সালাহতে স্বপ্ন দেখছে মিসর

  যুগান্তর ডেস্ক    ২১ মে ২০১৮, ১৫:২০ | অনলাইন সংস্করণ

সালাহ,

আর মাত্র ২৪ দিন পর পর্দা উঠছে রাশিয়া বিশ্বকাপের। এ নিয়ে এক এক করে ২১তম বারের মতো মঞ্চায়িত হতে যাচ্ছে বিশ্ব ফুটবল। ফুটবলপাড়ায় তা বয়ে এনেছে অপার আনন্দের উপলক্ষ। তা মঞ্চায়নের আগেই শুরু হয়ে গেছে তর্ক-বিতর্ক। প্রতিটি দলের সমস্যা-সম্ভবনা ও সমাধান নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ।

এবারের ফুটবলের সর্বোচ্চ আসরে অংশ নেবে মিসর। গ্রুপ-এ অপার সম্ভাবনাময় দলকে নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন।

যেভাবে পেল রাশিয়ার টিকিট : নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে তৃতীয়বারের মতো বিশ্ব মঞ্চে পিরামিডের দেশটি। বাছাইপর্বের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আলেকজান্দ্রিয়া স্টেডিয়ামে কঙ্গো গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে গোটা মিসরবাসীকে উল্লাসে মাতান মোহাম্মদ সালাহ। তার জোড়া গোলেই বিশ্বকাপের টিকিট কাটে মিসর। আফ্রিকার প্রথম দেশ হিসেবে বিশ্বযুদ্ধের মিশনে পা রাখেন তারা।

এ নিয়ে প্রায় ২৮ বছর পর ফুটবলের সবচেয়ে বড় মহাযজ্ঞে অংশ নিতে যাচ্ছে মিসর। এর আগে ১৯৩৪ ও ১৯৯০ বিশ্বকাপে খেলে মুসলিমপ্রধান দেশটি। ১৯৩৪ ইতালি বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ডে হটফেভারিট হাঙ্গেরিকে ৪-২ গোলে উড়িয়ে দেন তারা।

এর পর ১৯৯০ বিশ্বকাপে সেই ইতালির মাটিতেই চমক অব্যাহত রাখে নীলনদের দেশটি। গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই ম্যাচে নেদারল্যান্ডস ও আয়ারল্যান্ডকে জয়বঞ্চিত করে দলটি। শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করে পরাজিত হয় মিসর।

এর পর রাজনৈতিক গ্যাঁড়াকলে পড়ে পথ হারায় দেশটির ফুটবল। ধীরে ধীরে ফের ফির আসতে শুরু করেছে অতীত গৌরব।

বাজির ঘোড়া: নিঃসন্দেহে এবার মিসরের বাজির ঘোড়া মোহাম্মদ সালাহ। যুগ-যুগান্তরে দেশটির অবিসংবাদিত সেরা খেলোয়াড় তিনি। শুধু তাই নয়, এ মুহূর্তে বিশ্বেরই অন্যতম সেরা খেলোয়াড় এ জাদুকর। লিওনেল মেসি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, নেইমারের কাতারেই তার নাম উচ্চারিত হচ্ছে।

উচ্চারিত হওয়ারই কথা। চলতি মৌসুমটা দারুণ কাটিয়েছেন সালাহ। লিভারপুলের হয়ে রীতিমতো চোখ ধাঁধানো পারফর্ম করছেন তিনি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নিজের নামের পাশে লিখেছেন ৪৪ গোল। সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন ১৬ গোল। তার হাত ধরেই ১১ বছর পর চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে উঠেছে অলরেডরা। আর ১৩ বছর পর ইউরোপের সবচেয়ে মর্যাদার শিরোপা ঘরে তোলার স্বপ্ন দেখছেন তারা। স্বাভাবিকভাবে এবারের বিশ্বকাপে বাজির ঘোড়া তিনিই।

সালাহতে স্বপ্ন দেখছে মিসর : সালাহর বাঁ পায়ের কারিকুরিতে মুগ্ধ ফুটবল বিশ্বের অনুরাগীরা। যার বদৌলতে এ জাদুকরের জনপ্রিয়তাও ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। মিলছে একের পর এক সাফল্যের স্বীকৃতিও। সদ্যই জিতেছেন প্রিমিয়ার লিগে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার।

এর আগে জেতেন লিভারপুলের সেরা খেলোয়াড়, প্লেয়ার্স অব দ্য সিজন, ফুটবল রাইটার্স অ্যাসোসিয়েশন ট্রফি, পেশাদার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (পিএফএ) বর্ষসেরা পুরস্কার। একটুর জন্য বগলদাবা করা হয়নি ইউরোপিয়ান গোল্ডেন সুর (সোনার জুতা) পুরস্কার। মেসির সঙ্গে শেষ পর্যন্ত পাল্লা দিয়ে হেরে গেছেন।

শুধু তাই নয়, বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আফ্রিকা অঞ্চলের সেরা গোলদাতা ছিলেন মিসরীয় ফরোয়ার্ড। অদ্যাবধি ৫৭ ম্যাচে ৩৩ গোল করে দেশের পক্ষে চতুর্থ সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। সঙ্গত কারণে তাকে ঘিরেই রাশিয়া বিশ্বকাপে অঘটনের স্বপ্ন দেখছে ইতিহাস-ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ দেশটি।

অন্যান্য তারকা: মিসর সালাহর ওপর নির্ভশীল হলেও অতিমাত্রায় নয়। দলকে জয় এনে দেয়ার মতো তারকাও আছেন। রয়েছেন তারেক হামিদ, আহমেদ গোমা, রামাদান সোবহির মতো বেশ কয়েকজন খেলেয়াড়। অঘটন ঘটাতে যারা রাখতে পারেন মুখ্য ভূমিকা।

মিসরের সম্ভাবনা : বিশ্বকাপে মিসরের গ্রুপসঙ্গী রাশিয়া, সৌদি আরব ও উরুগুয়ে। গভীরভাবে পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে, নকআউট পর্বে ওঠার ক্ষেত্রে স্বাগতিক হিসেবে বিশেষ সুবিধা ভোগ করবে রাশিয়া। দুবারের বিশ্বকাপজয়ী উরুগুয়েও একেবারে ফেলনা নয়। সুয়ারেজ-এডিসন কাভানি ও ক্রিশ্চিয়ান রদ্রিগেজেদের হাত ধরে চমকে দিতে পারে দলটি। সৌদি আরবও মন্দ নয়।

তবে সালাহ-হামিদরা নিজের সেরাটা দিতে পারলে অনায়াসে সেসব বাধা টপকে যাবে মিসর। প্রথম রাউডের বৈতরণী পার হয়ে বহুদূর যাবে দলটি বলে প্রত্যাশা ফুটবল বোদ্ধাদের।

আগামী ১৫ জুন। উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে স্বপ্ন অভিযান শুরু করবে মিসর।

মিসরের সম্ভাব্য স্কোয়াড:

গোলরক্ষক : মোহাম্মদ আওয়াদ, এশাম এল হাদারি ও মোহাম্মদ এল শেনাউই।

রক্ষণভাগ : মোহাম্মদ আব্দেল শাফি, আহমেদ এল মোহামাদি, আহমেদ ফাতিহ, ওমর জাবের, আলি গাবর, আহমেদ হেজাজি ও সাদ সামির।

মিডফিল্ডার : হোশাম আশুর, হুসেইন এল সাহাত, মোহাম্মদ এলনেনি, তারেক হামিদ, মোহাম্মদ মাগদি, আবদুল্লাহ সাইদ ও মাহামুদ হাসান ত্রেজেগে।

ফরোয়ার্ড : মোহাম্মদ সালাহ, কাহরাবা কুকে, মারওয়ান মোহসিন, রামাদান শোভি ও মোমেন জাকারিয়া।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×