শোয়েবকে তুলোধোনা করলেন আনুশকার ভক্তরা
jugantor
শোয়েবকে তুলোধোনা করলেন আনুশকার ভক্তরা

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৪:৫২:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

শোয়েবকে তুলোধোনা করলেন আনুশকার ভক্তরা

বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা ও তার স্বামী ক্রিকেটার বিরাট কোহলি তাদের মেয়ে ভামিকার ছবি প্রকাশ করতে চাচ্ছিলেন না।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে— কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না, ভামিকার ছবি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। এর পরেই পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট তারকা শোয়েব আখতারের মন্তব্য— বিয়ে করে বিপদে কোহলি।

শোয়েব আখতারের ওই মন্তব্যে বেজায় খেপেছেন আনুশকার ভক্তরা। কোহলির মাঠের পারফরম্যান্সকে ইঙ্গিত করে শোয়েবের ওই মন্তব্য ভালোভাবে নেননি সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ।

তাদের দাবি— শোয়েবের ওই উক্তি ‘বোকা যুক্তি’ ছাড়া আর কিছু নয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে— আনুশকার ভক্তরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে শোয়েবের মন্তব্যকে ‘লজ্জাজনক’ বলে অভিহিত করেছেন।

তাদের দাবি, বিরাট কোহলির ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে শোয়েব মন্তব্য করেছেন শুধু দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য। তার উচিত, ক্ষমা চাওয়া।

একজন নেটিজেন শোয়েবের মন্তব্যকে হাস্যকর উল্লেখ করে লিখেছেন— আনুশকা-কোহলির সম্পর্ক ২০১৩ সালে, বিয়ে করেছেন ২০১৭ সালে। শোয়েবের উচিত বিরাটের ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালের রেকর্ড দেখা। ২০১৮ সালে ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে ছিলেন কোহলি।

পুরনো উদাহরণ টেনে ওই কোহলি ভক্ত আরও লিখেছেন— কপিল দেব বিয়ের পর ১৯৮৩ সালে বিশ্বকাপ জেতেন। বিয়ের পর ২০১১ সালে বিশ্বকাপ জেতেন ধোনি। বিয়ের পর ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ জেতেন বিরাট। তা হলে বিয়ের সঙ্গে ক্রিকেটীয় পারফরম্যান্সের সম্পর্ক কোথায়, প্রশ্ন অন্তর্জালবাসীর।

ভারতীয় পত্রিকা দৈনিক জাগরণকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শোয়েব আখতার বলেন, ‘আমি বিরাট কোহলির জায়গায় থাকলে বিয়ে করতাম না। শুধু রান করতাম ও ক্রিকেটটা উপভোগ করতাম। ক্রিকেটে ১০-১২ বছর একটা সেরা সময় যায়। এটি আর ফিরে আসে না।’

সাবেক এই গতি তারকা আরও বলেন, ‘আমি বলছি না বিয়ে করা ভুল। কিন্তু ও যেভাবে ভারতের হয়ে ভালো খেলছিল, সেটি আরও একটু উপভোগ করতে পারত। ভক্তরা কোহলির জন্য উন্মাদ। ২০ বছর ধরে ও যে ভালোবাসা পাচ্ছে, সেটি ওকে ধরে রাখতে হবে।’

প্রসঙ্গত ২০১৭ সালে বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী আনুশকা শর্মাকে বিয়ে করেন কোহলি। গত বছরের ১১ জানুয়ারি মা-বাবা হয়েছেন এই দম্পতি।

শোয়েবকে তুলোধোনা করলেন আনুশকার ভক্তরা

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শোয়েবকে তুলোধোনা করলেন আনুশকার ভক্তরা
ছবি: সংগৃহীত

বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা ও তার স্বামী ক্রিকেটার বিরাট কোহলি তাদের মেয়ে ভামিকার ছবি প্রকাশ করতে চাচ্ছিলেন না। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে— কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না, ভামিকার ছবি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। এর পরেই পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট তারকা শোয়েব আখতারের মন্তব্য— বিয়ে করে বিপদে কোহলি।

শোয়েব আখতারের ওই মন্তব্যে বেজায় খেপেছেন আনুশকার ভক্তরা। কোহলির মাঠের পারফরম্যান্সকে ইঙ্গিত করে শোয়েবের ওই মন্তব্য ভালোভাবে নেননি সোশ্যাল মিডিয়ার একাংশ। 

তাদের দাবি— শোয়েবের ওই উক্তি ‘বোকা যুক্তি’ ছাড়া আর কিছু নয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে— আনুশকার ভক্তরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে শোয়েবের মন্তব্যকে ‘লজ্জাজনক’ বলে অভিহিত করেছেন। 

তাদের দাবি, বিরাট কোহলির ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে শোয়েব মন্তব্য করেছেন শুধু দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য। তার উচিত, ক্ষমা চাওয়া।

একজন নেটিজেন শোয়েবের মন্তব্যকে হাস্যকর উল্লেখ করে লিখেছেন— আনুশকা-কোহলির সম্পর্ক ২০১৩ সালে, বিয়ে করেছেন ২০১৭ সালে। শোয়েবের উচিত বিরাটের ২০১৭, ২০১৮ ও ২০১৯ সালের রেকর্ড দেখা। ২০১৮ সালে ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে ছিলেন কোহলি।

পুরনো উদাহরণ টেনে ওই কোহলি ভক্ত আরও লিখেছেন— কপিল দেব বিয়ের পর ১৯৮৩ সালে বিশ্বকাপ জেতেন। বিয়ের পর ২০১১ সালে বিশ্বকাপ জেতেন ধোনি। বিয়ের পর ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ জেতেন বিরাট। তা হলে বিয়ের সঙ্গে ক্রিকেটীয় পারফরম্যান্সের সম্পর্ক কোথায়, প্রশ্ন অন্তর্জালবাসীর।

ভারতীয় পত্রিকা দৈনিক জাগরণকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শোয়েব আখতার বলেন, ‘আমি বিরাট কোহলির জায়গায় থাকলে বিয়ে করতাম না। শুধু রান করতাম ও ক্রিকেটটা উপভোগ করতাম। ক্রিকেটে ১০-১২ বছর একটা সেরা সময় যায়। এটি আর ফিরে আসে না।’

সাবেক এই গতি তারকা আরও বলেন, ‘আমি বলছি না বিয়ে করা ভুল। কিন্তু ও যেভাবে ভারতের হয়ে ভালো খেলছিল, সেটি আরও একটু উপভোগ করতে পারত। ভক্তরা কোহলির জন্য উন্মাদ। ২০ বছর ধরে ও যে ভালোবাসা পাচ্ছে, সেটি ওকে ধরে রাখতে হবে।’

প্রসঙ্গত ২০১৭ সালে বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী আনুশকা শর্মাকে বিয়ে করেন কোহলি। গত বছরের ১১ জানুয়ারি মা-বাবা হয়েছেন এই দম্পতি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন