নিজ দেশের সাংবাদিকই রোনালদোকে ভোট দেয়নি!
jugantor
নিজ দেশের সাংবাদিকই রোনালদোকে ভোট দেয়নি!

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:২০:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

গত সোমবার ফুটবলের ইতিহাসে রেকর্ড সপ্তমবারের মতো ব্যালন ডি’অর শিরোপা জিতেছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

গত এক যুগে পুরস্কারটির লড়াইয়ে মেসি-রোনালদোরই আধিপত্য ছিল। তবে এবারের ব্যালন ডি’অর শিরোপা জয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মেসির চেয়ে বেশ পিছিয়েই ছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

এবার মেসির সঙ্গে পাল্লা দিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডফস্কি ও চেলসির ইতালিয়ান তারকা জর্জিনহো।

মর্যাদাকর এ লড়াইয়ের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়। প্রথমে ১৮০ জন নির্বাচিত সাংবাদিকের ভোটে ৩০ ফুটবলারের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়। এরপর সেখান থেকে ৫০ জন বিশেষজ্ঞ সাংবাদিক সেরা পাঁচ খেলোয়াড় নির্বাচন করেন।

প্রত্যেক সাংবাদিক পাঁচজন খেলোয়াড়কে ক্রমানুসারে ভোট দিতে পারেন। নিয়ম অনুযায়ী তালিকার প্রথমে থাকা খেলোয়াড় ৬ পয়েন্ট পাবেন। দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম ফুটবলার পাবেন যথাক্রমে- ৪, ৩, ২ ও ১ পয়েন্ট করে।

দ্বিতীয় ধাপের ৫০ বিশেষজ্ঞ সাংবাদিকের একজন পর্তুগালের জোয়াকিম রিটার। রিটারের পাঁচ ভোটের একটিও পাননি স্বদেশি রোনালদো। ১৭৮ পয়েন্ট নিয়ে রোনালদো ছিলেন তালিকায় সবার শেষে ষষ্ঠ স্থানে। ২০১০ সালের পর এটাই ব্যালন ডি’অরে রোনালদোর সবচেয়ে খারাপ অবস্থান।

সূত্র: মিরর, ডেইলিস্টার ডট ইউকে।

নিজ দেশের সাংবাদিকই রোনালদোকে ভোট দেয়নি!

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গত সোমবার ফুটবলের ইতিহাসে রেকর্ড সপ্তমবারের মতো ব্যালন ডি’অর শিরোপা জিতেছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি। 

গত এক যুগে পুরস্কারটির লড়াইয়ে মেসি-রোনালদোরই আধিপত্য ছিল। তবে এবারের ব্যালন ডি’অর শিরোপা জয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মেসির চেয়ে বেশ পিছিয়েই ছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। 

এবার মেসির সঙ্গে পাল্লা দিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডফস্কি ও চেলসির ইতালিয়ান তারকা জর্জিনহো। 

মর্যাদাকর এ লড়াইয়ের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়। প্রথমে ১৮০ জন নির্বাচিত সাংবাদিকের ভোটে ৩০ ফুটবলারের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়। এরপর সেখান থেকে ৫০ জন বিশেষজ্ঞ সাংবাদিক সেরা পাঁচ খেলোয়াড় নির্বাচন করেন। 

প্রত্যেক সাংবাদিক পাঁচজন খেলোয়াড়কে ক্রমানুসারে ভোট দিতে পারেন। নিয়ম অনুযায়ী তালিকার প্রথমে থাকা খেলোয়াড় ৬ পয়েন্ট পাবেন। দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম ফুটবলার পাবেন যথাক্রমে- ৪, ৩, ২ ও ১ পয়েন্ট করে। 

দ্বিতীয় ধাপের ৫০ বিশেষজ্ঞ সাংবাদিকের একজন পর্তুগালের জোয়াকিম রিটার। রিটারের পাঁচ ভোটের একটিও পাননি স্বদেশি রোনালদো। ১৭৮ পয়েন্ট নিয়ে রোনালদো ছিলেন তালিকায় সবার শেষে ষষ্ঠ স্থানে। ২০১০ সালের পর এটাই ব্যালন ডি’অরে রোনালদোর সবচেয়ে খারাপ অবস্থান।

সূত্র: মিরর, ডেইলিস্টার ডট ইউকে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন