রোনাল্ডোর সাবেক ক্লাব জুভেন্টাসে পুলিশের অভিযান
jugantor
রোনাল্ডোর সাবেক ক্লাব জুভেন্টাসে পুলিশের অভিযান

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৫:২৯:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো তুরিন ছাড়ার পর জুভেন্টাসের পারফরম্যান্স আর আগের মতো নেই।

সিরি ‘আ’তে শিরোপা লড়াই থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়েছে জুভেন্টাস। এখন পর্যন্ত খেলা ১৪ ম্যাচের ৫টিতে হেরেছে তুরিনের দলটি।

মাঠের এই ভাটা পড়া পারফরম্যান্সের বাইরেও অর্থ কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছে জুভেন্টাসের কর্মকর্তারা। যে কারণে পুলিশি অভিযান চলেছে ক্লাবটিতে।

অভিযোগ, ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে দলবদল থেকে লভ্যাংশ আর এজেন্টদের ফি নিয়ে অনিয়ম করেছে তারা।

তদন্ত প্রতিবেদন বলছে, এই দুই বছরে ৪২ জন খেলোয়াড় কেনাবেচা করেছে জুভেন্টাস। এর মধ্যে রয়েছে মিরালেম পিয়ানিচ, আর্থুর, দানিলো ও হোয়া কানসেলোর মতো খেলোয়াড়দের দলবদলও। সেখানেই যত অনিয়ম করেছে ক্লাবটি।

জুভেন্টাসের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে ইতালির ফুটবলের বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে কাজ করা সংস্থা কভিসক ও অর্থ নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনসবও।

প্রথমে তদন্ত শুরু হয় জুভেন্টাসের ছয় কর্মকর্তার বিপক্ষে। কিন্তু পুলিশ তদন্ত করতে গিয়ে পেয়েছে প্রক্রিয়াটির সঙ্গে পুরো ক্লাবই জড়িত।

অর্থাৎ ক্লাবের সভাপতি আন্দ্রেয়া আগনেল্লি এবং সহসভাপতি ও ক্লাবটির কিংবদন্তি ফুটবলার পাভেল নেদভেদও অভিযুক্ত আর্থিক অনিয়মের দায়ে অভিযুক্ত এখন। তদন্তের আওতায় আছেন ক্লাবটির সাবেক ক্রীড়া পরিচালক ফাবিও পাত্রিসিও-ও।


তথ্যসূত্র: রয়টার্স, ইএসপিএন

রোনাল্ডোর সাবেক ক্লাব জুভেন্টাসে পুলিশের অভিযান

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো তুরিন ছাড়ার পর জুভেন্টাসের পারফরম্যান্স আর আগের মতো নেই।

সিরি ‘আ’তে শিরোপা লড়াই থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়েছে জুভেন্টাস। এখন পর্যন্ত খেলা ১৪ ম্যাচের ৫টিতে হেরেছে তুরিনের দলটি।

মাঠের এই ভাটা পড়া পারফরম্যান্সের বাইরেও অর্থ কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছে জুভেন্টাসের কর্মকর্তারা।  যে কারণে পুলিশি অভিযান চলেছে ক্লাবটিতে।

অভিযোগ, ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে দলবদল থেকে লভ্যাংশ আর এজেন্টদের ফি নিয়ে অনিয়ম করেছে তারা।

তদন্ত প্রতিবেদন বলছে, এই দুই বছরে ৪২ জন খেলোয়াড় কেনাবেচা করেছে জুভেন্টাস। এর মধ্যে রয়েছে মিরালেম পিয়ানিচ, আর্থুর, দানিলো ও হোয়া কানসেলোর মতো খেলোয়াড়দের দলবদলও। সেখানেই যত অনিয়ম করেছে ক্লাবটি।

জুভেন্টাসের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে ইতালির ফুটবলের বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে কাজ করা সংস্থা কভিসক ও অর্থ নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনসবও।

প্রথমে তদন্ত শুরু হয় জুভেন্টাসের ছয় কর্মকর্তার বিপক্ষে। কিন্তু পুলিশ তদন্ত করতে গিয়ে পেয়েছে প্রক্রিয়াটির সঙ্গে পুরো ক্লাবই জড়িত।

অর্থাৎ ক্লাবের সভাপতি আন্দ্রেয়া আগনেল্লি এবং সহসভাপতি ও ক্লাবটির কিংবদন্তি ফুটবলার পাভেল নেদভেদও অভিযুক্ত আর্থিক অনিয়মের দায়ে অভিযুক্ত এখন।  তদন্তের আওতায় আছেন ক্লাবটির সাবেক ক্রীড়া পরিচালক ফাবিও পাত্রিসিও-ও।


তথ্যসূত্র: রয়টার্স, ইএসপিএন

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন