‘কোহলির জায়গায় থাকলে বিয়ে না করে খেলা উপভোগ করতাম’
jugantor
‘কোহলির জায়গায় থাকলে বিয়ে না করে খেলা উপভোগ করতাম’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৩ জানুয়ারি ২০২২, ২২:২৭:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের কিংবদন্তি পেসার শোয়েব আখতার মনে করেন, কোহলির পারফরম্যান্সের অবনতির পেছনে দায়ী তার স্ত্রী আনুশকা শর্মা। বিয়ের প্রভাবই খারাপভাবে পড়েছে কোহলির ওপর। কোহলির জায়গায় থাকলে শোয়েব নাকি বিয়েই করতেন না।

কোহলির ধারাবাহিকতার অভাবের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শোয়েব আখতার বলেছেন, আমি ওর জায়গায় থাকলে বিয়েও করতাম না। আমি শুধু রান করতাম এবং ক্রিকেটটা উপভোগ করতাম। এই ১০-১২ বছরের ক্রিকেট খেলাটা একটা আলাদা সময়। এটা আর ফেরত আসে না।

ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুতগতির পেসার শোয়েব আখতার আরও বলেন, আমি বলছি না বিয়ে করা ভুল। কিন্তু কোহলি ভারতের হয়ে ভালো খেলছিল, সেটা আরও একটু উপভোগ করতে পারত। ভক্তরা কোহলির জন্য পাগল এবং গত ২০ বছর ধরে ও যে ভালোবাসা পাচ্ছে, সেটা এখনো ওকে বজায় রাখতে হবে।

ক্রিকেট থেকে অবসরে ধারাভাষ্যকে পেশা হিসেবে নেওয়া শোয়েব আখতার আরও বলেন, ক্রিকেটারদের ১৪-১৫ বছরের ছোট ক্যারিয়ার। যেখানে পাঁচ-ছয় বছর শীর্ষে থাকে কোনো ক্রিকেটার। বিরাট সেই বছরগুলো কাটিয়ে এসেছে। এখন ওকে সংগ্রাম করতে হচ্ছে।

পাকিস্তানের এই সাবেক তারকা ক্রিকেটার আরও বলেন, বিরাট কোহলি ৬-৭ বছর ধরে অধিনায়কত্ব করেছেন। তবে আমি কখনই ওর অধিনায়কত্বের পক্ষে ছিলাম না। আমি শুধু চেয়েছিলাম ও ১০০, ১২০ রান করতে থাকুক এবং ওর ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দিক।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

‘কোহলির জায়গায় থাকলে বিয়ে না করে খেলা উপভোগ করতাম’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের কিংবদন্তি পেসার শোয়েব আখতার মনে করেন, কোহলির পারফরম্যান্সের অবনতির পেছনে দায়ী তার স্ত্রী আনুশকা শর্মা। বিয়ের প্রভাবই খারাপভাবে পড়েছে কোহলির ওপর। কোহলির জায়গায় থাকলে শোয়েব নাকি বিয়েই করতেন না।

কোহলির ধারাবাহিকতার অভাবের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শোয়েব আখতার বলেছেন, আমি ওর জায়গায় থাকলে বিয়েও করতাম না। আমি শুধু রান করতাম এবং ক্রিকেটটা উপভোগ করতাম। এই ১০-১২ বছরের ক্রিকেট খেলাটা একটা আলাদা সময়। এটা আর ফেরত আসে না। 

ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুতগতির পেসার শোয়েব আখতার আরও বলেন, আমি বলছি না বিয়ে করা ভুল। কিন্তু কোহলি ভারতের হয়ে ভালো খেলছিল, সেটা আরও একটু উপভোগ করতে পারত। ভক্তরা কোহলির জন্য পাগল এবং গত ২০ বছর ধরে ও যে ভালোবাসা পাচ্ছে, সেটা এখনো ওকে বজায় রাখতে হবে।

ক্রিকেট থেকে অবসরে ধারাভাষ্যকে পেশা হিসেবে নেওয়া শোয়েব আখতার আরও বলেন, ক্রিকেটারদের ১৪-১৫ বছরের ছোট ক্যারিয়ার। যেখানে পাঁচ-ছয় বছর শীর্ষে থাকে কোনো ক্রিকেটার। বিরাট সেই বছরগুলো কাটিয়ে এসেছে। এখন ওকে সংগ্রাম করতে হচ্ছে।

পাকিস্তানের এই সাবেক তারকা ক্রিকেটার আরও বলেন, বিরাট কোহলি ৬-৭ বছর ধরে অধিনায়কত্ব করেছেন। তবে আমি কখনই ওর অধিনায়কত্বের পক্ষে ছিলাম না। আমি শুধু চেয়েছিলাম ও ১০০, ১২০ রান করতে থাকুক এবং ওর ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দিক।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন