বিগ ব্যাশে রেকর্ড চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন হলো পার্থ
jugantor
বিগ ব্যাশে রেকর্ড চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন হলো পার্থ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৪৯:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশের ১১ আসরের ইতিহাসে রেকর্ড চতুর্থবার শিরোপা জিতল পার্থ স্কোর্চার্স।

শুক্রবার ডকল্যান্ড স্টেডিয়ামে গত দুই আসরের টানা চ্যাম্পিয়ন সিডনি সিক্সার্সকে ৭৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে চতুর্থবারের মতো শিরোপা ঘরে তুলে নেয় অ্যাস্ট টার্নারের নেতৃত্বাধীন পার্থ স্কোর্চার্স।

এদিন টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ২৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় পার্থ স্কোর্চার্স। পঞ্চম উইকেটে লরি ইভান্সকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক অ্যাস্টন টার্নার। এই জুটি ৫৯ বল মোকাবেলা করে স্কোর বোর্ডে যোগ করে ১০৪ রান।

জোড়া ফিফটি তুলে নেন লরি ইভান্স ও অ্যাস্ট টার্নার। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৬ উইকেটে ১৭১ রান করে পার্থ স্কোর্চার্স। দলের হয়ে ৪১ বলে চারটি বাউন্ডারি ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন লরি ইভান্স। ৩৫ বলে চারটি বাউন্ডারি আর এক ছক্কায় ৫৪ রান করেন টার্নার।

১৭২ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট হারাতে থাকে বিগ ব্যাগের গত তিন আসরের চ্যাম্পিয়ন সিডনি সিক্সার্স। ৩ উইকেটে ৬২ রান করা দলটি এরপর ৩০ রানের ব্যবধানে হারায় ৭ উইকেট। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের কারণে ১৬.২ ওভারে ৯২ রানে অলআউট হয় সিডনি।

পার্থ স্কোর্চার্সের হয়ে অ্যান্ড্রু টাই ৩ ওভারে ১৫ রানে শিকার করেন ৩ উইকেট। ৩.২ ওভারে ২০ রানে ২ উইকেট নেন জাই রিচার্ডসন।

ফাইনালে ৭৬ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে ম্যাচের সেরা হয়েছেন লরি ইভান্স। আর ৫৭৭ রান করে টুর্নামেন্টের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেছেন হোবার্ট হ্যারিকেনসের বেন ম্যাকডারমট।

বিগ ব্যাশে রেকর্ড চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন হলো পার্থ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশের ১১ আসরের ইতিহাসে রেকর্ড চতুর্থবার শিরোপা জিতল পার্থ স্কোর্চার্স।  

শুক্রবার ডকল্যান্ড স্টেডিয়ামে গত দুই আসরের টানা চ্যাম্পিয়ন সিডনি সিক্সার্সকে ৭৯ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে চতুর্থবারের মতো শিরোপা ঘরে তুলে নেয় অ্যাস্ট টার্নারের নেতৃত্বাধীন পার্থ স্কোর্চার্স।

এদিন টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ২৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় পার্থ স্কোর্চার্স। পঞ্চম উইকেটে লরি ইভান্সকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক অ্যাস্টন টার্নার। এই জুটি ৫৯ বল মোকাবেলা করে স্কোর বোর্ডে যোগ করে ১০৪ রান। 

জোড়া ফিফটি তুলে নেন লরি ইভান্স ও অ্যাস্ট টার্নার। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৬ উইকেটে ১৭১ রান করে পার্থ স্কোর্চার্স। দলের হয়ে ৪১ বলে চারটি বাউন্ডারি ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন লরি ইভান্স। ৩৫ বলে চারটি বাউন্ডারি আর এক ছক্কায় ৫৪ রান করেন টার্নার। 

১৭২ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই উইকেট হারাতে থাকে বিগ ব্যাগের গত তিন আসরের চ্যাম্পিয়ন সিডনি সিক্সার্স। ৩ উইকেটে ৬২ রান করা দলটি এরপর ৩০ রানের ব্যবধানে হারায় ৭ উইকেট।  নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের কারণে ১৬.২ ওভারে ৯২ রানে অলআউট হয় সিডনি। 

পার্থ স্কোর্চার্সের হয়ে অ্যান্ড্রু টাই ৩ ওভারে ১৫ রানে শিকার করেন ৩ উইকেট। ৩.২ ওভারে ২০ রানে ২ উইকেট নেন জাই রিচার্ডসন।
 
ফাইনালে ৭৬ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে ম্যাচের সেরা হয়েছেন লরি ইভান্স। আর ৫৭৭ রান করে টুর্নামেন্টের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেছেন হোবার্ট হ্যারিকেনসের বেন ম্যাকডারমট।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন