রফিকের অভিযোগে বরখাস্ত পুরো কোচিং প্যানেল
jugantor
রফিকের অভিযোগে বরখাস্ত পুরো কোচিং প্যানেল

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:৪১:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে ঘটল ঐতিহাসিক ঘটনা। সাবেক ক্রিকেটার আজিম রফিকের অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে ইয়র্কশায়ার ক্লাবের পুরো কোচিং প্যানেলকে।

এ ঘটনায় ক্লাবটির ম্যানেজম্যান্টের বেশ কয়েকজন সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে ইয়র্কশায়ারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ক্লাবের ক্রিকেট পরিচালক মার্টিন মক্সোন এবং প্রথম একাদশের কোচ অ্যান্ড্রু গ্যালও ক্লাব ছেড়ে দিয়েছেন। শিগগিরই নতুন ক্রিকেট পরিচালক নিয়োগ দেওয়া হবে। এছাড়া অন্তর্বর্তীকালীন সময়ের জন্য মেডিকেল টিমও নিয়োগ দেওয়া হবে। পরবর্তী সিদ্ধান্তের বিষয়ে ঘোষণা যথাসময়ে দেওয়া হবে।

বর্ণবৈষম্যের মতো ঘৃণ্য আচরণে বিদ্ধ ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেট। গেল কয়েক মাস ধরেই এ নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে।

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ক্রিকেটার রফিকের এক অভিযোগের ভিত্তিতে এ শোরগোল শুরু হয়।

ইংল্যান্ড ক্রিকেটকে ‘প্রাতিষ্ঠানিকভাবে’ বর্ণবাদী আখ্যা দেন তিনি।

ব্রিটিশ সংসদের ডিজিটাল, সংস্কৃতি, মিডিয়া ও স্পোর্টস কমিটিকে দেওয়া বক্তব্যে ৩০ বছর বয়সি রাফিক জানান, তিনি যখন ইয়র্কশায়ারে খেলতেন তখন সবসময় বর্ণবাদী ভাষা ব্যবহার করা হতো। ২০১৭ সালে তার সন্তান জন্মের সময় মারা যাওয়ার পর ইয়র্কশায়ার ক্লাব তার সঙ্গে ‘অমানবিক’ আচরণ করেছে। ইয়র্কশায়ারে তিনি যেসব পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন তা ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে ব্যাপক ভাবে ঘটছিল, তা নিয়ে তার ‘কোনো সন্দেহ নেই।’

বিবিসি বাংলায় আজিম রাফিককে নিয়ে গত নভেম্বরে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

এদিকে রফিকের অভিযোগের পর পর ক্লাবের চেয়ারম্যান রজার হাটন পদত্যাগ করেন।

তথ্যসূত্র: ক্রিকেট এডিক্টর

রফিকের অভিযোগে বরখাস্ত পুরো কোচিং প্যানেল

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে ঘটল ঐতিহাসিক ঘটনা। সাবেক ক্রিকেটার আজিম রফিকের অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে ইয়র্কশায়ার ক্লাবের পুরো কোচিং প্যানেলকে।

এ ঘটনায় ক্লাবটির ম্যানেজম্যান্টের বেশ কয়েকজন সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে ইয়র্কশায়ারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ক্লাবের ক্রিকেট পরিচালক মার্টিন মক্সোন এবং প্রথম একাদশের কোচ অ্যান্ড্রু গ্যালও ক্লাব ছেড়ে দিয়েছেন। শিগগিরই নতুন ক্রিকেট পরিচালক নিয়োগ দেওয়া হবে। এছাড়া অন্তর্বর্তীকালীন সময়ের জন্য মেডিকেল টিমও নিয়োগ দেওয়া হবে। পরবর্তী সিদ্ধান্তের বিষয়ে ঘোষণা যথাসময়ে দেওয়া হবে।

বর্ণবৈষম্যের মতো ঘৃণ্য আচরণে বিদ্ধ ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেট।  গেল কয়েক মাস ধরেই এ নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে। 

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ক্রিকেটার রফিকের এক অভিযোগের ভিত্তিতে এ শোরগোল শুরু হয়।

ইংল্যান্ড ক্রিকেটকে ‘প্রাতিষ্ঠানিকভাবে’ বর্ণবাদী আখ্যা দেন তিনি। 

ব্রিটিশ সংসদের ডিজিটাল, সংস্কৃতি, মিডিয়া ও স্পোর্টস কমিটিকে দেওয়া বক্তব্যে ৩০ বছর বয়সি রাফিক জানান, তিনি যখন ইয়র্কশায়ারে খেলতেন তখন সবসময় বর্ণবাদী ভাষা ব্যবহার করা হতো। ২০১৭ সালে তার সন্তান জন্মের সময় মারা যাওয়ার পর ইয়র্কশায়ার ক্লাব তার সঙ্গে ‘অমানবিক’ আচরণ করেছে। ইয়র্কশায়ারে তিনি যেসব পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন তা ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে যে ব্যাপক ভাবে ঘটছিল, তা নিয়ে তার ‘কোনো সন্দেহ নেই।’

বিবিসি বাংলায় আজিম রাফিককে নিয়ে গত নভেম্বরে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

এদিকে রফিকের অভিযোগের পর পর ক্লাবের চেয়ারম্যান রজার হাটন পদত্যাগ করেন। 

তথ্যসূত্র: ক্রিকেট এডিক্টর

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন