৭ গোল খাওয়ার পর বাতিল হলো ম্যাচ
jugantor
৭ গোল খাওয়ার পর বাতিল হলো ম্যাচ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৯:৪৯:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

পর্তুগালের শীর্ষ লিগের খেলায় শনিবার বেনফিকার বিপক্ষে ৭ গোল খায় বেলেনেসেস। প্রাণহীন এই ম্যাচটি অবশ্য শেষ পর্যন্ত বাতিল ঘোষণা করা হয়।

করোনার কারণে এই ম্যাচে একাদশ সাজাতেই হিমশিম খায় বেলেনেসেস। তাদের স্কোয়াডে থাকা ২৬ জনের মধ্যে ১৭ জনই করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েন। যে কারণে মাঠে ১১ জনের জায়গায় ৯ জনের বেশি নামাতে পারেননি কোচ।

ম্যাচের প্রথমার্ধেই ৭-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে বেলেনেসেস। খেলার প্রথম মিনিটেই আত্মঘাতী গোল করেছেন ব্রাজিলিয়ান গোলকিপার এদুয়ার্দো সান্তোস।

বিরতি শেষে বেলেনেসেস যখন মাঠে নামে, তাদের খেলোয়াড়ের সংখ্যা আরও কমে গিয়ে হয় সাত। চোটের কারণে মাঠে নামতে পারেননি দুইজন।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের পরিস্থিতি আরও বাজে আকার ধারণ করে। ম্যাচের ৩৮ মিনিটে ফাউলের শিকার হয়ে মাঠে পড়ে যান বেলেনেসেসের এক খেলোয়াড়। চোটের কারণে উঠে দাঁড়াতে পারছিলেন না তিনি। ঠিক সেই সময়ে রেফারি খেলা বন্ধ করে দেন। পরে ম্যাচটি বাতিল ঘোষণা করা হয়। নিয়ম অনুযায়ী, কোনো দলে কমপক্ষে সাতজন খেলোয়াড় মাঠে না থাকলে খেলা হতে পারে না।

৯ জন খেলোয়াড় নিয়ে ম্যাচ শুরুর আগে বেলেনেসেসের সব খেলোয়াড় মিলে একটি বিবৃতি দিয়ে লিখেছেন- একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকলেই ফুটবলে প্রাণ থাকে। একমাত্র ক্রীড়াসুলভ হলেই ফুটবলে প্রাণ থাকে। একমাত্র গণমানুষের স্বাস্থ্যের উদাহরণ হতে পারলেই ফুটবলে প্রাণ থাকে। আজ ফুটবল তার প্রাণ হারিয়েছে।

৭ গোল খাওয়ার পর বাতিল হলো ম্যাচ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পর্তুগালের শীর্ষ লিগের খেলায় শনিবার বেনফিকার বিপক্ষে ৭ গোল খায় বেলেনেসেস। প্রাণহীন এই ম্যাচটি অবশ্য শেষ পর্যন্ত বাতিল ঘোষণা করা হয়।

করোনার কারণে এই ম্যাচে একাদশ সাজাতেই হিমশিম খায় বেলেনেসেস। তাদের স্কোয়াডে থাকা ২৬ জনের মধ্যে ১৭ জনই করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েন। যে কারণে মাঠে ১১ জনের জায়গায় ৯ জনের বেশি নামাতে পারেননি কোচ। 

ম্যাচের প্রথমার্ধেই ৭-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে বেলেনেসেস। খেলার প্রথম মিনিটেই আত্মঘাতী গোল করেছেন ব্রাজিলিয়ান গোলকিপার এদুয়ার্দো সান্তোস।

বিরতি শেষে বেলেনেসেস যখন মাঠে নামে, তাদের খেলোয়াড়ের সংখ্যা আরও কমে গিয়ে হয় সাত। চোটের কারণে মাঠে নামতে পারেননি দুইজন।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের পরিস্থিতি আরও বাজে আকার ধারণ করে। ম্যাচের ৩৮ মিনিটে ফাউলের শিকার হয়ে মাঠে পড়ে যান বেলেনেসেসের এক খেলোয়াড়। চোটের কারণে উঠে দাঁড়াতে পারছিলেন না তিনি। ঠিক সেই সময়ে রেফারি খেলা বন্ধ করে দেন। পরে ম্যাচটি বাতিল ঘোষণা করা হয়। নিয়ম অনুযায়ী, কোনো দলে কমপক্ষে সাতজন খেলোয়াড় মাঠে না থাকলে খেলা হতে পারে না।

৯ জন খেলোয়াড় নিয়ে ম্যাচ শুরুর আগে বেলেনেসেসের সব খেলোয়াড় মিলে একটি বিবৃতি দিয়ে লিখেছেন- একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকলেই ফুটবলে প্রাণ থাকে। একমাত্র ক্রীড়াসুলভ হলেই ফুটবলে প্রাণ থাকে। একমাত্র গণমানুষের স্বাস্থ্যের উদাহরণ হতে পারলেই ফুটবলে প্রাণ থাকে। আজ ফুটবল তার প্রাণ হারিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন