বোথাম-সোবার্সকে পেছনে ফেলে সাকিবের আরও একটি রেকর্ড
jugantor
বোথাম-সোবার্সকে পেছনে ফেলে সাকিবের আরও একটি রেকর্ড

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:৫১:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ফিফটি করেছেন সাকিব আল হাসান। এ ফিফটির মাধ্যমে টেস্টে দ্রুততম ৪০০০ হাজার রান ও ২০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করলেন এ অলরাউন্ডার।

মাত্র ৫৯ ম্যাচ খেলে সাকিব এ মাইলফলক স্পর্শ করেছেন।

এর আগেও টেস্ট ক্রিকেটেরকিংবদন্তিদের বহু রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

এ ক্লাবে থাকা স্যার ইয়ান বোথাম এ মাইলফলক স্পর্শ করতে খেলেছেন ৬৯ ম্যাচ, স্যার গ্যারি সোবার্স ৮০ ম্যাচ, কপিল দেব ৯৭ ম্যাচ, ড্যানিয়েল ভেট্টরি ১০১ ম্যাচও জ্যাক ক্যালিস ১০২ ম্যাচ।

ঢাকা টেস্টের পঞ্চম দিনে ম্যাচ বাঁচাতে লড়ছে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসান অপরাজিত রয়েছেন ৫১ রানে। এখন বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৮৯।

ঢাকা টেস্টের প্রথম তিন দিনই ছিল বৃষ্টি। তিন দিনে অন্তত ৯০ ওভার করে ২৭০ ওভার খেলা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু খেলা হয়েছে সর্বসাকুল্যে ৬৩.৩ ওভার।

মঙ্গলবার চতুর্থ দিনে ফের ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৫ ওভার খেলে ২ উইকেট হারিয়ে ১১২ রান তুলে ৩০০/৪ রানে ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সময়ের ব্যবধানে উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সেদিন ২০.৪ ওভারে ৭১ রানে ৭ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।

ঢাকা টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয় এড়াতে হলে বুধবার শেষ দিনে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করতে হবে টাইগারদের।

এমন পরিস্থিতিতে সকালে মাঠে নেমে ৮৭ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

বোথাম-সোবার্সকে পেছনে ফেলে সাকিবের আরও একটি রেকর্ড

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ফিফটি করেছেন সাকিব আল হাসান। এ ফিফটির মাধ্যমে টেস্টে দ্রুততম ৪০০০ হাজার রান ও ২০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করলেন এ অলরাউন্ডার।

মাত্র ৫৯ ম্যাচ খেলে সাকিব এ মাইলফলক স্পর্শ করেছেন।

এর আগেও টেস্ট ক্রিকেটের কিংবদন্তিদের বহু রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন সাকিব আল হাসান। 

এ ক্লাবে থাকা স্যার ইয়ান বোথাম এ মাইলফলক স্পর্শ করতে খেলেছেন ৬৯ ম্যাচ, স্যার গ্যারি সোবার্স ৮০ ম্যাচ, কপিল দেব ৯৭ ম্যাচ, ড্যানিয়েল ভেট্টরি ১০১ ম্যাচ ও জ্যাক ক্যালিস ১০২ ম্যাচ।

ঢাকা টেস্টের পঞ্চম দিনে ম্যাচ বাঁচাতে লড়ছে বাংলাদেশ।  সাকিব আল হাসান অপরাজিত রয়েছেন ৫১ রানে। এখন বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৮৯।

ঢাকা টেস্টের প্রথম তিন দিনই ছিল বৃষ্টি। তিন দিনে অন্তত ৯০ ওভার করে ২৭০ ওভার খেলা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু খেলা হয়েছে সর্বসাকুল্যে ৬৩.৩ ওভার। 

মঙ্গলবার চতুর্থ দিনে ফের ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৫ ওভার খেলে ২ উইকেট হারিয়ে ১১২ রান তুলে ৩০০/৪ রানে ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান। 

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে সময়ের ব্যবধানে উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সেদিন ২০.৪ ওভারে ৭১ রানে ৭ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। 

ঢাকা টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে পরাজয় এড়াতে হলে বুধবার শেষ দিনে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করতে হবে টাইগারদের।

এমন পরিস্থিতিতে সকালে মাঠে নেমে ৮৭ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন