প্রথম তিন বলে পর পর ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচের মোড়ই ঘুরিয়ে দেন। শেষ বলটিতেও স্টাম্প ভেঙে দেন। যদিও সেই আউটটি হয়নি। কারণ ব্যাটার নওয়াজ প্রস্তুত নন বলে জানালে বলটি ডেড বলে সিগনাল দেন আম্পায়ার। 

মাহমুদউল্লাহ চাইলে আবেদন করতেই পারতেন। কিন্তু তিনি সেটি না করে ফের বল করেন। তাতে চার মেরে তৃতীয় ম্যাচটিও জিতে নেয় পাকিস্তান। 

এভাবে পরিস্থিতি বেশ ভালোভাবে সামাল দেওয়ার কারণে মাহমুদউল্লাহর প্রশংসা করলেন পাকিস্তানের হেড কোচ সাকলাইন মুশতাক।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত গড়িয়েছে। আমাদের ছেলেরা তাদের স্নায়ুচাপ ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। আমি বাংলাদেশকে কৃতিত্ব দিতে চাই। বিশেষ করে মাহমুদউল্লাহকে, শেষ ওভারে ও যেভাবে বোলিং করেছে এবং পরিস্থিতি সামাল দিয়েছে।’

প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলায় তৃতীয় ম্যাচে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছে পাকিস্তান দল। শেষ ম্যাচে একাদশে একাধিক পরিবর্তন আনে পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট। বেশ কয়েকজন পরীক্ষিত পারফর্মারকে বিশ্রাম দিয়ে একাদশে রাখা হয়েছিল সুযোগ না পাওয়া খেলোয়াড়দের। 

এ বিষয়ে পাকিস্তানের হেড কোচ বলেন, ‘দলে এই ধরণের গভীরতা থাকা পাকিস্তানের জন্য একটি দুর্দান্ত জিনিস, বেঞ্চের ছেলেরা কঠোর পরিশ্রম করছে এবং দলে জায়গা পেতে একে অপরকে চাপ দিচ্ছে, আপনি এর চেয়ে বেশি কিছু চাইতে পারবেন না।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ ঢাকা ২০২১