রাশিয়া বিশ্বকাপ

আর্জেন্টিনার চূড়ান্ত দল নিয়ে সমালোচনার ঝড়

প্রকাশ : ২২ মে ২০১৮, ১২:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

বেজে উঠেছে বিশ্বকাপের দামামা। আর মাত্র ২৩ দিন পর রাশিয়ায় বসবে বিশ্ব ফুটবলের ২১তম আসর। দীর্ঘ ৩২ বছর পর ফের সোনালি ট্রফি জয়ের স্বপ্ন দেখছেন আর্জেন্টাইনরা। তৃতীয় শিরোপার মিশনে ইতিমধ্যে দলও ঘোষণা করেছেন কোচ হোর্হে সাম্পাওলি।

তবে এতেই ঘটেছে যত বিপত্তি। পরপরই সেই দল নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। যে যার মতো ধুয়ে দিচ্ছেন আর্জেন্টিনা কোচকে। তা কেন সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হচ্ছেন তিনি? কৌতূহলী পাঠকদের সেই চাহিদা নিবৃত্ত করতেই এ আয়োজন-

ভালো মানের গোলরক্ষক মাত্র একজন : আর্জেন্টিনার এই দলে নেই কোনো বিশ্বমানের গোলরক্ষক। ভরসা কেবল সার্জিও রোমেরো। বিকল্প উইলি কাবাল্লেরো ও ফ্রাঙ্কো আরমানিতে রাখা হবে ‘ঝুঁকি’। অবশ্য সাম্পাওলির এতে করার কিছু ছিল না। এ মুহূর্তে গোলপোস্টের নিচে আলবিসেলেস্তেদের সেরা তারাই।

নড়বড়ে রক্ষণভাগ : সমসাময়িক ফুটবল বিশ্বে অন্যতম ভঙ্গুর রক্ষণভাগ আর্জেন্টিনার। ভরসা বলতে নিকোলাস ওতামেন্দি।  ফর্মে নেই মার্কস রোহো ও গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো। নিজ নিজ লিগে প্রতিপক্ষের পা থেকে বল কাড়তে তাদের গড়বড় দেখা গেছে।  ট্যাকল দিতেও খেই হারিয়েছেন।

তবে আস্থা থাকছে ফেদ্রেরিকো ফাজিওর ওপর।  অসাধারণটেকনিকে এবার চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে রোমাকে তুলছেন ফাইনালে।  সঙ্গে আস্থা রাখা যেতে পারে মার্কস আকুইনার ওপর। তবে তাদের মাঝে এখনও সমন্বয় গড়ে তুলতে পারেননি আর্জেন্টিনা কোচ।

সমস্যা জর্জর মিডফিল্ড : সেই ২০১০ সালের পর থেকেই আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডে দুর্বলতা দেখা যাচ্ছে। এখনও সেই ক্ষত সেরে ওঠেনি। এবারের মিডফিল্ডকে সবচেয়ে বাজে বলছেন সমালোচকরা। অফফর্মের হাভিয়ের মাসচেরানো আছেন দলে। এখনও পুরোপুরি ফিট হয়ে ওঠেননি লুকাস বিগলিয়া। সেরাটা দিতে পারছেন না এভার বানেগা। মোটামুটি ফর্মে আছেন জিওভানি লো সেলসো। তবে বিশ্বকাপের মতো আসর খেলার অভিজ্ঞতা নেই তার।

সর্বোপুর ভরসা রাখতে হচ্ছে এঞ্জেল ডি মারিয়ার ওপর। তিনি যেমন গোল করাতে পারেন, তেমন করতেও সক্ষম।

মেসির ওপর অতিমাত্রায় নির্ভরশীল : এক লিওনেল মেসির ওপর চরম মাত্রায় নির্ভরশীল আর্জেন্টিনা। দলে যে তারকা নেই তা বলা যাবে না। রয়েছেন পাওলো দিবালা, সার্জিও আগুয়েরো ও গঞ্জালো হিগুয়েইনের মতো সুপারস্টার। সাম্প্রতিক সময়ে বাজে পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড। এখনও পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠেননি আগুয়েরো। হিগুয়েইনের প্রতিভা নিয়ে কোনো সংশয় নেই। তবে মূল মঞ্চে তাকে খুঁজে পাওয়া যায় না। তিনটি ফাইনালে দৃষ্টিকটু মিস করার নজির রয়েছে তার।

তবু ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দলে ইনফর্ম মাউরো ইকার্দিকে রাখেননি সাম্পাওলি। এই ইন্টার মিলান স্ট্রাইকারকে দলে না রাখা নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন সমালোচকরা। তুলেছেন সমালোচনার ঝড়। তারা বলছেন, ২৪ বছর বয়সী এ গোলমেশিনকে না রেখে বড় ভুল করল আর্জেন্টিনা।

বিতর্কিত কোচ : চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের বিচারে নিজের যোগ্যতা এখনও প্রমাণ করতে পারেননি সাম্পাওলি। দলে রয়েছেন একঝাঁক হিরো। সবাই সেরাটা নিংড়ে দিতে মরিয়া। তবে তাদের সর্বোচ্চটা বের করে আনতে পারছেন না তিনি। তার ট্যাকটিকস নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন খোদ দিয়েগো ম্যারাডোনা। তার গণমাধ্যমকর্মী সামলানো নিয়েও প্রশ্ন আছে। শোনা যায়, খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফের কাছ থেকে সম্মান আদায় করে নিতে অক্ষম সাম্পাওলি।

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স : আর্জেন্টিনার সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ভক্ত-সমর্থক, বোদ্ধা-বিশ্লেষকদের স্বপ্ন দেখাতে পারছে না। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে বিশ্বকাপের টিকিট কেটেছে দলটি। বাছাইপর্ব পরবর্তী বিশ্বকাপ প্রস্তুতি মিশনেও নাকাল অবস্থা। বাজেভাবে হেরেছে স্পেন ও নাইজেরিয়ার কাছে।

আশা জাগাচ্ছে : দলটিতে রয়েছেন মেসির মতো তারকা। যিনি সেরা ছন্দে থাকলে সবই সম্ভব। দিবালা, আগুয়েরো ও হিগুয়েইনরাও কম যান না। নিজেদের দিনে তারাও ত্রাস। সঙ্গে আছেন পরীক্ষিত ডি মারিয়া। তাদের মধ্যে সমন্বয় গড়ে উঠলে দীর্ঘদিন পর সাধ মিটতে পারে আর্জেন্টিনা ভক্ত-সমর্থকদের।

আর্জেন্টিনা স্কোয়াড:

গোলরক্ষক : সার্জিও রোমেরো, উইলি কাবাল্লেরো ও ফ্রাঙ্কো আরমানি।

রক্ষণভাগ : গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো, ক্রিশ্চিয়ান আনসালদি, নিকোলাস ওতামেন্দি, ফেদ্রেরিকো ফাজিও, মার্কস রোহো, নিকোলাস তাগলিয়াফিকো, মার্কস আকুইনা ও এদুয়ার্দো সালভিও।

মিডফিল্ড : হাভিয়ের মাসচেরানো, লুকাস বিগলিয়া, এভার বানেগা, জিওভানি লো সেলসো, ম্যানুয়েল লানজিনি, এঞ্জেল ডি মারিয়া ও ম্যাক্সি মেজা।

ফরোয়ার্ড : লিওনেল মেসি, পাওলো দিবালা, সার্জিও আগুয়েরো, গঞ্জালো হিগুয়েইন ও ক্রিস্টিয়ান পাভন।