পাক-ভারতের দুই অধিনায়কের চেয়ে লিটনের রান বেশি
jugantor
পাক-ভারতের দুই অধিনায়কের চেয়ে লিটনের রান বেশি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৭ নভেম্বর ২০২১, ১৫:৫২:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

সাম্প্রতিক সময়ে তো হাসতে একদমই ভুলে গিয়েছিলেন লিটন দাস। সেটাই স্বাভাবিক টি-টোয়েন্টিতে তার ব্যাট ছিল মলিন।

তবে শুক্রবার চট্টগ্রামের সাগরিকায় হাসলেন। সেটাও স্বাভাবিকই। তার ব্যাট কথা বলেছে টেস্ট ফরম্যাটে। পাকিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি হাঁকালেন তিনি। নিজের জাত আরেকবার বুঝিয়ে দেওয়ার ইনিংস।

লিটনের হাসি আরো চওড়া হওয়ার কথা। সমালোচকদের কড়া জবাব দিলেন ব্যাট হাতে। তার ওপর ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি।

২৫টি টেস্ট খেলে সেঞ্চুরি ছিল না একটিও। সবশেষ টেস্টে কাটা পড়েন ৯৫ রানে। এবার নার্ভাস নাইন্টিজে আটকা পড়লেন না।

১১ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ২৩৩ বলে ১১৪ রান করলেন লিটন। এমন অনবদ্য ইনিংসের পর জানা গেল লিটন দাস ছাড়িয়ে গেছেন বর্তমান সময়ের দুই সেরা ব্যাটার বাবার আজম ও বিরাট কোহলিকে।

চলতি বছরে টেস্ট ফরম্যাটে পাকিস্তান ও ভারতের দুই অধিনায়ক থেকেও লিটনের রেকর্ড ভালো।

পরিসংখ্যান বলছে, চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের পর ২০২১ সালে ৯টি ইনিংসে লিটনের মোট সংগ্রহ ৪৮৩ রান। ব্যাটিং গড় ৬০.৩৭ রান। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস অপরাজিত ১১৩ রানের।

অন্যদিকে পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম এই এক বর্ষে খেলেছেন লিটনের চেয়ে একটি বেশি ইনিংস। টেস্টে ১০ ইনিংসে তার মোট সংগ্রহ ৩১৭ রান। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস ৭৭ রানের।

কোহলিকেও পেছনে ফেলেছেন লিটন। ২০২১ সালে কোহলি ১৫টি টেস্ট ইনিংসে ৪৪৭ রান সংগ্রহ করেছেন। ব্যাটিং গড় ২৯.৮০। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস ৭২ রানের।

সেই নিরিখে বলাই যায় যে চলতি বছরে টেস্ট ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত ভারত ও পাকিস্তানের দুই অধিনায়ককে টেক্কা দিয়েছেন লিটন।

পাক-ভারতের দুই অধিনায়কের চেয়ে লিটনের রান বেশি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৩:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাম্প্রতিক সময়ে তো হাসতে একদমই ভুলে গিয়েছিলেন লিটন দাস। সেটাই স্বাভাবিক টি-টোয়েন্টিতে তার ব্যাট ছিল মলিন।

তবে শুক্রবার চট্টগ্রামের সাগরিকায় হাসলেন। সেটাও স্বাভাবিকই। তার ব্যাট কথা বলেছে টেস্ট ফরম্যাটে। পাকিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি হাঁকালেন তিনি। নিজের জাত আরেকবার বুঝিয়ে দেওয়ার ইনিংস।

লিটনের হাসি আরো চওড়া হওয়ার কথা। সমালোচকদের কড়া জবাব দিলেন ব্যাট হাতে। তার ওপর ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। 

২৫টি টেস্ট খেলে সেঞ্চুরি ছিল না একটিও। সবশেষ টেস্টে কাটা পড়েন ৯৫ রানে। এবার নার্ভাস নাইন্টিজে আটকা পড়লেন না।

১১ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ২৩৩ বলে ১১৪ রান করলেন লিটন। এমন অনবদ্য ইনিংসের পর জানা গেল লিটন দাস ছাড়িয়ে গেছেন বর্তমান সময়ের দুই সেরা ব্যাটার বাবার আজম ও বিরাট কোহলিকে।

চলতি বছরে টেস্ট ফরম্যাটে পাকিস্তান ও ভারতের দুই অধিনায়ক থেকেও লিটনের রেকর্ড ভালো।

পরিসংখ্যান বলছে, চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের পর ২০২১ সালে ৯টি ইনিংসে লিটনের মোট সংগ্রহ ৪৮৩ রান। ব্যাটিং গড় ৬০.৩৭ রান। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস অপরাজিত ১১৩ রানের। 

অন্যদিকে পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম এই এক বর্ষে খেলেছেন লিটনের চেয়ে একটি বেশি ইনিংস। টেস্টে ১০ ইনিংসে তার মোট সংগ্রহ ৩১৭ রান। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস ৭৭ রানের।

কোহলিকেও পেছনে ফেলেছেন লিটন। ২০২১ সালে কোহলি ১৫টি টেস্ট ইনিংসে ৪৪৭ রান সংগ্রহ করেছেন। ব্যাটিং গড় ২৯.৮০। সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস ৭২ রানের। 

সেই নিরিখে বলাই যায় যে চলতি বছরে টেস্ট ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত ভারত ও পাকিস্তানের দুই  অধিনায়ককে টেক্কা দিয়েছেন লিটন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন