মেসির ৩০০ কোটি টাকার হোটেলটি ভেঙে ফেলার নির্দেশ
jugantor
মেসির ৩০০ কোটি টাকার হোটেলটি ভেঙে ফেলার নির্দেশ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৪১:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

সপ্তম ব্যালন ডি’অর জয় কি দুর্ভাগ্যের দুয়ারে ঠেলে দিল লিওনেল মেসিকে? এ প্রশ্ন উঠতেই পারে।

কারণ গত সোমবার পুরস্কারটি হাতে নেওয়ার পর থেকে সময়টা ভালো যাচ্ছে না পিএসজিমহাতারকার।

প্রথমেই অসুস্থ হয়ে পড়েন, বমি করেন কয়েকবার। আমাশয় হয় তার। মাঠের লড়াইয়েও স্বস্তি নেই। ব্যালন ডি’অর জেতার ঠিক পরের ম্যাচেই পিএসজির হয়ে মাঠে নেমে ম্যাচ ড্র করেছিলেন মেসি। এরইমধ্যে তার ব্যালন ডি’অর জয় নিয়ে সমালোচনা-বিতর্ক চলছেই।

এবার মেসি শুনলেন আরও বড় দুঃসংবাদ। স্পেনের কাতালুনিয়া শহরে থাকা তার ২৬ মিলিয়ন পাউন্ডের (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩০০ কোটি টাকা) হোটেল ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বার্সেলোনা আদালত।
হোটেলটির নাম ‘মিম সিটগেস’। ৭৭ বেডরুমের ওই হোটেলটি শহরের নিয়ম অনুযায়ী নির্মাণ হয়নি জানিয়ে এই নির্দেশ দেন আদালত।


স্পেনের দৈনিক এল কনফিডেনশিয়াল জানিয়েছে, তবে হোটেলটি এখনই ভাঙা হবে না। নির্দেশটি এখনও মুলতবি আছে।

তবে এমন নির্দেশনার বিষয়ে মেসির পক্ষ থেকে এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি।

২০১৭ সালে মেসির ৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগে সমুদ্র থেকে ১০০ ফুট দূরে ‘মিম সিটগেসে’ হোটেলটি নির্মিত হয়।

তথ্যসূত্র: দ্য সান

মেসির ৩০০ কোটি টাকার হোটেলটি ভেঙে ফেলার নির্দেশ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সপ্তম ব্যালন ডি’অর জয় কি দুর্ভাগ্যের দুয়ারে ঠেলে দিল লিওনেল মেসিকে? এ প্রশ্ন উঠতেই পারে।

কারণ গত সোমবার পুরস্কারটি হাতে নেওয়ার পর থেকে সময়টা ভালো যাচ্ছে না পিএসজি মহাতারকার।

প্রথমেই অসুস্থ হয়ে পড়েন, বমি করেন কয়েকবার। আমাশয় হয় তার।  মাঠের লড়াইয়েও স্বস্তি নেই। ব্যালন ডি’অর জেতার ঠিক পরের ম্যাচেই পিএসজির হয়ে মাঠে নেমে ম্যাচ ড্র করেছিলেন মেসি। এরইমধ্যে তার ব্যালন ডি’অর জয় নিয়ে সমালোচনা-বিতর্ক চলছেই। 

এবার মেসি শুনলেন আরও বড় দুঃসংবাদ। স্পেনের কাতালুনিয়া শহরে থাকা তার ২৬ মিলিয়ন পাউন্ডের (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩০০ কোটি টাকা) হোটেল ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বার্সেলোনা আদালত। 
হোটেলটির নাম ‘মিম সিটগেস’।  ৭৭ বেডরুমের ওই হোটেলটি শহরের নিয়ম অনুযায়ী নির্মাণ হয়নি জানিয়ে এই নির্দেশ দেন আদালত। 


স্পেনের দৈনিক এল কনফিডেনশিয়াল জানিয়েছে, তবে হোটেলটি এখনই ভাঙা হবে না।  নির্দেশটি এখনও মুলতবি আছে। 

তবে এমন নির্দেশনার বিষয়ে মেসির পক্ষ থেকে এখনো কোনো মন্তব্য আসেনি।

২০১৭ সালে মেসির ৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগে সমুদ্র থেকে ১০০ ফুট দূরে ‘মিম সিটগেসে’ হোটেলটি নির্মিত হয়।

তথ্যসূত্র: দ্য সান

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন